১১ অক্টোবর, ২০২১ ০৯:৪৯ পিএম

কিশোরগঞ্জে কর্তব্যরত নার্সের উপর হামলা, প্রতিবাদে বিক্ষোভ-মানববন্ধন

কিশোরগঞ্জে কর্তব্যরত নার্সের উপর হামলা, প্রতিবাদে বিক্ষোভ-মানববন্ধন
ছবি: সংগৃহীত

মেডিভয়েস রিপোর্ট: কিশোরগঞ্জের শহীদ সৈয়দ নজরুল ইসলাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে জরুরি বিভাগে কর্তব্যরত সিনিয়র স্টাফ নার্সের উপর বহিরাগতের হামলার প্রতিবাদে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ কর্মসূচি অনুষ্ঠিত হয়েছে।

আজ সোমবার (১১ অক্টোবর) সকালে মেডিকেল কলেজ গেইটে কর্ত্যবরত নার্সরা ঘণ্টাব্যাপী মানববন্ধন ও বিক্ষোভ কর্মসূচি পালন করেছেন। পরে হাসপাতাল পরিচালক ডা. মো. হাবিবুর রহমানের আশ্বাসের পরিপ্রেক্ষিতে এ কর্মসূচি স্থগিত করা হয়।

হাসপাতাল সূত্রে জনা যায়, রোববার রাত ১০টায় তমাল নামে স্থানীয় এক যুবক হাসপাতালের জরুরি বিভাগে চুরিকাঘাতে আহত একজনকে নিয়ে আসেন। কর্তব্যরত চিকিৎসক রোগীকে প্রাথমিক চিকিৎসা প্রদান শেষে ওয়ার্ডে ভর্তি রাখেন। এ সময় তারা ট্রলির পরিবর্তে হুইল চেয়ারে রোগী নেওয়াকে কেন্দ্র করে হাসপাতালের কর্তব্যরত সিনিয়র স্টাফ নার্স শফিক মিয়ার উপর হামলা চালায়। শারীরিকভাবে লাঞ্ছিত করার পাশাপশি তার মাথায় মোবাইল ফোন দিয়ে আঘাত করেন এবং হাসপাতালে ভাংচুর চালায়।

এর আগে শহরের খরমপট্টির রাজন নামে এক রোগীর স্বজন সিসিইউ এ কর্মরত এক নারী সিনিয়র স্টাফ নার্সকে কিল-ঘুষি মারে।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক নার্সিং কমকর্তা জানান, ‘পর পর দুটি এ ধরণের ঘটনায় কর্মস্থলে আমরা আমাদের নিরাপত্তা নিয়ে শঙ্কিত। প্রথম ঘটনায় সঠিক ও দ্রুত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হলে হয়তো দ্বিতীয় ঘটানাটি ঘটতো না। আমরা ইতিমধ্যে স্বাস্থ্যসেবা অব্যাহত রেখে মানববন্ধন ও ছোট পরিসরে বিক্ষোভ কর্মসূচি পালন করেছি। আগমীকালও আমরা একই কর্মসূচি পালন করবো।’

‘আমরা আমাদের কর্তৃপক্ষের প্রতি আস্থাশীল। আমরা সার্বিক পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ করবো ও আমাদের পরবর্তী করণীয় টিক করবো’, যোগ করেন ওই সিনিয়র স্টাফ নার্স। 

দায়ীদের বিরুদ্ধে দ্রুত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে

জানতে চাইলে শহীদ সৈয়দ নজরুল ইসলাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পরিচালক ডা. মো. হাবিবুর রহমান মেডিভয়েসকে বলেন, ‘গত তিনদিন আগে শহরের খরমপট্টির রাজন নামের এক ছেলে একজন সিনিয়র স্টাফ নার্সকে কিল-ঘুষি মারে। এ ঘটনায় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য আইনশৃঙ্খলা বাহিনীকে জানিয়েছি। তবে আসামি এখনও আটক হয়নি। এরই মধ্যে গতকাল তমাল নামে স্থানীয় একটি ছেলে রাত ১০টায় হাসপাতালের জরুরি বিভাগে ছিনতাইকারির চুরিকাঘাতে আহত একজনকে নিয়ে আসেন। সেখানে তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে তারা কর্তব্যরত নার্সের উপর হামলা ও হাসপাতালে ভাংচুর চালিয়েছে।’

হাসপাতাল পরিস্থিতি তুলে ধরে তিনি বলেন, ‘এ ঘটনায় তাৎক্ষনিকভাবে কিশোরগঞ্জ সদর থানায় জানানো হয় এবং পুলিশ ও আনসার সদস্যরা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। প্রতিবাদে নার্সিং কর্মকর্তা-কর্মচারীরা আজ সকালে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ কর্মসূচি পালন করেন। পরে রোগীদের কথা বিবেচনা করে আমার আশ্বাসে তারা কাজে যোগদান করে।’

দায়ীদের বিরুদ্ধে দ্রুত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে জানিয়ে তিনি আরও বলেন, ‘আমি এ সংক্রান্ত একটি অভিযোগ থানায় জমা দিয়েছি। একইসঙ্গে অভিযোগের কপি জেলা প্রাশসক, পুলিশ সুপার ও  সিভিল সার্জনের কাছেও জমা দেওয়া হয়েছে। আমি স্থানীয় এমপি মহোদয়কেও এ বিষয়ে অবহিত করেছি। এখন আইনশৃঙ্খলা বাহিনী কত দ্রুত সময়ের মধ্যে ব্যবস্থা গ্রহণ করে এটি দেখার বিষয়। তারা আমাকে আশ্বস্ত করেছে যে দ্রুতই হামলাকারীদের আইনের আওতায় আনা হবে।’

মেডিভয়েসের জনপ্রিয় ভিডিও কন্টেন্টগুলো দেখতে সাবস্ক্রাইব করুন MedivoiceBD ইউটিউব চ্যানেল। আপনার মতামত/লেখা পাঠান [email protected] এ।
  এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত
নিবন্ধনহীন ওষুধ লিখলে চিকিৎসকের শাস্তি
জাতীয় ওষুধনীতি-২০১৬’ এর খসড়ার নীতিগত অনুমোদন

নিবন্ধনহীন ওষুধ লিখলে চিকিৎসকের শাস্তি