০১ ডিসেম্বর, ২০২১ ০৫:০০ পিএম

‘এইডস রোগীরা বিনামূল্যে চিকিৎসা সেবা পাচ্ছে’

‘এইডস রোগীরা বিনামূল্যে চিকিৎসা সেবা পাচ্ছে’
দেশের ১১টি প্রতিষ্ঠানে বিনামূল্যে এইডস রোগীরা চিকিৎসা সেবা পাচ্ছেন। ছবি: সংগৃহীত

মেডিভয়েস রিপোর্ট: সরকার দেশের ১১টি প্রতিষ্ঠানে বিনামূল্যে এইডস রোগীদের চিকিৎসা সেবা দিচ্ছে জানিয়ে স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক বলেছেন ভবিষ্যতে দেশের সকল মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল ও সদর হাসপাতালে এইচআইভি পরীক্ষা ও সেবা কার্যক্রম সম্প্রসারণ করবে।

আজ বুধবার (১ ডিসেম্বর) বিশ্ব এইডস দিবস উপলক্ষে মহাখালীর বাংলাদেশ কলেজ অব ফিজিশিয়ানস অ্যান্ড সার্জনস (বিসিপিএস) এর অডিটোরিয়ামে আয়োজিত এক আলোচনা সভায় তিনি এসব তথ্য জানান।

স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, ‘সরকার অন্যান্য রোগের মতো এইডসের পরীক্ষা ও চিকিৎসা সেবা বিনামূল্যে দিচ্ছে। দেশের ১১টি সরকারি হাসপাতাল থেকে এইডস আক্রান্ত রোগীরা বিনামূল্যে সরকারি এই চিকিৎসা সেবা পাচ্ছে। করোনার এই সংকটকালেও সরকার এইডস রোগীদের পরীক্ষা কার্যক্রম ও চিকিৎসা সেবা অব্যাহত রেখেছে। নিকট ভবিষ্যতেই এইচআইভি টেস্টিং কার্যক্রম দেশের সকল মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল ও সদর হাসপাতাল সম্প্রসারণ করা হবে।’

এ সময় সাম্প্রতিক সময়ে সড়কে শিক্ষার্থীদের আন্দোলনের বিষয়ে তিনি বলেন,‘শিক্ষার্থীদের যৌক্তিক দাবিগুলোর সঙ্গে আমার সহানুভূতিশীল। তবে, সড়কে এভাবে দলবেধে চলাফেরা করায় স্বাস্থ্যবিধি উপেক্ষিত হচ্ছে। এতে করে আন্দোলনকারীদের পাশাপাশি তাদের পরিবারে সদস্যরাও করোনায় আক্রান্ত হওয়ার ঝুঁকিতে রয়েছে। সে বিষয়টিও তাদেরকে ভাবতে হবে। ’

আলোচনায় দেশের সার্বিক এইচআইভি সংক্রমণের তথ্য তুলে ধরা হয়। এতে বলা হয় বাংলাদেশে সাধারণ জনগোষ্ঠীর মধ্যে এইচআইভি সংক্রমণের হার ০.০১ ভাগের নিচে। তবে ঝুঁকিপূর্ণ জনগোষ্ঠীর মধ্যে এ সংক্রমণ কিছুটা বেশি। দেশে বর্তমানে সম্ভাব্য এইচআইভি আক্রান্তের সংখ্যা ১৪ হাজার। দেশে গত এক বছরে নতুন আক্রান্তদের মধ্যে সাধারণ জনগোষ্ঠী ১৮৬ জন (২৬ ভাগ), রোহিঙ্গা ১৮৮ জন (২৬ ভাগ), বিদেশ ফেরত প্রবাসী ও তাঁদের পরিবারের সদস্য ১৪৪ জন (২০ ভাগ), ইনজেকশনের মাধ্যমে শিরায় মাদক গ্রহণকারী ৬১ জন (৮ ভাগ), নারী যৌনকর্মী ১৭ জন (২ ভাগ), সমকামী ৬৭ জন (৯ ভাগ), পুরুষ যৌনকর্মী ৫৩ জন (৭ ভাগ), ট্রান্সজেন্ডার ১৩ জন (২ ভাগ)। 

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক (ডিজি) অধ্যাপক ডা. আবুল বাসার মোহাম্মদ খুরশীদ আলমের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন স্বাস্থ্য সেবা বিভাগের সিনিয়র সচিব লোকমান হোসেন মিয়া, স্বাস্থ্য সেবা বিভাগের অতিরিক্ত সচিব সৈয়দ মজিবুল হক বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার বাংলাদেশ প্রতিনিধি বারদান জং রানা প্রমুখ। 

মেডিভয়েসের জনপ্রিয় ভিডিও কন্টেন্টগুলো দেখতে সাবস্ক্রাইব করুন MedivoiceBD ইউটিউব চ্যানেল। আপনার মতামত/লেখা পাঠান [email protected] এ।
  এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত
নিবন্ধনহীন ওষুধ লিখলে চিকিৎসকের শাস্তি
জাতীয় ওষুধনীতি-২০১৬’ এর খসড়ার নীতিগত অনুমোদন

নিবন্ধনহীন ওষুধ লিখলে চিকিৎসকের শাস্তি