০৩ ডিসেম্বর, ২০১৬ ০৫:০৮ পিএম
মেডিভয়েসের শোক

ডা. শামারুখ মেহজাবিনের অপমৃত্যু

ডা. শামারুখ মেহজাবিনের অপমৃত্যু

গত ১৩ নভেম্বর ২০১৪ ডাক্তার শামারুখ মেহজাবিন সুমির মৃত দেহ ধানমন্ডির ৬নং রোডে ১৪ নং বাসার বাথরুম থেকে ঝুলন্ত অবস্থায় উদ্ধার করা হয়।

তিনি যশোর ৫ আসনের এম.পি টিপু সুলতানের পুত্রবধু ছিলেন। 

হলি ফ্যামিলি মেডিকেল কলেজ থেকে এম বি বি এস পাশ করা এই ডাক্তারের অকাল মৃত্যুতে শোকে মূহ্যমান তার সহপাঠী এবং চিকিৎসক সমাজ।

তারা এই হত্যাকান্ড মেনে নিতে পারছেন না। এই হত্যাকান্ডের সুষ্ঠু বিচার দাবি করেছেন। 

এদিকে শামারুখের মৃত্যুকে সুলতান পরিবার আত্মহত্যা বললেও শামারুখের পরিবার তা মানতে নারাজ।

তাদের দাবী তাকে পরিকল্পিতভাবে হত্যা করে লাশ ঝুলিয়ে রাখা হয়েছে।

তারা আরো দাবী করেন পরিকল্পিত হত্যাকান্ডকে ধাপাচাপা দিতে আত্মহত্যার নাটক সাজানোর প্রক্রিয়ায় ব্যস্ত এবং ক্ষমতার প্রভাব খাটিয়ে পোস্ট মর্টেম রিপোর্ট পাল্টানোর অপপ্রয়াস চালাচ্ছে। 

হলি ফ্যামিলি মেডিকেল কলেজের সহকারী অধ্যাপক ডা. শোয়েব বলেন পোস্টমর্টেম রিপোর্ট নিয়ে যেন কোন রাজনীতি বা ছলচাতুরীর আশ্রয় নেয়া না হয়। 

তিনি আরো বলেন তার শরীরে অনেক জখমের দাগ রয়েছে যা থেকে এটি হত্যাকান্ড বলে নিশ্চিত করা যায়।

তার মতো আর কোনো চিকিৎসক যেন এভাবে হত্যাকান্ডের শিকার না হয় । এর একটি সুষ্ঠু বিচার আশা করছি।

অন্যদিকে তার সহপাঠী ডা. আবিদা সুলতানা বলেন হাসপাতালে শামারুখের শরীরে হত্যার অনেক আলামত আমরা দেখেছি।

এই হত্যা যেন আত্মহত্যা বলে চালানো না হয়্য। 

ডা. সাব্বির বলেন শামারুখ ছিল একজন পরোপকারী মানুষ। তার মাধ্যমে অনেক রোগী সেবা পেত।

সে সপ্তাহে ১ দিন কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে ছিন্নমূল শিশুদের পড়াত। 

 

(প্রকাশিত :  সংখ্যা : ৪; বর্ষ ২; জানুয়ারী-ফেব্রুয়ারী ২০১৫)

 

মেডিভয়েসকে বিশেষ সাক্ষাৎকারে পরিচালক

ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে শতাধিক করোনা বেড ফাঁকা

  এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত
নিবন্ধনহীন ওষুধ লিখলে চিকিৎসকের শাস্তি
জাতীয় ওষুধনীতি-২০১৬’ এর খসড়ার নীতিগত অনুমোদন

নিবন্ধনহীন ওষুধ লিখলে চিকিৎসকের শাস্তি