০৭ সেপ্টেম্বর, ২০২১ ০৭:১৮ পিএম

নোটিস না দেওয়ায় ‘দুশ্চিন্তায়’ বিদেশি মেডিকেল শিক্ষার্থীরা

নোটিস না দেওয়ায় ‘দুশ্চিন্তায়’ বিদেশি মেডিকেল শিক্ষার্থীরা
ছবি: মেডিভয়েস।

সাখাওয়াত আল হোসাইন: করোনার কারণে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান দীর্ঘদিন থাকার পর এমবিবিএস প্রথম, দ্বিতীয় ও পঞ্চম বর্ষের শিক্ষার্থীদের জন্য মেডিকেল কলেজ খুলে দেওয়ার ঘোষণা দিয়েছে স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়। তবে এ বিষয়ে অফিসিয়াল কোনো নোটিস না দেওয়ায় দুশ্চিন্তায় রয়েছেন বিদেশি মেডিকেল শিক্ষার্থীরা।

তারা বলছেন, স্বাস্থ্যমন্ত্রী ঘোষণা দিয়েছেন, আগামী ১৩ সেপ্টেম্বর থেকে সশরীরে ক্লাস শুরু হবে। কিন্তু এখনও অফিসিয়াল নোটিশ দেয়নি। এর আগেও মেডিকেল কলেজ খোলার তারিখ পরিবর্তন করা হয়েছে। সিডিউল অনুযায়ী তাদের বিমানের টিকেট এবং ভিসা নিতে হবে।

শিক্ষার্থীরা বলছেন, এক দেশ থেকে অন্য দেশে গিয়ে পড়াশোনা করছেন। এমনিতেই তাদের বাবা-মা চিন্তায় থাকেন। অফিসিয়ালভাবে নোটিশ না দেওয়ায় তারা আরও বেশি দুশ্চিতায় আছেন।

অনিশ্চয়তায় অনেকেই কিনছেন না টিকেট

এর আগেও একবার মেডিকেল খোলার বিষয়ে তারিখ ঘোষণা করেছিল কোভিড-১৯ সংক্রান্ত জাতীয় কারিগরি পরামর্শক কমিটি। এতে কিছু বিদেশি শিক্ষার্থী বিমানের টিকেট কিনে বিপাকে পড়েছিলেন। পরে সেই টিকেট বাতিল করতে হয় তাদের। তাই আগের অভিজ্ঞতা থেকে অনেকেই এখন পর্যন্ত টিকেট কিনেননি। এ বিষয় বাংলাদেশস্থ ভারতীয় মেডিকেল স্টুডেন্টস অ্যাসোসিয়েশনের মুখপাত্র মুনাওয়ার আব্বাস মেডিভয়েসকে বলেন, ‘আমাদের দেশ থেকে বাংলাদেশে যেতে অনেক প্রক্রিয়ার মধ্যে দিয়ে যেতে হয়। এ প্রক্রিয়াগুলো সম্পন্ন করতে কমপক্ষে ১৫ দিন সময় লাগে।’

তিনি আরও বলেন, ‘স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয় থেকে অফিসিয়াল নোটিস দিয়ে বিষয়টি নিশ্চিত করলে বিদেশি শিক্ষার্থীদের জন্য ভালো হয়। পাঁচদিন বা আটদিন আগে অফিসিয়াল নোটিস দিলে আমাদের আসতে অনেক কষ্ট হবে।’ 

সশরীরে ক্লাস করতে চান বিদেশি শিক্ষার্থীরা

করোনার কারণে প্রায় দেড় বছর পর মেডিকেল কলেজ খোলার সংবাদে আনন্দ প্রকাশ করেছেন বিদেশি শিক্ষার্থীরা। কয়েকজন বিদেশি মেডিকেল শিক্ষার্থী মেডিভয়েসকে বলেন, ‘দীর্ঘদিন পর আমরা ক্যাম্পাসে সশরীরে ক্লাস করতে পারবো এটা আমাদের জন্য অনেক খুশির সংবাদ।’

