০৪ ফেব্রুয়ারী, ২০২২ ০১:০২ পিএম

জেলা পর্যায়ে আইসিইউ সেবা বাড়ানোর উদ্যোগ স্বাস্থ্য বিভাগের

জেলা পর্যায়ে আইসিইউ সেবা বাড়ানোর উদ্যোগ স্বাস্থ্য বিভাগের
১০টি মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল ও ৪৩টি জেলা হাসপাতালে মোট ৫৩০টি আইসিইউ বেড পরিকল্পনা করেছে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর। ছবি: সংগৃহীত

মেডিভয়েস রিপোর্ট: করোনাভাইরাস সংক্রমণের নিয়ন্ত্রণে জেলা পর্যায়ে আইসিইউ বেড বাড়ানোর উদ্যোগ নিয়েছে স্বাস্থ্য বিভাগ। ১০টি মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল ও ৪৩টি জেলা হাসপাতালে মোট ৫৩০টি আইসিইউ বেড পরিকল্পনা করেছে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তর বলেছে, দুই সপ্তাহের মধ্যেই ২৩০টি বেড চালু হবে। তবে অবকাঠামো সুবিধা না থাকায় ১৯টি জেলায় এই কার্যক্রম শুরু করতে কিছুটা দেরি হবে বলেও জানিয়েছে স্বাস্থ্য বিভাগ।

এদিকে জেলা পর্যায়ের সরকারি হাসপাতালগুলোতে এখনো অনেক চিকিৎসা সুবিধাই অপর্যাপ্ত। ২০টির বেশি জেলা সদর হাসপাতালে নেই আইসিইউ। আর যে সব হাসপাতালে আইসিইউ সুবিধা আছে, তা প্রয়োজনের তুলনায় নগণ্য।

দেশে বেশ কিছুদিন ধরেই করোনা সংক্রমণ বেশি। জেলা পর্যায়ের হাসপাতালগুলোর সক্ষমতা বাড়াতে এবার ৪৩টি জেলার সদর হাসপাতালে বসছে ১০টি করে আইসিইউ বেড। আর যে সব হাসপাতালে অবকাঠামো সুবিধা আছে, সেখানেই আপাতত বাড়ানো হচ্ছে শয্যা।

এছাড়াও বরিশাল, খুলনা, টাঙ্গাইল, ফরিদপুর, দিনাজপুরসহ দশটি মেডিকেল কলেজ হাসপাতালেও যুক্ত হচ্ছে ১০টি করে আইসিইউ শয্যা।

ইআরপিপি, প্রকল্প প্রধান ডা. শাহ গোলাম নবী তুহিন জানিয়েছেন, করোনা সংক্রমণ বেড়ে যাওয়ার কারণে বর্তমানে দেশে যে জরুরি অবস্থা বিরাজমান তা নিরসনেই নেয়া হয়েছে এ উদ্যোগ। যা শুধু করোনা মহামারি প্রতিরোধে নয় বরং অন্য যে কোনো চিকিৎসাজনিত জরুরি অবস্থা মোকাবেলাতেও সহায়ক হবে।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক অধ্যাপক আহমেদুল কবীর জানিয়েছেন, আইসিইউ বেড বাড়ার সঙ্গে নিয়োগ দেয়া হবে চিকিৎসক, নার্সসহ সহায়ক জনশক্তি। স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের ইআরপিপি প্রকল্প থেকে দেয়া হচ্ছে অর্থ। দুই সপ্তাহের মধ্যে ২৩টি জেলায় ২৩০টি শয্যা প্রস্তুত হবে বলেও জানিয়েছে স্বাস্থ্য বিভাগ।

উল্লখ্য যে, দেশে বর্তমানে ৮২৪টি কোভিড ডেডিকেটেড আইসিইউ বেড আছে। বিভাগ হিসেবে সবচেয়ে কম ২২টি আইসিইউ বেড সিলেট বিভাগে।

মেডিভয়েসের জনপ্রিয় ভিডিও কন্টেন্টগুলো দেখতে সাবস্ক্রাইব করুন MedivoiceBD ইউটিউব চ্যানেল। আপনার মতামত/লেখা পাঠান [email protected] এ।
  এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত
নিবন্ধনহীন ওষুধ লিখলে চিকিৎসকের শাস্তি
জাতীয় ওষুধনীতি-২০১৬’ এর খসড়ার নীতিগত অনুমোদন

নিবন্ধনহীন ওষুধ লিখলে চিকিৎসকের শাস্তি