০২ ডিসেম্বর, ২০১৬ ১১:৩৮ এএম
এইডস দিবসের আলোচনায় ইউএন এইডসের কর্মকর্তা

বছরে হাজারের বেশি এইচআইভি সংক্রমিত

বছরে হাজারের বেশি এইচআইভি সংক্রমিত

জাতিসংঘের এইডসবিষয়ক সংস্থা ইউএন এইডস বলছে, দেশে প্রতিবছর এক হাজারের বেশি মানুষ নতুন করে এইচআইভি সংক্রমণের শিকার হচ্ছে।

চার বছরের মধ্যে কার্যকর প্রতিরোধ সেবার পরিধি বাড়াতে না পারলে ২০৩০ সাল নাগাদ আক্রান্ত মানুষের সংখ্যা ১ লাখ ২০ হাজার হবে।

গতকাল বৃহস্পতিবার বিশ্ব এইডস দিবস উপলক্ষে আয়োজিত অনুষ্ঠানে ইউএন এইডসের বাংলাদেশে অফিসার ইনচার্জ সায়মা খান এ কথা বলেন।

রাজধানীর ওসমানী স্মৃতি মিলনায়তনে যৌথভাবে এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করে জাতীয় এইডস/এসটিডি কর্মসূচি, ইউএন এইডস, আইসিডিডিআরবি, সেভ দ্য চিলড্রেন, ইউএনএফপিএ, বিশ্বস্বাস্থ্য সংস্থাসহ নয়টি প্রতিষ্ঠান।

দিবসটি উপলক্ষে অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি স্বাস্থ্যমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম বাংলাদেশে এইচআইভি/এইডস-সম্পর্কিত নতুন তথ্য প্রকাশ করেন।

তিনি বলেন, ২০১৬ সালে এইডসে ১৪১ জন মারা গেছেন। আর আক্রান্ত ৫৭৮ জন নতুন ব্যক্তি শনাক্ত হয়েছেন। দেশে এ পর্যন্ত ৭৯৯ জন এইডসে মারা গেছেন।

সায়মা খান বলেন, এইচআইভি/এইডস প্রতিরোধের ক্ষেত্রে বাংলাদেশ দক্ষিণ এশিয়া অঞ্চলে পিছিয়ে আছে।

এ অঞ্চলে আক্রান্ত ব্যক্তি শনাক্তের হার ৬০ শতাংশ, আর বাংলাদেশে সেই হার ৪০ শতাংশ।

শনাক্ত করা ব্যক্তিদের চিকিৎসার আওতায় আনার হার এ অঞ্চলে ৪১ শতাংশ, বাংলাদেশে তা ২০ শতাংশের মতো।

জাতিসংঘের এই কর্মকর্তা বলেন, বর্তমান ধারায় এইডস প্রতিরোধ কর্মসূচি চলতে থাকলে ২০৩০ সালে লক্ষ্যমাত্রা অর্জিত হবে না।

লক্ষ্যমাত্রায় বলা হয়েছে, সংক্রমণের হার বছরে তিন শর নিচে নামাতে হবে। বর্তমানে এই হার এক হাজারের বেশি। 

স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, স্বাস্থ্য খাতে বাংলাদেশের অনেক গুরুত্বপূর্ণ অর্জন আছে। মানুষের স্বাস্থ্যের উন্নতি করতে সরকার দৃঢ়প্রতিজ্ঞ।

বাংলাদেশ এইডস-সম্পর্কিত লক্ষ্যমাত্রাও অর্জন করতে সক্ষম হবে।

অনুষ্ঠানের সভাপতি স্বাস্থ্যসচিব মো. সিরাজুল ইসলাম বলেন, স্বাস্থ্য খাতের অর্জনের পেছনে দাতাদের গুরুত্বপূর্ণ অবদান রয়েছে।

ইউএন এইডসের বাংলাদেশ ছেড়ে চলে যাওয়ার সিদ্ধান্ত পুনর্বিবেচনার অনুরোধ জানান তিনি। 

অনুষ্ঠানে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব বিমান কুমার সাহা, স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক আবুল কালাম আজাদ, পরিবার পরিকল্পনা অধিদপ্তরের মহাপরিচালক মোহাম্মদ ওয়াহিদ হোসেন, বাংলাদেশ মেডিকেল অ্যাসোসিয়েশনের মহাসচিব এম ইকবাল আর্সলান প্রমুখ বক্তব্য দেন।

 

সৌজন্যে : প্রথম আলো। 

 

  এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত
নিবন্ধনহীন ওষুধ লিখলে চিকিৎসকের শাস্তি
জাতীয় ওষুধনীতি-২০১৬’ এর খসড়ার নীতিগত অনুমোদন

নিবন্ধনহীন ওষুধ লিখলে চিকিৎসকের শাস্তি