বাংলাদেশে অধ্যয়নত ভারতীয় শিক্ষার্থী সুস্মিতা বার্মান মেডিভয়েসকে বলেন, ‘অনলাইন ক্লাস ঠিক মত বুঝতে পারছি না, মনোযোগ ধরে রাখতে খুবই কষ্ট হচ্ছে। মাঝে মাঝে নেটওয়ার্ক ডিসকানেক্ট হয়ে যায়। এতে বিরক্ত হয়ে যাই। এখন আমরা ক্লাসে ফিরে যেতে চাই।’

পপুলার মেডিকেল কলেজে সদ্য ভর্তি হওয়া ভারতীয় নাগরিক অমৃতা হালদার মেডিভয়েসকে বলেন, ‘এমবিবিএস প্রথম বর্ষে ভর্তি হয়েছি অনেকদিন হলো, এখনও সরাসরি ক্লাস করতে পারিনি। বাংলাদেশে যাওয়ার জন্য সব প্রক্রিয়া সম্পন্ন করে রেখেছি। এখন অফিসিয়াল নোটিশের অপেক্ষায় রয়েছি। নোটিশ পেলে বাংলাদেশে উদ্দেশ্যে রওয়ানা দিবো।’

যা বললেন স্বাস্থ্য শিক্ষা ডিজি

জানতে চাইলে স্বাস্থ্য শিক্ষা অধিদপ্তরের মহাপরিচালক (ডিজি) অধ্যাপক ডা. এ এইচ এম এনায়েত হোসেন মেডিভয়েসকে বলেন, ‘স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেছেন, আগামী ১৩ সেপ্টেম্বরের আশপাশে সুবিধাজনক সময়ে মেডিকেল কলেজগুলো খুলে দেওয়া হবে। স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় দ্রুতই এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত নিবে। এটি নিয়ে আমাদের বৈঠক হয়েছে। বৈঠকের পর ফাইলও করা হয়েছে। ফাইল করার পর আমরা যেভাবে বিষয়গুলো দেখি, এটিও সেভাবে দেখছি। আমরা প্রস্তুতির জন্য যথেষ্ট সময় রেখেই কলেজগুলো খুলে দেব।’

বিদেশি শিক্ষার্থীদের সুবিধার্থে ১৫ দিন আগে অফিসিয়ালভাবে নোটিস দেওয়া যায় কিনা এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘এক্ষেত্রে সকলের ব্যক্তিগত সুবিধা-অসুবিধা দেখা যাবে না। ১৫ দিন আগে দেওয়া হবে নাকি ১০ দিন আগে দেওয়া হবে তা মন্ত্রণালয়ের সিদ্ধান্তের বিষয়। আমরা যেন স্বল্পতম সময়ে মেডিকেল কলেজ খুলে দিতে পারি সেই লক্ষ্যে আগাচ্ছি।’

‘অতিদ্রুত মেডিকেল কলেজ খোলার ব্যাপারে অফিসিয়ালভাবে নোটিস দিয়ে দেওয়া হবে। যে কোনো কিছু করতে হলে প্রশাসনিকভাবে একটা আদেশ লাগবে। আদেশ পেলেই অফিসিয়াল নোটিস দিয়ে দিব’, যোগ করেন স্বাস্থ্য শিক্ষা ডিজি। 

মেডিভয়েসের জনপ্রিয় ভিডিও কন্টেন্টগুলো দেখতে সাবস্ক্রাইব করুন MedivoiceBD ইউটিউব চ্যানেল। আপনার মতামত/লেখা পাঠান [email protected] এ।
  এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত
নিবন্ধনহীন ওষুধ লিখলে চিকিৎসকের শাস্তি
জাতীয় ওষুধনীতি-২০১৬’ এর খসড়ার নীতিগত অনুমোদন

নিবন্ধনহীন ওষুধ লিখলে চিকিৎসকের শাস্তি