২৭ জুলাই, ২০২১ ০১:০৪ এএম

মৌখিক পরীক্ষা ও পুলিশ ভেরিফিকেশন ছাড়াই ৪০০০ চিকিৎসক নিয়োগ 

মৌখিক পরীক্ষা ও পুলিশ ভেরিফিকেশন ছাড়াই ৪০০০ চিকিৎসক নিয়োগ 
প্রতীকী ছবি

মেডিভয়েস রিপোর্ট: করোনাভাইরাস মহামারি সামাল দিতে মৌখিক পরীক্ষা ও পুলিশ ভেরিফিকেশন ছাড়াই দ্রুত চার হাজার চিকিৎসক নিয়োগ দেওয়া হবে বলে জানিয়েছেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক। তিনি বলেন, একই প্রক্রিয়ায় নেওয়া হবে আরও চার হাজার নার্স।

সোমবার (২৬ জুলাই) মন্ত্রিসভা বৈঠক শেষে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের মন্ত্রিপরিষদ কক্ষ থেকে বেরিয়ে যাওয়ার সময় ব্যাপক সংখ্যক স্বাস্থ্যকর্মী নিয়োগের বিষয়টি সাংবাদিকদের জানান তিনি।

স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, ‘নতুন করে আর কোথায় হাসপাতাল চালু করবো? নতুন তো কোনো ভবনও নেই। ডাক্তার-নার্সরাও ক্লান্ত হয়ে গেছেন, তারা কত কাজ করবেন? দেড় বছর ধরে হচ্ছে। নতুন চার হাজার ডাক্তার ও চার হাজার নার্স নেওয়া হচ্ছে। দ্রুত সময়ের মধ্যে নেওয়া হচ্ছে।’

জাহিদ মালেক বলেন, ‘আমরা ইন্টারভিউও বাদ দিয়েছি। অনুরোধ করেছি ইন্টারভিউ ও পুলিশ ভেরিফিকেশন নেওয়ার দরকার নেই, তাড়াতাড়ি তাদের কাজে যোগদান করার সুযোগ করে দেয়া হোক, সেই ব্যবস্থাটাও আমরা করেছি।’

এর আগে গত ১০ জুলাই রাজধানীর বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বিএসএমএমইউ) কনভেনশন সেন্টার পরিদর্শন শেষে স্বাস্থ্যমন্ত্রী সাংবাদিকদের জানান, করোনা পরিস্থিতি সামাল দিতে দেশে নতুন করে চার হাজার চিকিৎসক ও চার হাজার নার্স নিয়োগ দিতে যাচ্ছে সরকার।

দ্রুততম সময়ের মধ্যে নিয়োগ সম্পন্ন করতে চাইলে ৩৯তম বিসিএসের অপেক্ষমাণ তালিকা থেকে ঘোষিত চার হাজার চিকিৎসক নিয়োগের পরামর্শ দেন বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকরা। তারা বলেন, গ্রামে-গঞ্জে করোনা ছড়িয়ে পড়েছে। অবস্থা সামাল দিতে অনেকটা বেসামাল একেকটি হাসপাতাল। দ্রুততম সময়ের মধ্যে নতুন কিছু চিকিৎসক নিয়োগ দিলে এর থেকে অনেকটাই পরিত্রাণ পাওয়া সম্ভব।

জরুরি ভিত্তিতে নিয়োগের লক্ষ্যে ৩৯তম বিসিএসে উত্তীর্ণদের থেকে নেওয়ার পরামর্শ দিয়ে প্রধানমন্ত্রীর ব্যক্তিগত চিকিৎসক ইউজিসি অধ্যাপক ডা. এবিএম আবদুল্লাহ মেডিভয়েসকে বলেন, দেশব্যাপী করোনাভাইরাসের প্রকোপ বেড়েই চলেছে। করোনাভাইরাসের ডেল্টা ধরন এখন গ্রামে-গঞ্জে ছড়িয়ে পড়েছে। এ অবস্থায় জেলা ও উপজেলাগুলোতে হাসপাতালে করোনা রোগীর চাপ বেড়েছে। চিকিৎসার জন্য তারা ছুটছেন ঢাকার দিকে।

তবে একই বিসিএস থেকে বারবার নিয়োগ দেওয়ার চিন্তাকে ‘বৈষম্যপূর্ণ’ বলে আখ্যা দেন তরুণ চিকিৎসকরা। একইসঙ্গে করোনাভাইরাস মহামারীর প্রেক্ষাপটে অনুষ্ঠিত ৪২তম বিশেষ বিসিএস থেকে নিয়োগ সম্পন্ন করার দাবি জানান তারা।

এজন্য প্রয়োজনে অনলাইনে কার্যক্রম চালানোর পরামর্শ দিয়ে তারা বলেন, দ্রুততম সময়ের মধ্যে অনায়াসে ৪২তম বিসিএসের ভাইভা নেওয়া যায়। পিএসসি চাইলে অনলাইনেও নিতে পারে। অনলাইন পরীক্ষার মাধ্যমে বিদেশে অনেক কোর্সের সনদ প্রদান করা হয়ে থাকে। সব কিছুই এখন অনলাইনে করা হচ্ছে। করোনা পরিস্থিতির জন্য অনলাইন চলে এসেছে। যদি অনলাইনে ভাইভার আয়োজন করা হয়, তাহলে শিক্ষার্থীরা নিজ নিজ এলাকায় জেলা প্রশাসক বা সিভিল সার্জন অফিসে ভাইভা দিতে পারেন। এটা খুবই সহজসাধ্য বিষয়। এমনকি কর্তৃপক্ষ চাইলে প্রিলির ফলাফলের ভিত্তিতে ছয় হাজার চিকিৎসক নিয়োগ দিতে পারেন।

এরই মধ্যে ভাইভা ও পুলিশ ভেরিফিকেশন ছাড়াই চার হাজার চিকিৎসক ও সমান সংখ্যক নার্স নিয়োগের ঘোষণা দিলেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক। 

মেডিভয়েসের জনপ্রিয় ভিডিও কন্টেন্টগুলো দেখতে সাবস্ক্রাইব করুন MedivoiceBD ইউটিউব চ্যানেল। আপনার মতামত/লেখা পাঠান [email protected] এ।
  ঘটনা প্রবাহ : চিকিৎসক নিয়োগ
  এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত
নিবন্ধনহীন ওষুধ লিখলে চিকিৎসকের শাস্তি
জাতীয় ওষুধনীতি-২০১৬’ এর খসড়ার নীতিগত অনুমোদন

নিবন্ধনহীন ওষুধ লিখলে চিকিৎসকের শাস্তি