২১ জানুয়ারী, ২০২২ ০৪:০৯ পিএম

মেডিকেল বন্ধে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত রোববার, চলবে প্রফ পরীক্ষা

মেডিকেল বন্ধে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত রোববার, চলবে প্রফ পরীক্ষা
স্বাস্থ্য শিক্ষা অধিদপ্তরের মহাপরিচালক বলেন, ‘অন্যান্য প্রতিষ্ঠান বন্ধের সিদ্ধান্তের সঙ্গে যদি মেডিকেল বন্ধের বিষয়টি মেলানো যায়, তাহলে বন্ধ হবে, না হয় মেডিকেলগুলো চলবে। রোববার (২৩ জানুয়ারি) ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের সঙ্গে আলোচনার পর এ বিষয়ে নিশ্চিত হওয়া যাবে।’

মো. মনির উদ্দিন: করোনাভাইরাসের নতুন ধরন অমিক্রন রোধে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধের ঘোষণা দিয়েছে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ। সিদ্ধান্ত অনুযায়ী, আজ ২১ জানুয়ারি (শুক্রবার) থেকে আগামী ৬ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত সকল স্কুল, কলেজ ও সমপর্যায়ের শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকবে। 

তবে সাধারণ শিক্ষার চেয়ে ব্যতিক্রম হওয়ায় মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের সিদ্ধান্তের আলোকে দেশের মেডিকেল কলেজগুলো এখনই বন্ধ হচ্ছে না জানিয়ে সংশ্লিষ্টরা বলেছেন, করোনায় মেডিকেল শিক্ষা চলমান রাখার বিষয়ে ইতিমধ্যে তৈরি নীতিমালা মেনে চলবে প্রফেশনাল পরীক্ষা।

তারা বলেন, তৃতীয় ও চতুর্থ বর্ষে ওয়ার্ড বন্ধ থাকলেও পঞ্চম বর্ষের শিক্ষার্থীদের ওয়ার্ড চালু থাকবে। একই সঙ্গে বিভিন্ন বর্ষের লেকচার ক্লাসগুলো হবে অনলাইনে।

জানতে চাইলে স্বাস্থ্য শিক্ষা অধিদপ্তরের মহাপরিচালক (ডিজি) অধ্যাপক ডা. এ এইচ এম এনায়েত হোসেন আজ শুক্রবার (২১ জানুয়ারি) দুপুরে মেডিভয়েসকে বলেন, ‘আমরা প্রজ্ঞাপন দেখেছি, রোববার (২৩ জানুয়ারি) ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের সঙ্গে আলোচনার পর এ বিষয়ে নিশ্চিত হওয়া যাবে। অন্যান্য প্রতিষ্ঠান বন্ধের সিদ্ধান্তের সঙ্গে যদি মেডিকেল বন্ধের বিষয়টি মেলানো যায়, তাহলে বন্ধ হবে, না হয় মেডিকেলগুলো চলবে। তবে এখনো এ বিষয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত হয়নি।’

প্রফেশনাল পরীক্ষা চলবে কিনা, এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘মেডিকেল শিক্ষা ব্যবস্থা সাধারণ শিক্ষার মতো না। এ শিক্ষা অন্য রকম। আর এ পরীক্ষা হলো ডাক্তারি পরীক্ষা, প্রফেশনাল পরীক্ষা। সুতরাং পরীক্ষা চলবে। এ পরীক্ষার সঙ্গে অন্যান্য শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধের সম্পর্ক নাই। এখানকার পরিস্থিতি এখনও আমাদের নিয়ন্ত্রণে আছে। তারা স্বাস্থ্যবিধি মেনেই পরীক্ষা দিচ্ছে। তাছাড়া চিকিৎসকরা সম্মুখযোদ্ধা। এখন যারা পরীক্ষা দিচ্ছে, তারা দুই দিন পর চিকিৎসক হবেন। পরীক্ষায় পাস করে তাদেরকে এ পরিস্থিতিই মোকাবিলা করতে হবে। সুতরাং তারা ভয় পেয়ে গেলে কি চলবে? যারা যোদ্ধা, তাদেরকে যুদ্ধ করতে হবে। করোনা স্বাস্থ্য বিষয়ক সমস্যা, এখানে স্বাস্থ্যকর্মীদেরই মুখ্য ভূমিকা রাখতে হবে।’

