ঢাকা মঙ্গলবার, ২২ অক্টোবর ২০১৯, ৭ কার্তিক ১৪২৬,    আপডেট ১২ ঘন্টা আগে


২৪ ডিসেম্বর, ২০১৬ ১১:০৩

মাছ ও মাছের তেল খান

মাছ ও মাছের তেল খান

ডাঃ মোঃ ফজলুল কবির পাভেল

বর্তমান প্রায় সবাই মাংসের দিকে ঝুঁকছে। বিশেষ করে শিশু এবং তরুণরা মাছ খেতেই চায়না।

অথচ মাছ যে শরীরের জন্য উপকারী তা কিন্তু আজ গবেষণায় প্রমাণিত।

আর লাল মাংস শরীরের জন্য অত্যন্ত ক্ষতিকর। লাল মাংস বেশী খেলে ক্যান্সার পর্যন্ত হতে পারে।

 

মাছ ও মাছের তেল কোলেস্টেরল কমাতে সাহায্য করে।

মাছে ওমেগা-৩ ফ্যাটি এসিড থাকে। ওমেগা-৩  এসিড নিয়ে বর্তমানে অনেক আলোচনা ও গবেষণা হচ্ছে।

এই ফ্যাটি এসিড আমাদের শরীর থেকে ক্ষতিকর চর্বি সরিয়ে ফেলে। ফলে রক্তের মধ্যে ক্ষতিকর চর্বি কমে যায়।

এই ক্ষতিকর চর্বিই আমাদের স্ট্রোক এবং হার্ট অ্যাটাকের জন্য দায়ী।

প্রত্যেকেরই সপ্তাহে ২ থেকে ৩ দিন মাছ খাওয়া উচিত। বেশীর ভাগ মাছেই কিন্তু ওমেগা-৩ ফ্যাটি এসিড থাকে।

মাছে যে শুধু  ওমেগা-৩ ফ্যাটি এসিডই থাকে তা নয়।

ভিটামিন, মিনারেল, প্রোটিন সহ আরো বিভিন্ন পুষ্টি উপাদান প্রচুর পরিমাণে থাকে।

 

বর্তমানে মাছের তেল থেকে তৈরী ওমেগা-৩ ফ্যাটি এসিডের ক্যাপসুল বাজারে পাওয়া যায়।

কেউ যদি মাছ খেতে না চান তবে এসব ক্যাপসুল খেতে পারেন।

তবে ক্যাপসুল খেয়ে উপকার হলেও তিনি মাছের প্রকৃত স্বাদ থেকে বঞ্চিত হবেন।

এছাড়া অনেক পুষ্টি উপাদানও তিনি হারাবেন। তাই সবারই মাছ খাবার দিকে মনোযোগী হওয়া উচিত।

 

রেজিস্টার, মেডিসিন

রাজশাহী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল

 

  এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত