২৪ জুন, ২০২১ ০৯:১৮ এএম

করোনার ক্রমাবনতি না ঘটলে যথাসময়ে ফাইনাল প্রফ পরীক্ষা: ঢাবি ডিন

করোনার ক্রমাবনতি না ঘটলে যথাসময়ে ফাইনাল প্রফ পরীক্ষা: ঢাবি ডিন
ছবি: সংগৃহীত

মো. মনির উদ্দিন: করোনা পরিস্থিতির ক্রমাবনতি না ঘটলে মেডিকেল শিক্ষার্থীদের চূড়ান্ত পেশাগত পরীক্ষা নির্দিষ্ট সময়ে অনুষ্ঠিত হবে সাফ জানিয়ে দিয়েছেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) মেডিসিন অনুষদের ডিন ও পরীক্ষা নিয়ন্ত্রণ কমিটির চেয়ারম্যান ডা. শাহরিয়ার নবী। বুধবার (২৩ জুন) রাতে মেডিভয়েসকে এ তথ্য নিশ্চিত করেন তিনি।

ঢাবি মেডিসিন অনুষদের ডিন বলেন, ‘এখনো পর্যন্ত করোনার যে পরিস্থিতি, তা বজায় থাকলে পরীক্ষা নেওয়া হবে। মূল কথা হচ্ছে, শিক্ষার্থীরা ছাত্রাবাসেই অবস্থান করছে। কেউ যদি ছাত্রাবাস ত্যাগ করে থাকে, সেটা নিয়ম বহির্ভূতভাবে হয়েছে, আর এটা বিচ্ছিন্ন ঘটনা। এর দায় সংশ্লিষ্ট শিক্ষার্থীর। এটা কর্তৃপক্ষের দেখার বিষয় না। সুতরাং যারা ক্যাম্পাসে আছে, তাদের পরীক্ষায় অংশগ্রহণে কোনো সমস্যা নাই। বিষয়টি এমন নয় যে, দেশে কার্ফিও চলছে, আর সে কারণে শিক্ষার্থীরা বের হতে পারছে না। যদি কার্ফিও জারি করা হয়, তাহলে পরীক্ষা হবে না।’ 

ডা. শাহরিয়ার নবী জানান, পরীক্ষা আয়োজনের সামগ্রিক প্রস্তুতি সম্পন্ন আছে। এ ছাড়া ইন্টার্নি সংকট দূর করতে দ্রুততম সময়ে পরীক্ষা নেওয়ার জরুরি। 

করোনা সংক্রমণ রোধে ঘোষিত কঠোর লকডাউনের কারণে ৪২তম বিসিএসের (বিশেষ) চলমান মৌখিক পরীক্ষা স্থগিত করেছে বাংলাদেশ সরকারি কর্ম কমিশন (বিপিএসসি)। মঙ্গলবার (২২ জুন) বিপিএসসির পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক নূর আহমদ স্বাক্ষরিত এ সংক্রান্ত বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, ‘কোভিড-১৯ এর উর্ধ্বমুখী সংক্রমণ পরিস্থিতিতে ৪২তম বিসিএস (বিশেষ) পরীক্ষা ২০২০-এর চলমান মৌখিক পরীক্ষা পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত আগামী ২৭ জুন ২০২১ (রোববার) হতে স্থগিত করা হলো। সংশ্লিষ্ট সকলকে স্থগিত মৌখিক পরীক্ষার পরিবর্তিত তারিখ ও সময় যথাসময়ে অবহিত করা হবে।’

এর এক দিন পর বুধবার (২৩ জুন) সকালে একই কারণে মেডিকেল শিক্ষার উচ্চতর ডিগ্রি এফসিপিএস পরীক্ষা স্থগিত করে বাংলাদেশ কলেজ অব ফিজিশিয়ান্স অ্যান্ড সার্জন্স (বিসিপিএস)। ওই দিন সকালে পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক কমিটির বৈঠকে এমন সিদ্ধান্ত হয় বলে মেডিভয়েসকে নিশ্চিত করেন বিসিপিএসের কাউন্সিলর ও ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালের সাবেক অধ্যক্ষ অধ্যাপক ডা. খান মো. আবুল কালাম আজাদ।

