০১ সেপ্টেম্বর, ২০২১ ১০:০৬ এএম

মেডিকেল কলেজ খোলা নিয়ে সিদ্ধান্ত কাল

মেডিকেল কলেজ খোলা নিয়ে সিদ্ধান্ত কাল
ছবি: মেডিভয়েস।

মেডিভয়েস রিপোর্ট: মেডিকেল ও ডেন্টাল কলেজগুলো খোলা নিয়ে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের সঙ্গে স্বাস্থ্য শিক্ষা অধিদপ্তরের বৈঠক অনুষ্ঠিত হবে আগামীকাল বৃহস্পতিবার (২ সেপ্টেম্বর)। ভার্চুয়ালি অনুষ্ঠেয় ওই বৈঠকে দীর্ঘ দিন ধরে বন্ধ থাকা এসব শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খোলার বিষয়ে সিদ্ধান্ত আসতে পারে।

স্বাস্থ্য শিক্ষা অধিদপ্তরের পরিচালক (চিকিৎসা শিক্ষা) অধ্যাপক ডা. এ কে এম আহসান হাবিব আজ বুধবার (১ সেপ্টেম্বর) সকালে মেডিভয়েসকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

তিনি বলেন, ‘মেডিকেল-ডেন্টাল কলেজ খোলা নিয়ে আগামীকাল মিটিং হবে। সিদ্ধান্ত কি হবে, সেটা এখনো বলা যাচ্ছে না। প্রতিষ্ঠানগুলো খুলবে কিনা, আগামীকাল বলা যাবে। পরে ওই দিনই নোটিস দেওয়া হবে। এজন্য বেশি সময় লাগবে না। সিদ্ধান্তটাই মূল বিষয়।’

তিনি বলেন, ‘করোনার সংক্রমণ ও মৃত্যু নিচের দিকে। সবাই বিষয়টি পর্যবেক্ষণ করছেন। সুতরাং পরামর্শের ভিত্তিতেই সিদ্ধান্ত আসবে।’

এর আগে গত ২২ আগস্ট অধ্যাপক ডা. এ কে এম আহসান হাবিব মেডিভয়েসকে বলেছিলেন, আগামী মাসের প্রথম সপ্তাহে দেশের মেডিকেল ও ডেন্টাল কলেজ কলেজগুলো খুলে দেওয়া হবে।

স্বাস্থ্য শিক্ষা অধিদপ্তরের পরিচালক বলেন, ‘আগামী মাসের প্রথম সপ্তাহের যে কোনো দিনই হতে পারে। এটা দাপ্তরিক কোনো ঘোষণা না। সবার টিকা দেওয়া সম্পন্ন হয়েছে। সে কারণে আমাদের প্রস্তাবনা ছিল, আগস্টের শেষ দিকে খোলার। তবে করোনার প্রকোপসহ নানা কারণে অনেকে চলতি মাসে কলেজগুলো খোলার বিপক্ষে মত দিয়েছেন। তারা সেপ্টেম্বরের প্রথম সপ্তাহে খোলার পক্ষে। ঊর্ধ্বতন মহল এটা উপলব্ধি করতে পেরেছেন।’

তারও আগে আগামী ২৮ আগস্ট মেডিকেল কলেজগুলো খোলা নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে একটি ভুয়া নোটিস ছড়িয়ে পড়ে। এর সত্যাসত্য যাচাই ছাড়াই কোনো কোনো জাতীয় গণমাধ্যম এ নিয়ে সংবাদ পরিবেশন করে। পরে প্রকাশিত খবর পোর্টাল সরিয়েও দেয় তারা।

নোটিসের বিষয়টি মেডিভয়েসের নজরে এলে এর বস্তুনিষ্টতা যাচাইয়ে স্বাস্থ্য শিক্ষা বিভাগের সচিব মো. আলী নুর ও স্বাস্থ্য শিক্ষা অধিদপ্তরের মহাপরিচালক (ডিজি) অধ্যাপক ডা. এ এইচ এম এনায়েত হোসেনের সঙ্গে মুঠোফোনে যোগাযোগ করা হয়। এ বিষয়ে কোনো সিদ্ধান্ত হয়নি জানান তারা।

বিষয়টি সঠিক নয় জানিয়ে স্বাস্থ্য শিক্ষা অধিদপ্তরের মহাপরিচালক বলেন, ‘এ সংক্রান্ত কোনো নোটিস স্বাস্থ্য শিক্ষা অধিদপ্তর থেকে ইস্যু করা হয়নি। মেডিকেল শিক্ষার্থী ও সংশ্লিষ্টদের বিভ্রান্ত করতে কেউ এই ভুয়া নোটিসটি ছড়িয়ে দিয়েছে। এখানে অধিদপ্তরের নাম ভুল লেখা হয়েছে। স্বাক্ষরিত কর্মকর্তার নামও ভুল লেখা হয়েছে। আর মেডিকেল ও ডেন্টাল কলেজ খোলা নিয়ে গতকাল কোনো মিটিংও হয়নি। এর ভাষা ও শব্দ চয়ন হাস্যকর।’

জানতে চাইলে স্বাস্থ্য শিক্ষা অধিদপ্তরের পরিচালক অধ্যাপক ডা. এ কে এম আহসান হাবিব বলেন, ‘মেডিকেল ও ডেন্টাল কলেজগুলো খোলার বিষয়ে প্রস্তাবনা দিয়েছি, সবই ঠিক আছে। সেপ্টেম্বরের শুরুতে কলেজগুলো খোলার একটি কথা আছে। কিন্তু সিদ্ধান্ত তো চূড়ান্ত হয়নি। আমরাই চেষ্টা করছি, প্রতিষ্ঠান খোলার বিষয়ে। আমরা তো আন্তরিক। এতে বেশি উদগ্রীব কে হয়ে গেলো।’ 

তিনি বলেন, ‘ভুয়া নোটিসকে কে যেন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে দিয়েছে। এটা চরম অন্যায় কাজ। আমি একটি মিটিংয়ে ছিলাম। দেখলাম, আমার স্বাক্ষরিত একটি নোটিসটি ছড়ানো হয়েছে। এখানে আমার স্বাক্ষর স্কেন করা হয়েছে। আমি তো এ বিষয়ে এখনো স্বাক্ষর করিনি। এ ধরনের সব কিছুই করা যায়। ওখানে আমার নামটা ঠিক লেখেনি। আমি তো কবির না, আমি একেএম আহসান হাবিব। ইস্যু করার তারিখও উল্লেখ নাই। গতকাল এই বিষয়ে কোনো জুম মিটিংও হয়নি। চুরি করতে গেলে কোনো ভুল থেকে যায়।’

মেডিভয়েসের জনপ্রিয় ভিডিও কন্টেন্টগুলো দেখতে সাবস্ক্রাইব করুন MedivoiceBD ইউটিউব চ্যানেল। আপনার মতামত/লেখা পাঠান [email protected] এ।
  এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত
নিবন্ধনহীন ওষুধ লিখলে চিকিৎসকের শাস্তি
জাতীয় ওষুধনীতি-২০১৬’ এর খসড়ার নীতিগত অনুমোদন

নিবন্ধনহীন ওষুধ লিখলে চিকিৎসকের শাস্তি