২৫ জুন, ২০২১ ০১:২১ পিএম

এফসিপিএস পরীক্ষা স্থগিতের বিষয়ে যা বললেন তিন কাউন্সিলর

এফসিপিএস পরীক্ষা স্থগিতের বিষয়ে যা বললেন তিন কাউন্সিলর
ছবি: মেডিভয়েস।

মেডিভয়েস রিপোর্ট: বাংলাদেশ কলেজ অব ফিজিশিয়ান্স অ্যান্ড সার্জন্সের (বিসিপিএস) পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক কমিটির অধিকাংশ সদস্য কাউন্সিলের সদস্য হওয়ায় এফসিপিএস পরীক্ষা স্থগিতে তাদের সিদ্ধান্ত পরিবর্তনের সম্ভাবনা খুব কম বলে মনে করেন বিসিপিএসের একাধিক কাউন্সিলর। তারা বলেন, পরিস্থিতির ক্রমাবনতির কারণে করোনা নিয়ন্ত্রণে সরকারের গৃহীত বিভিন্ন পদক্ষেপের প্রেক্ষাপটে এফসিপিএস পরীক্ষা আয়োজনের সম্ভাবনা একেবারেই ক্ষীণ। এর পরও চূড়ান্ত সিদ্ধান্তের জন্য শনিবার পর্যন্ত অপেক্ষা করতে হবে।

জানতে চাইলে বিসিপিএসের কাউন্সিলর ও ঢাকা মেডিকেল কলেজের (ঢামেক) সাবেক অধ্যক্ষ অধ্যাপক ডা. খান মো. আবুল কালাম আজাদ মেডিভয়েসকে বলেন, ‘বিসিপিএসের সিদ্ধান্ত বাস্তবায়ন হয় তিন স্তরে। নিয়মতান্ত্রিকভাবে পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক কমিটির সিদ্ধান্ত নির্বাহী কমিটি হয়ে সর্বশেষ কাউন্সিলে যাবে; তারা যেটা বলবেন, সেটাই চূড়ান্ত। পরীক্ষা কমিটিতে বলা হয়েছে পর‌ীক্ষা স্থগিত হবে। শনিবার যে মিটিং হবে, সেই মিটিংয়ের পর চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত জানানো হবে। বিসিপিএসের একটি সিদ্ধান্ত কার্যকরে এটাই পদ্ধতি। ধরে রাখেন, স্থগিতের সিদ্ধান্তই হয়ে আছে। কাউন্সিল এটা অনুমোদন করলেই হবে যাবে। যেভাবে মন্ত্রণালয়ের একটি সিদ্ধান্ত সংসদে যায়, সংসদ পাস করলে এটা যায় রাষ্ট্রপতির কাছে। এটাই পদ্ধতি। চূড়ান্তভাবে সেটি কাযকরই হয়, তাই না? একইভাবে বিসিপিএসের শেষ স্তর, অর্থাৎ কাউন্সিলে সই হলেই এটা কার্যকর হবে। একটি বিষয় কাউন্সিলে না উঠা পর্যন্ত আইন হয় না।’

কাউন্সিলর মিটিংয়ে ওই সিদ্ধান্ত পরিবর্তনের সম্ভাবনা আছে কিনা—এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘…পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক কমিটির অধিকাংশ সদস্যই কাউন্সিলের সদস্য। পরীক্ষা কমিটির গৃহিত সিদ্ধান্তই এখানে যাবে। সিদ্ধান্ত পরিবর্তনের সম্ভাবনা খুব কম, দেখা যাক।’

জানতে চাইলে বিসিপিএসের অন্যতম কাউন্সিলর অধ্যাপক ডা. আবিদ হোসেন মোল্লা মেডিভয়েসকে বলেন, ‘সিদ্ধান্তটি শনিবারে জানতে পারবেন। একটা দিন অপেক্ষা করতে হবে। ওই দিন কাউন্সিরদের বৈঠকে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত হবে। একটি সুনির্দিষ্ট প্রক্রিয়ার মাধ্যমে চূড়ান্ত সিদ্ধান্তটি হবে। এর আগে কিছু বলতে চাই না।’

এ প্রসঙ্গে আরেক কাউন্সিলর অধ্যাপক ডা. রিদওয়ানুর রহমান মেডিভয়েসকে বলেন, ‘আলোচনার ভিত্তিতে সিদ্ধান্ত হবে, সেটা ব্যক্তিগতভাবে না বলি।’