তিনি বলেন, ‘আমরা পরীক্ষা পিছিয়ে দিয়েছি, করোনা পরিস্থিতিতে পরীক্ষা গ্রহণ করতে পারছি না। পরীক্ষাগুলো স্থগিতের সিদ্ধান্ত শিগগিরই বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে বিস্তারিত জানানো হবে।’

এর পর থেকে চিকিৎসক হওয়ার চূড়ান্ত পেশাগত পরীক্ষাও স্থগিত হবে বলে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকের বিভিন্ন গ্রুপে গুঞ্জন উঠে। এতে পরীক্ষায় অংশ গ্রহণের মোক্ষম প্রস্তুতির সময়ে শিক্ষার্থীদের মধ্যে দেখা দেয় গভীর উদ্বেগ ও হতাশা।

বিষয়টি জানতে বুধবার (২৩ জুন) রাতে পরীক্ষা নিয়ন্ত্রণ কমিটির চেয়ারম্যান ডা. শাহরিয়ার নবীর সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, ‘অনেকে বলছে, সারাদেশে লকডাউন চলছে। সব পরীক্ষা স্থগিত হয়ে যাচ্ছে। আমি তাদেরকে বলেছি, লকডাউন নিয়ে চিন্তিত না হয়ে পড়াশোনায় মনোযোগী হওয়া উচিত। প্রায় সকল শিক্ষার্থী পরীক্ষা দিতে চায়, তাদের পরীক্ষা বাধাগ্রস্ত করা কারও জন্য উচিত না।’ 

পরীক্ষা নেওয়ার প্রয়োজনীয়তার কথা তুলে ধরে তিনি বলেন, লিখিত পরীক্ষাটা কোনোভাবে নেওয়া গেলে সুবিধা হলো, ‘পরে ১৫ জন করে ভাইভাটা নেওয়া যাবে। তখন অত চিন্তা থাকবে না।’ 

পরীক্ষা আয়োজনে মেডিকেল কলেজের অধ্যক্ষগণের সহযোগী মনোভাবের প্রশংসা করে তিনি বলেন, ‘তাঁরা পরীক্ষা নেওয়ার জন্য প্রস্তুত আছেন। তাঁদের বক্তব্য হলো: আমরা পরীক্ষা নেবো, আমাদের অসুবিধা কী? আমরা শিক্ষার্থীদের ছাত্রাবাসে রেখেছি, নিরাপত্তা নিশ্চিত করছি, খোঁজ-খবর নিচ্ছি; এর পরও যদি পরীক্ষা আয়োজন নিয়ে নেতিবাচক কথা বলে—তাহলে এটা হবে অযাচিত-অনাকাঙ্ক্ষিত।’

এ সময় মেডিকেল কলেজগুলোতে তীব্র ইন্টার্নি সংকটের কথা উল্লেখ করে তিনি বলেন, ‘আগামী এক মাস পর এ চাপ আরও বাড়বে। তখন এ পরীক্ষা গ্রহণের প্রয়োজনীয়তা ও যৌক্তিকতা সবাই উপলব্ধি করতে পারবেন। তখন অনেকে উল্টো চাপ দেবেন যে, ফলাফল দ্রুত প্রকাশ করুন।’

এর আগে ১০ জুন ঢাবি অধিভুক্ত মেডিকেল কলেজগুলোর এমবিবিএস ফাইনাল প্রফেশনাল পরীক্ষা রুটিন প্রকাশ করা হয়। ঢাবির মেডিসিন অনুষদের ডিন স্বাক্ষরিত এ সংক্রান্ত নোটিসে বলা হয়, এমবিবিএস ফাইনাল প্রফেশনালের নভেম্বর ২০২০ এর নতুন সিলেবাস ও জানুয়ারি ২০২১ এর পুরাতন সিলেবাসের লিখিত পরীক্ষা আগামী জুন মাসে অনুষ্ঠিত হবে। ২৯ জুন থেকে শুরু হয়ে লিখিত পরীক্ষা চলবে আগামী ১১ জুলাই পর্যন্ত।