তিনি আরও বলেন, ‘শিক্ষার্থীদের জন্য নির্দেশনা হলো, তারা যেন স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলে। আর যেসব শিক্ষার্থী করোনায় আক্রান্ত হচ্ছে বা হবে, তাদেরকে চিকিৎসা দেওয়া হবে।’

নীতিমালা অনুসরণে চলবে পরীক্ষা 

জানতে চাইলে ঢাবি মেডিসিন অনুষদের ডিন ও পরীক্ষা নিয়ন্ত্রণ কমিটির চেয়ারম্যান ডা. শাহরিয়ার নবী আজ শুক্রবার (২১ জানুয়ারি) মেডিভয়েসকে বলেন, ‘গতবার করোনা পরিস্থিতিতে মেডিকেল শিক্ষা ও পরীক্ষা সামনে রেখে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় থেকে যে গাইডলাইন দেওয়া হয়েছিল, সেটা অনুসরণ করেই পরীক্ষা নেওয়ার বিষয়ে সিদ্ধান্ত হয়েছে। ওই গাইডলাইন মেনেই আমরা পরীক্ষা নেবো। যেসব পরীক্ষা নিচ্ছি, তা ওই গাইডলাইন অনুসরণেই হচ্ছে। আমাদের বড় ঝামেলা ছিল লিখিত পরীক্ষা, কারণ এ পরীক্ষায় ব্যাপক সংখ্যক শিক্ষার্থীর সমাগম হয়; এটা এরই মধ্যে শেষ হয়েছে। কাল থেকে ভাইভা পরীক্ষা শুরু হবে, এটা কম শিক্ষার্থীর উপস্থিতিতে হবে। সে ক্ষেত্রে আমরা স্বাস্থ্যবিধি নিশ্চিত করতে পারবো। সবাইকে গত বছরের গাইডলাইনটি মেনে পরীক্ষা নেওয়ার জন্য নির্দেশনা দেওয়া আছে। কারণ আবার যদি বন্ধ হয়ে যায় ..., এমনিতেই শিক্ষাবর্ষ থেকে ৮/৯ মাস হারিয়ে গেছে। সুতরাং আর সিস্টেম ব্রেক করা সম্ভব না।’

মেডিকেল কলেজ বন্ধের বিষয়ে ঢাবি ডিন বলেন, ‘গতকাল ঢাকা মেডিকেল কলেজের অধ্যক্ষ মহোদয় তৃতীয় ও চতুর্থ বর্ষের শিক্ষার্থীদের ওয়ার্ড বন্ধ রাখার কথা বলেছেন। তবে পঞ্চম বর্ষের ওয়ার্ড চলবে। কারণ আগামী মে মাসে তাদের নিয়মিত পরীক্ষা। একই সঙ্গে অন্যান্য বর্ষের লেকচার ক্লাসগুলো অনলাইনে নেওয়ার কথা বলা হয়েছে। এ পর্যন্ত এভাবেই নির্দেশনা দেওয়া আছে। সুতরাং মেডিকেল কলেজ বন্ধের বিষয়ে এখনো কোনো নির্দেশনা নাই। মূলত অন্য শিক্ষার সঙ্গে মেডিকেল শিক্ষাকে মিলিয়ে ফেললে হবে না। বিগত দিনে করোনায় অন্যান্য পরীক্ষা বন্ধ ছিল, তবে স্বাস্থ্য ব্যবস্থাকে রক্ষা করার লক্ষ্যে আমরা মেডিকেল শিক্ষার্থীদের পরীক্ষা নিয়েছি।’ 

মেডিভয়েসের জনপ্রিয় ভিডিও কন্টেন্টগুলো দেখতে সাবস্ক্রাইব করুন MedivoiceBD ইউটিউব চ্যানেল। আপনার মতামত/লেখা পাঠান [email protected] এ।
  ঘটনা প্রবাহ : প্রফেশনাল পরীক্ষা
  এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত