১২ ফেব্রুয়ারী, ২০১৭ ০৮:১৮ পিএম

নবীন নারী চিকিৎসকেরা ভেবে দেখবেন কি?

নবীন নারী চিকিৎসকেরা ভেবে দেখবেন কি?

আমাদের মা-বোনেরা অনেকে বিভিন্ন সময় স্তন এবং পায়ুপথের বিভিন্ন সমস্যায় ভোগেন, অথচ লজ্জার কারণে ডাক্তারের চেম্বারে যান না। কেউ গেলেও যান গাইনি ডাক্তারের কাছে। কিন্তু স্তন ও পায়ুপথের সমস্যাগুলো গাইনি ডাক্তারদের বিষয় নয়।

ফলে ঠিকমতো চিকিৎসা না হওয়ায় একসময় এসব সমস্যা জটিল আকার ধারণ করলে বাধ্য হয়ে যখন সার্জারি বিশেষজ্ঞ পুরুষ ডাক্তারের কাছে যান, তখন দু-একটা ব্যতিক্রম ছাড়া বেশির ভাগ ক্ষেত্রে আর চিকিৎসা করে খুব একটা লাভ হয় না। কারণ স্তন ক্যান্সার ততক্ষণে সারা শরীরে ছড়িয়ে পড়ে।

চিকিৎসা করেও তখন আর লাভ নেই! ৪০-৪৫ বছর বয়সী গৃহকর্ত্রীও মৃত্যুকে বরণ করেন। পরিবারটি বিপদে পড়ে। স্তন ক্যান্সার এ ধরনের একটি সমস্যা। স্তন ও পায়ুপথের বেশির ভাগ সমস্যা সার্জারি বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকদের সাথে সংশ্লিষ্ট বিষয়, এটা সবার জানা থাকা উচিত। এই প্রয়োজনীয় এবং অতি গুরুত্বপূর্ণ তথ্যটি অনেকেই জানেন না।

সে কারণে অনেক অর্থের অপচয় হয়। সময়ের অপচয় হয়। আর সেই সময়ের মধ্যে স্তনের এবং মলদারের ক্যান্সার সারা শরীরে ছড়িয়ে পড়ে। জানা যায়, বাংলাদেশে প্রতি বছর ১৫ হাজার নারী স্তন ক্যান্সারে আক্রান্ত হচ্ছেন। উপযুক্ত চিকিৎসার অভাবে কিংবা চিকিৎসাবঞ্চিত হয়ে তাদের মধ্যে সাত হাজারই মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়ছেন।

দেশে নারী স্তন সার্জনের সংখ্যা হাতে গোনা। এ জন্য নবীন নারী চিকিৎসকদের কারো কারো উচিত অন্য কোনো সমস্যা বা বাধা না থাকলে, সার্জারি বিশেষজ্ঞ বিশেষ করে ব্রেস্ট সার্জন বা অনকোলজিক্যাল সার্জন হওয়া।

অভিভাবকগণ তার অধীনস্থ নবীন নারী চিকিৎসককে শল্য চিকিৎসক বিশেষ করে স্তন সার্জন বা অনকোলজিক্যাল সার্জন হওয়ার উপদেশ দিতে পারেন। এতে অনেক অবকাঠামোগত অপচয় হ্রাস পাবে। 

লেখক : চিকিৎসক, ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল, ঢাকা।

সূত্রঃ নয়া দিগন্ত।

  এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত
বেশিদিন ওমিপ্রাজল খেলে হাড় ক্ষয়ের ঝুঁকি বাড়ে 
কিডনি পাথরের ঝুঁকি বাড়ায় নিয়মিত অ্যান্টাসিড সেবন 

বেশিদিন ওমিপ্রাজল খেলে হাড় ক্ষয়ের ঝুঁকি বাড়ে