ঢাকা      রবিবার ১৫, সেপ্টেম্বর ২০১৯ - ৩১, ভাদ্র, ১৪২৬ - হিজরী

প্রশাসনের দুর্নীতিবাজ কর্মকর্তাদের কারণে দোষীরা পার পেয়ে যায়, অভিযোগ বিশেষজ্ঞ চিকিত্সকদের

২৭ বছরে বিষাক্ত প্যারাসিটামলে কয়েক হাজার শিশুর মৃত্যু

গত ২৭ বছরে দেশে ভেজাল প্যারাসিটামল খেয়ে কয়েক হাজার শিশুর মৃত্যু হয়েছে। দেশ এখন ভেজাল ওষুধে সয়লাব। নিরবে প্রতিবছর ভেজাল ওষুধের কারণে কত লোকের প্রাণহানি ঘটছে তার সঠিক তদন্ত বা পরিসংখ্যান নেই। তবে বরাবরই ওষুধ প্রশাসনের অসাধু কর্মকর্তাদের কারণে পার পেয়ে যায় ঘাতকরা।

 

এ দিকে গতকাল সোমবার ভেজাল প্যারাসিটামল খেয়ে শিশু মৃত্যুর ঘটনায় দায়েরকৃত মামলায় খালাস পেয়েছেন রিড ফার্মার ব্যবস্থাপনা পরিচালক মিজানুর রহমানসহ পাঁচ আসামি। মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তার ব্যর্থতা, তদন্তে অবহেলা ও গাফিলতির কারণে আসামিদের সাজা দেওয়া যায়নি।

 

স্বাস্থ্যমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম এ প্রসঙ্গে বলেন, এই মামলার তদন্ত প্রতিবেদনের ফাইল হাজির করার জন্য নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। সেটা বিশ্লেষণ করে দেখা হবে কোথায় অবহেলা এবং গাফিলতি করা হয়েছে। সে অনুযায়ী দোষীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

 

ওষুধ প্রশাসনের পরিচালক গোলাম কিবরিয়া বলেন, রায়ের কপি এখনো হাতে পাইনি। হাতে পেলেই বুঝা যাবে গাফিলতি কোথায় করা হয়েছে। কেউ তদন্তে অবহেলা করলে তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

 

ঢাকা শিশু হাসপাতালের পরিচালক অধ্যাপক ডা. মনজুর হোসেন বলেন, হাতে প্রমাণসহ ধরা পড়েছে। তবে তদন্ত কর্মকর্তার ব্যর্থতার কারণে পার পেয়ে গেছে দোষীরা। এটা দুঃখজনক ঘটনা।

 

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ওষুধ প্রযুক্তি বিভাগের অধ্যাপক আবম ফারুক বলেন, ওষুধ প্রশাসন এ সব ব্যাপারে বরাবই ব্যর্থতার পরিচয় দেয়। তাদের ব্যর্থতার কারণে মানুষের জীবন নিয়ে ছিনিমিনি খেলছে কিছু অসাধু মানুষ।

 

এটা মেনে নেওয়া যায় না। তদন্তে গাফিলতিকারীদের আসামি করে ফের মামলা করে বিচার হওয়া দরকার।  

 

২০০৯ সালে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ের শিশু বিভাগ, কিডনি ইনস্টিটিউট এবং শিশু হাসপাতালে বেশ কিছু শিশু মারা যায়। কিডনি বিকল হয়ে এ সব শিশুর মৃত্যু হয়।

 

পরে শিশুদের খাওয়ানো প্যারাসিটামল সিরাপ এবং রিড ফার্মার প্যারাসিটামল সিরাপের নমুনা সংগ্রহ করে পরীক্ষা করা হয়।

 

এতে দেখা যায়, ডাই ইথালিন গ্লাইকোল নামের এক ধরনের বিষাক্ত রাসায়নিক মেশানো রয়েছে এ সব সিরাপে। এই রাসায়নিক শিল্প কারখানায় ব্যবহার করা হয়। ওই  সময় ২৮ জন শিশুর মৃত্যুর খবর পাওয়া গেলেও মৃতের সংখ্যা কয়েকশ হবে বলে বিশেষজ্ঞরা ধারণা করছেন।

 

১৯৮২ থেকে ১৯৯২ সাল পর্যন্ত বিভিন্ন সময়ে কিডনি অকেজো হয়ে কয়েক হাজার শিশুর মৃত্যু হয়। সাবেক আইপিজিএমআর-এ (বর্তমান বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়) ১৯৮৬ সালে প্রখ্যাত কিডনি বিশেষজ্ঞ অধ্যাপক ডা. মোহাম্মদ হানিফ ৬ শতাধিক শিশুর ডায়ালাইসিস করেন।

 

এ সব শিশুর বেশিরভাগই মারা যায়। এ ছাড়া ঢাকা শিশু হাসপাতালে ওই সময় ৫ শতাধিক শিশু মারা যায়। এদের কিডনি বিকল হয়ে গিয়েছিল।  

 

সংশ্লিষ্টরা জানিয়েছেন, ওই সময় প্যারাসিটামলে বিষাক্ততার কারণে কত শিশুর মৃত্যু হয়েছিল সেটা সুনির্দিষ্টভাবে বলা কঠিন। কারণ মারা যাওয়া অনেক শিশুকে হাসপাতালে নেওয়া হয়নি।

 

অনেককে নিভৃতে দাফন করেছে শোকাহত পরিবার। এদের তথ্য কারো কাছে নেই। বিশেষত গ্রাম এলাকার শিশুরাই এই প্যারাসিটামল বিষাক্ততার শিকার হয়েছিল বেশি।