এর আগে গত ২৩ জুন সকালে পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক কমিটির বৈঠক শেষে অধ্যাপক ডা. খান মো. আবুল কালাম আজাদ মেডিভয়েসকে বলেছিলেন, ‘আমরা পরীক্ষা পিছিয়ে দিয়েছি, করোনা পরিস্থিতিতে পরীক্ষা গ্রহণ করতে পারছি না। পরীক্ষাগুলো স্থগিতের সিদ্ধান্ত শিগগিরই বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে বিস্তারিত জানানো হবে।’

সম্ভাব্য নতুন তারিখের বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘অবস্থাটা দেখি; কয় দিন লকডাউন চলবে, তা আমরা এখনো বলতে পারছি না। এ পরিস্থিতিতে আমরা কি এক মাস পিছিয়ে দেবো, নাকি আগামী জানুয়ারিতে নেবো, এটা অবস্থার ওপর নির্ভর করছে। যদি একমাসের মধ্যে অবস্থার আশানুরূপ উন্নতি হয় এবং লকডাউন উঠে যায়, তাহলে ইনশাআল্লাহ আগস্ট বা সেপ্টেম্বরে পরীক্ষা গ্রহণের চেষ্টা করবো, সর্বশেষ সেপ্টেম্বরে। আর যদি দেশের অবস্থা ভালো না হয়, তাহলে হয় তো গতবারের মতো অর্থাৎ জুলাই সেশনের মতো হবে।’

‘শাটডাউনের’ সুপারিশ

এদিকে করোনাভাইরাস পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে সারাদেশে কমপক্ষে ১৪ দিনের শাটডাউনের সুপারিশ করেছে কোভিড-১৯ সংক্রান্ত জাতীয় কারিগরি পরামর্শক কমিটি। বৃহস্পতিবার (২৪ জুন) কমিটির সভাপতি অধ্যাপক ডা. মোহাম্মদ সহিদুল্লাহ স্বাক্ষরিত এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এ কথা বলা হয়েছে।

এতে বলা হয়, ‘কোভিড রোগের বিশেষ ডেল্টা প্রজাতির সামাজিক সংক্রমণ চিহ্নিত হয়েছে ও দেশে ইতোমধ্যেই রোগের প্রকোপ অনেক বৃদ্ধি পেয়েছে। এই প্রজাতির জীবাণুর সংক্রমণ ক্ষমতা তুলনামূলকভাবে অনেক বেশি। স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের তথ্য বিশ্লেষণে সারাদেশেই উচ্চ সংক্রমণ, পঞ্চাশোর্ধ জেলায় অতি সংক্রমণ লক্ষ্য করা যায়।’

এর পরিপ্রেক্ষিতে জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ফরহাদ হোসেন আজ শুক্রবার (২৫ জুন) সকালে গণমাধ্যমকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে বলেছেন, ঈদুল আজহার সময় যেকোনো মূল্যে করোনা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রাখতে শিগগিরই কঠোর বিধিনিষেধের প্রজ্ঞাপন আসছে।

এর এক দিন আগে তিনি বলেছিলেন, করোনা সংক্রমণ রোধে সারাদেশে শাটডাউনের প্রস্তুতি রয়েছে। সরকার করোনা পরিস্থিতি খুব গভীরভাবে পর্যবেক্ষণ করছে জানিয়ে তিনি আরও বলেন, পরিস্থিতি বিবেচনায় যেকোনো সময় যেকোনো সিদ্ধান্ত নেয়া হবে।

করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ঠেকাতে জাতীয় কারিগরি পরামর্শক কমিটির সারাদেশে ১৪ দিনের পূর্ণ শাটডাউনের সুপারিশ সক্রিয় বিবেচনায় নেওয়া হবে বলেও জানান জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী। 

মেডিভয়েসের জনপ্রিয় ভিডিও কন্টেন্টগুলো দেখতে সাবস্ক্রাইব করুন MedivoiceBD ইউটিউব চ্যানেল। আপনার মতামত/লেখা পাঠান [email protected] এ।
  ঘটনা প্রবাহ : এফসিপিএস পরীক্ষা
  এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত
নিবন্ধনহীন ওষুধ লিখলে চিকিৎসকের শাস্তি
জাতীয় ওষুধনীতি-২০১৬’ এর খসড়ার নীতিগত অনুমোদন

নিবন্ধনহীন ওষুধ লিখলে চিকিৎসকের শাস্তি