১৮ সেপ্টেম্বর, ২০২১ ০৩:৩৭ পিএম
একমাত্র প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীর মনোনয়নপত্র প্রত্যাহার

অধ্যাপক প্রাণ গোপালকে বিজয়ী ঘোষণা কাল: রিটার্নিং কর্মকর্তা

অধ্যাপক প্রাণ গোপালকে বিজয়ী ঘোষণা কাল: রিটার্নিং কর্মকর্তা
অধ্যাপক ডা. প্রাণ গোপাল দত্ত

মেডিভয়েস রিপোর্ট: কুমিল্লা-৭ আসনের উপনির্বাচনে নির্ধারিত সময়ের এক দিন আগে আজ শনিবার (১৮ সেপ্টেম্বর) মনোনয়নপত্র প্রত্যাহার করেছেন একমাত্র প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী বাংলাদেশ ন্যাশনাল আওয়ামী পার্টি (ন্যাপ) প্রার্থী মনিরুল ইসলাম। ফলে এ আসনে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় সংসদ সদস্য নির্বাচিত হিসেবে ঘোষিত হতে যাচ্ছেন আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী অধ্যাপক ডা. প্রাণ গোপাল দত্ত।

বিষয়টি নিশ্চিত করে রিটার্নিং অফিসার ও আঞ্চলিক নির্বাচন কর্মকর্তা মো. দুলাল তালুকদার আজ শনিবার (১৮ সেপ্টেম্বর) দুপুরে গণমাধ্যমককে বলেন, কুমিল্লা-৭ আসনের উপনির্বাচনে মনোনয়নপত্র প্রত্যাহারের শেষ দিন ছিল আগামী রোববার (১৯ সেপ্টেম্বর)। নির্ধারিত সময়ের এক দিন আগে শনিবার সকাল সাড়ে ১০টার দিকে স্বশরীরে রিটার্নিং কর্মকর্তার কার্যালয়ে উপস্থিত হয়ে মনোনয়নপত্র প্রত্যাহার করেন একমাত্র প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী বাংলাদেশ ন্যাশনাল আওয়ামী পার্টি (ন্যাপ) প্রার্থী মনিরুল ইসলাম।

ফলে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হতে যাচ্ছেন আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বিএসএমএমইউ) সাবেক ভাইস চ্যান্সেলর (ভিসি) প্রখ্যাত নাক, কান ও গলা বিশেষজ্ঞ অধ্যাপক ডা. প্রাণ গোপাল দত্ত।

তিনি আরও জানান, ‘বিধি অনুযায়ী, আগামীকাল রোববার (১৯ সেপ্টেম্বর) সন্ধ্যায় নির্বাচন কমিশনে (ইসি) একক প্রার্থীর প্রতিবেদন পাঠানো হবে। এর পর দিন সোমবার (২০ সেপ্টেম্বর) গণবিজ্ঞপ্তি জারি করে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় ডা. প্রাণ গোপাল দত্তকে বিজয়ী ঘোষণা করা হবে।’

এর আগে বৃহস্পতিবার (১৬ সেপ্টেম্বর) সন্ধ্যার পর মনোনয়নপত্র প্রত্যাহার করেন জাতীয় পার্টি মনোনীত প্রার্থী লুৎফর রেজা খোকন। এতে আওয়ামী লীগ প্রার্থীর বিজয় অনেকটাই নিশ্চিত হয়ে যায়। কারণ গুঞ্জন শোনা যাচ্ছিল যখন-তখনই মনোনয়নপত্র প্রত্যাহার করতে পারেন একমাত্র প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী বাংলাদেশ ন্যাশনাল আওয়ামী পার্টির (ন্যাপ) প্রার্থী মনিরুল ইসলাম।

গত ১৪ সেপ্টেম্বর মনোনয়ন পত্র যাচাই-বাছাই শেষে আওয়ামী লীগের প্রার্থী ডা. প্রাণ গোপাল দত্ত, জাতীয় পার্টির লুৎফুর রেজা খোকন, ন্যাপের মনিরুল ইসলামের মনোনয়নপত্র বৈধ ঘোষণা করা হয়। এছাড়া স্বতন্ত্র প্রার্থী মাওলানা সালেহ সিদ্দিকীর মনোনয়নপত্র বাতিল করা হয়।

গত ৩০ জুলাই রাজধানীর স্কয়ার হাসপাতালে নিউমোনিয়া রোগে আক্রান্ত হয়ে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান অধ্যাপক আলী আশরাফ। এরপর ওই আসন শূন্য হয়। আলী আশরাফ কুমিল্লার চান্দিনা থেকে পাঁচবারের সংসদ সদস্য নির্বাচিত হয়েছিলেন। জাতীয় সংসদের ডেপুটি স্পিকারের দায়িত্বও ছিলেন তিনি।

উপনির্বাচনে আওয়ামী লীগের প্রার্থী হতে গত ৪ সেপ্টেম্বর মনোনয়ন ফরম নেন অধ্যাপক ডা. প্রাণ গোপাল দত্ত। তার পক্ষ থেকে আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনার রাজনৈতিক কার্যালয় থেকে এ মনোনয়ন ফরম নেওয়া হয়।

এ ছাড়াও প্রয়াত এমপির ছেলে ও চান্দিনা উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মুনতাকিম আশরাফ, উপজেলা আওয়ামী লীগের আইন সম্পাদক শাহজালাল মিঞা, কুমিল্লা উত্তর জেলা আওয়ামী লীগের সদস্য জাকির হোসেন ও দোল্লাই-নবাবপুর কলেজ ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি মজিবুর রহমান মনোনয়ন ফরম তুলেন।

তবে গত ১১ সেপ্টেম্বর আওয়ামী লীগের সংসদীয় মনোনয়ন বোর্ড অধ্যাপক ডা. প্রাণ গোপাল দত্তকে দলীয় প্রার্থী হিসেবে ঘোষণা দেয়।

আগামী ৭ অক্টোবর ভোট গ্রহণের দিন ধার্য করে ২ সেপ্টেম্বর নির্বাচনী তফসিল ঘোষণা করে নির্বাচন কমিশন। গত ১৩ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত ৬ প্রার্থী মনোনয়নপত্র নিয়ে জমা দেন চারজন। ১৪ সেপ্টেম্বর যাচাই-বাছাই শেষে একমাত্র স্বতন্ত্র প্রার্থী ছালেহ ছিদ্দিকীর মনোনয়নপত্র বাতিল ঘোষণা করেন রিটার্নিং অফিসার।

মেডিভয়েসের জনপ্রিয় ভিডিও কন্টেন্টগুলো দেখতে সাবস্ক্রাইব করুন MedivoiceBD ইউটিউব চ্যানেল। আপনার মতামত/লেখা পাঠান [email protected] এ।
  ঘটনা প্রবাহ : কুমিল্লা-৭ আসন
  এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত
নিবন্ধনহীন ওষুধ লিখলে চিকিৎসকের শাস্তি
জাতীয় ওষুধনীতি-২০১৬’ এর খসড়ার নীতিগত অনুমোদন

নিবন্ধনহীন ওষুধ লিখলে চিকিৎসকের শাস্তি