 

অনুসন্ধানে দেখা যায়, শিশুমৃত্যুর পরিপ্রেক্ষিতে প্যারাসিটামলের প্রতি আঙুল উঠলে আশুলিয়ায় অবস্থিত অ্যাডফ্লেমের কারখানা এবং ঢাকা শিশু হাসপাতাল থেকে প্যারাসিটামলের নমুনা সংগ্রহ করা হয়। ওই সময় দরপত্রের মাধ্যমে ঢাকা শিশু হাসপাতালে প্যারাসিটামল সরবরাহ করছিল অ্যাডফ্লেম।

 

দেশের ড্রাগ টেস্টিং ল্যাব তখনো প্যারাসিটামলে ডাই ইথালিন গ্লাইকোল পরীক্ষার পর্যাপ্ত সুবিধা ছিল না। এক পর্যায়ে এসেনশিয়াল ড্রাগ কোম্পানির (ইডিসিএল) ল্যাবে একজন ভারতীয় বিশেষজ্ঞ এনে এসব নমুনা পরীক্ষা করানো হয়। এতে বিষাক্ত কেমিক্যাল ধরা পড়ে। ১৯৯৩ সালের ২ জানুয়ারি প্রতিষ্ঠানটির মালিক ডা. আনোয়ার পাশা এবং তার স্ত্রীর বিরুদ্ধে ড্রাগ আদালতে মামলা করে ওষুধ প্রশাসন।

 

ওষুধ প্রশাসনের ওই মামলার তদন্ত কর্মকর্তা গাফিলতি এবং অবহেলা করেন। ফলে অভিযুক্তদের ১০ বছর সাজা হয়। তবে বিশেষজ্ঞরা বলছেন, জেনেশুনে শিশুদের হত্যা করেছেন তারা। তাদের সর্বোচ্চ শাস্তি মৃত্যুদণ্ড হওয়া দরকার।

 

শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের রসায়ন বিভাগের অধ্যাপক ড. আবুল হাসনাত বলেন, ডাই ইথালিন গ্লাইকোল কোনো প্রাণীর খাবারের সঙ্গে দেওয়া উচিত নয়। কেননা এটা খেলে প্রথমে বমি, পেটে ব্যথা হবে। পরে পরিপাক তন্ত্র নষ্ট হবে। কিডনি বিকল হবে।

সৌজন্যে: দৈনিক ইত্তেফাক

সংবাদটি শেয়ার করুন:

 


জাতীয় বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

ডেঙ্গুতে জীবন গেল দেশের ১ম লিভার ট্রান্সপ্লান্ট করা সিরাজুলের  

ডেঙ্গুতে জীবন গেল দেশের ১ম লিভার ট্রান্সপ্লান্ট করা সিরাজুলের  

মেডিভয়েস রিপোর্ট: বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ে (বিএসএমএমইউ) সফল অস্ত্রোপচারের মাধ্যমে দেশের…

শীঘ্রই ৫ হাজার চিকিৎসক নিয়োগ দেবে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর: মহাপরিচালক

শীঘ্রই ৫ হাজার চিকিৎসক নিয়োগ দেবে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর: মহাপরিচালক

মেডিভয়েস রিপোর্ট: স্বাস্থ্য অধিদপ্তরে জনবলের ঘাটতি অনেক আগে থেকেই।  এই সংকট মেটাতে…

চিকিৎসক সংকট: তথ্য জানতে জেলায় জেলায় ৩৯তম বিসিএসে উত্তীর্ণরা

চিকিৎসক সংকট: তথ্য জানতে জেলায় জেলায় ৩৯তম বিসিএসে উত্তীর্ণরা

ভ্রমণকাহিনী শুনলেই দৃশ্যপটে ভেসে ওঠে আনন্দময় কিছু মূহূর্ত। ভ্রমণকে বেছে নেয় সবাই…

এবার খুলনায় চিকিৎসক লাঞ্ছিত, আটক ২

এবার খুলনায় চিকিৎসক লাঞ্ছিত, আটক ২

মেডিভয়েস রিপোর্ট: বরগুনার বামনা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসক লাঞ্ছিতের রেশ কাটতে না কাটতেই…

পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সহকারী সচিব হলেন ডা. তাহসিনা আফরিন

পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সহকারী সচিব হলেন ডা. তাহসিনা আফরিন

মেডিভয়েস রিপোর্ট: পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সহকারী সচিব পদে (৬ষ্ঠ গ্রেড) পদোন্নতি পেয়েছেন…

কমপাউন্ডার ওসমান বিশেষজ্ঞ ডাক্তার হলেন যেভাবে 

কমপাউন্ডার ওসমান বিশেষজ্ঞ ডাক্তার হলেন যেভাবে 

মেডিভয়েস রিপোর্ট: মো. ওয়াসিম ওসমান ওরফে সৈয়দ ওসমান গণি—চিকিৎসকের কমপাউন্ডার (সাহায্যকারী) হিসেবে…

আরো সংবাদ














জনপ্রিয় বিষয় সমূহ:

দুর্যোগ অধ্যাপক সায়েন্টিস্ট রিভিউ সাক্ষাৎকার মানসিক স্বাস্থ্য মেধাবী নিউরন বিএসএমএমইউ স্বাস্থ্যমন্ত্রী ঢামেক গবেষণা ফার্মাসিউটিক্যালস স্বাস্থ্য অধিদপ্তর