এতে আরও বলা হয়, প্রত্যেক মেডিকেলের পরীক্ষা তাদের নিজ নিজ ক্যাম্পাসে অনুষ্ঠিত হবে। প্রতিদিন সকাল ১০টা থেকে শুরু হয়ে পরীক্ষা একটায় শেষ হবে।

এছাড়া অবজেক্টিভ স্ট্রাকচারড প্রাকটিক্যাল পরীক্ষা আগামী ১৫ জুলাই এবং ওরাল ও ব্যবহারিক পরীক্ষা আগামী ৭ আগস্ট থেকে শুরু হবে।

আদেশের অনুলিপি অবগতি প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের মেডিসিন অনুষদের ডিন, রেজিস্ট্রার, বিশ্ববিদ্যালয়ের হিসাবরক্ষক কর্মকর্তা ও মেডিকেল কলেজগুলোর অধ্যক্ষকে পাঠানো হয়েছে।

সময়সূচি প্রকাশের এক দিন আগে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় (ঢাবি) ও চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের (চবি) অধিভুক্ত সরকারি ও বেসরকারি মেডিকেল কলেজের নভেম্বর ২০২০ ও জানুয়ারি ২০২১ শিক্ষাবর্ষের এমবিবিএস চূড়ান্ত পেশাগত পরীক্ষা জুন মাসের শেষ সপ্তাহের মধ্যে আয়োজনের নির্দেশ দেয় স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়।

স্বাস্থ্য শিক্ষা অধিদপ্তরের মহাপরিচলককে পাঠানো ওই চিঠিতে বলা হয়, ‘উপর্যুক্ত বিষয় ও স্মারকের প্রতি দৃষ্টি আকর্ষণপূর্বক জানানো যাচ্ছে যে, যথাযথ স্বাস্থ্যবিধি অনুসরণ করে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় এবং চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীন সরকারি ও বেসরকারি মেডিকেল কলেজের নভেম্বর ২০২০ ও জানুয়ারি ২০২১ সেশনের এমবিবিএস ফাইনাল প্রফেশনাল পরীক্ষা জুন ২০২১ এর শেষ সপ্তাহের সুবিধাজনক সময়ে গ্রহণের জন্য নির্দেশক্রমে অনুরোধ করা হলো।’

মন্ত্রণালয়ের স্বাস্থ্য শিক্ষা ও পরিবার কল্যাণ বিভাগের চিকিৎসা শিক্ষা-১ শাখার উপসচিব মোহাম্মদ আব্দুল কাদের স্বাক্ষরিত চিঠির অনুলিপি অবগতি ও প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য পররাষ্ট্র সচিব, ঢাকা ও চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের চিকিৎসা অনুষদের ডিন ও স্বাস্থ্য শিক্ষা বিভাগের সচিবের একান্ত সচিবসহ সংশ্লিষ্ট সকলকে পাঠানো হয়েছে।

একই সঙ্গে চিঠিতে স্বাস্থ্য শিক্ষা অধিদপ্তরের পরিচালকের (চিকিৎসা শিক্ষা) দৃষ্টি আকর্ষণ করা হয়েছে।

মেডিভয়েসের জনপ্রিয় ভিডিও কন্টেন্টগুলো দেখতে সাবস্ক্রাইব করুন MedivoiceBD ইউটিউব চ্যানেল। আপনার মতামত/লেখা পাঠান [email protected] এ।
  ঘটনা প্রবাহ : ফাইনাল প্রফ পরীক্ষা
  এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত
নিবন্ধনহীন ওষুধ লিখলে চিকিৎসকের শাস্তি
জাতীয় ওষুধনীতি-২০১৬’ এর খসড়ার নীতিগত অনুমোদন

নিবন্ধনহীন ওষুধ লিখলে চিকিৎসকের শাস্তি