০৬ ফেব্রুয়ারী, ২০১৭ ০৩:০২ পিএম

আন্দোলনে ঢামেকের ছাত্রীরা

আন্দোলনে ঢামেকের ছাত্রীরা

ইলিয়াস হোসেন : হাসপাতালে দায়িত্বপালনকালে ইন্টার্ন চিকিৎসক ডা. ফারহানা আরেফীন কাকনের ওপর রোগীর স্বজনদের সন্ত্রাসী হামলার দৃষ্টান্তমূলক বিচার দাবি করেছেন ঢাকা মেডিকেল কলেজের ছাত্রীরা। সোমবার তারা ক্লাস-পরীক্ষা বর্জন করে অবস্থান নেন শহীদ মিনারে। 

এ সময় মেডিকেল ছাত্রীরা ক্ষোভ জানিয়ে বলেন, আজ কথায় কথায় চিকিৎসকের ওপর হামলা চালানো হয়। এসব ঘটনায় মামলা হলেও দোষীদের দৃষ্টান্তমূলক কোন সাজা হয় না। ফলে সবসময় নিরাপত্তা হুমকিতে থাকেন চিকিৎসকরা। বিশেষ করে নারী চিকিৎসকরা চরম ঝুঁকিতে কাজ করে থাকেন। তারা এ ঘটনায় জড়িত সবার দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দেয়ার দাবি জানান। একইসাথে নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে চিকিৎসকদের ম্যাজিস্ট্রেসি ক্ষমতা প্রদানসহ অবিলম্বে স্বাস্থ্য পুলিশ নিয়োগ দেয়ার দাবি জানান।  

উল্লেখ্য, শনিবার রাতে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের শিশু ওয়ার্ডে রোগীর স্বজনদের হাতে লাঞ্ছিত ও আঘাতে রক্তাক্ত হন দায়িত্বরত ইন্টার্ন চিকিৎসক ডা. ফারহানা আরেফীন কাকন। এ ঘটনার পর থেকে কর্মবিরতিতে যান ইন্টার্নরা। পরবর্তীতে প্রশাসনের আশ্বাসে কাজে ফেরেন তারা।

হামলা পরিবর্তী অবস্থা জানাতে রোববার বিকেলে সংবাদ সম্মেলন করেন ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। সেখানে পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল ডা. মোহাম্মদ মিজানুর রহমান জানান, শনিবার রাতের ঘটনায় শাহবাগ থানায় মামলা হয়েছে এবং ২ জনকে আটক করা হয়েছে। একজন অধ্যাপককে প্রধান করে ৪ সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন করার কথা জানান তিনি।  

 

করোনা ও বার্ধক্যজনিত অসুস্থতা

এক দিনে চিরবিদায় পাঁচ বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক

  এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত