১৪ অক্টোবর, ২০২১ ০৩:৫৬ পিএম

উপসচিব পদে পদোন্নতি: প্রশাসন ব্যতীত অন্যান্য ক্যাডারদের আবেদনের নির্দেশ

উপসচিব পদে পদোন্নতি: প্রশাসন ব্যতীত অন্যান্য ক্যাডারদের আবেদনের নির্দেশ
ছবি: সংগৃহীত

মেডিভয়েস রিপোর্ট: ষষ্ঠ গ্রেডের সিনিয়র স্কেলে পাঁচ বছরের বেশি চাকরি করেছেন—এমন কর্মকর্তা উপসচিব পদের জন্য আবেদন করতে বলা হয়েছে। উপযুক্ত কর্মকর্তাগণের নামের তালিকা আগামী ১৫ নভেম্বরের মধ্যে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব বরাবর পাঠানোর নির্দেশ দিয়েছে দেওয়া হয়েছে।

গত ১১ অক্টোবর মন্ত্রণালয়ের ঊর্ধ্বতন নিয়োগ-১ শাখা উপসচিব এ বি এম ইফতেখারুল ইসলাম খন্দকার স্বাক্ষরিত এক নির্দেশনায় এ কথা বলা হয়েছে।

এতে বলা হয়েছে, উপসচিব পদে পদোন্নতি জন্য আগ্রহী/যোগ্য বিসিএস ... ক্যাডারের ২৮তম ব্যাচ পর্যন্ত যে সকল কর্মকর্তার সিনিয়র স্কেল পদে ন্যূনতম পাঁচ বছর চাকরিসহ সংশ্লিষ্ট ক্যাডারের সদস্য হিসেবে অন্যূন ১০ বছর চাকরি পূর্ণ হয়েছে তাদের মধ্যে ১০ জনের নামের তালিকা (জ্যেষ্ঠতার ক্রমানুসারে) সংযুক্ত ছকে (সফট কপিসহ) আগামী ১৫ নভেম্বর ২০২১ তারিখের মধ্যে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব বরাবরে প্রেরণের জন্য নির্দেশক্রমে অনুরোধ করা হলো।

এতে আরো বলা হয়েছে, সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের বর্তমান ঠিকানা (টেলিফোন/মোবাইল নম্বরসহ), স্থায়ী ঠিকানা (পিতার নামসহ) ও পূর্ণ বৃত্তান্ত পৃথক কাগজে প্রেরণ করতে হবে। 

এ ছাড়া নিম্নবর্ণিত কারণ সম্বলিত কর্মকর্তাগণের নাম তালিকা হতে বাদ দেওয়ার জন্য বলা হয়েছে, 

ক. অনাগ্রহী কর্মকর্তা; 
খ. জ্যেষ্ঠতা সম্পর্কে কোনো আদালতে মামলা বিচারাধীন থাকলে এবং যে সকল কর্মকর্তাকে পদোন্নতি প্রদান করা হলে আদালত অবমাননা হতে পারে;
গ. বিসিএস ২৮তম ব্যাচ অপেক্ষা নিম্ন ব্যাচের কর্মকর্তা; 
ঘ. সিনিয়র স্ক্যালে চাকরির মেয়াদ ৫ (পাঁচ) বছর পূরণ হয়নি;
ঙ. যে সকল কর্মকর্তা পদোন্নতি পেয়ে চতুর্থ গ্রেডভুক্ত হয়েছেন (পদোন্নতি ব্যতীত সিলেকশন গ্রেড/টাইম স্কেল/উচ্চতর গ্রেড পেয়ে যারা ৪র্থ গ্রেড অর্জন করেছেন, তারা ব্যতীত) [স্পষ্টীকরণ সংক্রান্ত পত্রের কপি সংযুক্ত]। 

আবেদনের গুরুত্বপূর্ণ কিছু শর্ত

প্রেরিত সকল কাগজপত্রের প্রতি পৃষ্ঠা মন্ত্রণালয়ের সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তা (সিনিয়র সহকারী সচিবের নিম্নে নয়) কর্তৃক সত্যায়িত হতে হবে। 

কোনো কর্মকর্তা পছন্দ (Option) প্রদান করে উপসচিব পদে পদোন্নতি পেলে তাকে আবশ্যিকভাবে পদোন্নতিপ্রাপ্ত পদে যোগদান করতে হবে।

তালিকা প্রেরণ করার পর কোনো কারণে প্রেরিত তালিকা সংশোধনের প্রয়োজন হলে প্রথমটি বাতিলপূর্বক জ্যেষ্ঠতার ক্রমানুসারে পূর্ণাঙ্গ তালিকা প্রেরণ করতে হবে। 

সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাবৃন্দের এ.সি.আর নম্বর প্রেরণের ক্ষেত্রে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের অধিশাখার ১৯/০১/২০০৯ তারিখের সম (সি.আর.-৩)-০৪-৪ সংখ্যক স্মারক (কপি সংযুক্ত) অনুযায়ী সি.আর অধিশাখার একজন কর্মকর্তার উপস্থিতিতে পরীক্ষাপূর্বক নম্বর সংযুক্ত ছকে উল্লেখপূর্বক প্রেরণ করতে হবে।

কর্মকর্তাদের তালিকা জ্যেষ্ঠতা অনুযায়ী সঠিক এবং নির্ভুলভাবে প্রেরণ করতে হবে। এর কোনোরূপ ব্যত্যয়ের কারণে অথবা ৩ নম্বর অনুচ্ছেদে উল্লেখিত কারণে যদি কোনো কর্মকর্তা পদোন্নতিপ্রাপ্ত হন অথবা পদোন্নতি থেকে বঞ্চিত হন, তাহলে সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তা এবং সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়/বিভাগকে এর দায়িত্ব বহন করতে হবে। নির্ধারিত তারিখের পরে প্রাপ্ত তালিকা/নাম পদোন্নতির জন্য বিবেচনা করা হবে না।

►নির্দেশনাটি দেখতে ক্লিক করুন

মেডিভয়েসের জনপ্রিয় ভিডিও কন্টেন্টগুলো দেখতে সাবস্ক্রাইব করুন MedivoiceBD ইউটিউব চ্যানেল। আপনার মতামত/লেখা পাঠান [email protected] এ।
  এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত
নিবন্ধনহীন ওষুধ লিখলে চিকিৎসকের শাস্তি
জাতীয় ওষুধনীতি-২০১৬’ এর খসড়ার নীতিগত অনুমোদন

নিবন্ধনহীন ওষুধ লিখলে চিকিৎসকের শাস্তি