৩১ মে, ২০২১ ০৫:৫৯ পিএম

হাসপাতালে কুকুর: দুই চিকিৎসককে শোকজের ঘটনায় ক্ষোভ

হাসপাতালে কুকুর: দুই চিকিৎসককে শোকজের ঘটনায় ক্ষোভ
নবীনগর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স। ছবি: সংগৃহীত

মেডিভয়েস রিপোর্ট: হাসপাতালে কুকুর প্রবেশের ছবি সামাজিক মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়ার ঘটনায় তুমুল বিতর্কের মুখে কর্তব্যরত আবাসিক মেডিকেল অফিসার (আরএমও) ও মেডিকেল অফিসারকে কারণ দর্শানোর নোটিস (শোকজ) প্রদান করা হয়েছে। যথাযথ দায়িত্বপ্রাপ্ত ব্যক্তি না হওয়া সত্ত্বেও তাদেরকে শোকজ করায় এ নিয়ে চিকিৎসক মহলে চলছে ব্যাপক আলোচনা-সমালোচনা।

তারা বলছেন, হাসপাতালে যে কোনো অনিয়মের ঘটনায় চিকিৎসকদের দায়ী করা হয়, এটা অনাকাঙ্ক্ষিত। স্বাস্থ্যসেবার অগ্রগতি নিশ্চিত করতে চাইলে এ সংস্কৃতি থেকে বেরিয়ে আসতে হবে। এ ধরনের বাজে চর্চা অব্যাহত থাকলে চিকিৎসকরা হতাশ হওয়ার পাশাপাশি স্বাস্থ্য সেবায় নিরুৎসাহিত হবেন।

সূত্রে জানা গেছে, গত ২৬ মে ভোর রাতে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নবীনগর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের জরুরি বিভাগে কিছু কুকুর প্রবেশ করে। এর একটি ছবি স্থানীয় একটি অনলাইন পোর্টালে প্রকাশ হলে এ নিয়ে ব্যাপক বিতর্কের সৃষ্টি হয়। এর পরিপ্রেক্ষিতে হাসপাতালের কর্তব্যরত আবাসিক মেডিকেল অফিসার (আরএমও) ও মেডিকেল অফিসারসহ জরুরি বিভাগে দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের কারণ দর্শানোর (শোকজ) নোটিস দেন উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা (ইউএইচএফপিও) ডা. মো. হাবিবুর রহমান।

এতে বলা হয়, ‘উপযুক্ত বিষয়ের আলোকে আপনাদের অবগতির জন্য জানানো যাচ্ছে যে, ২৬/০৫/২০২১ইং তারিখে ভোর রাত ৪.০০ ঘটিকায় জরুরি বিভাগে কিছু কুকুর প্রবেশ করে এবং তাৎক্ষণিক জরুরি বিভাগে দায়িত্বপ্রাপ্ত সকলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ না করায় এর একটি ছবি অনলাইন পোর্টালে ছেড়ে দেওয়া হয়। হাসপাতালে সিসি ক্যামেরার ভিডিও ফুটেজের মাধ্যমে দেখা যায় যে, জরুরি বিভাগে দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ও কর্মচারী কেউ এই ব্যাপারে ব্যবস্থা গ্রহণ করেন নাই। এতে বোঝা যায়, আপনারা কেউ কর্মস্থলে তৎপর ছিলেন না। ফলে এই নিউজটি বিভিন্ন জায়গায় ভাইরাল হয়, যাতে কিনা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের ভাবমূর্তি নষ্ট হয়েছে এবং নিম্নস্বাক্ষরকারীকে বিভিন্ন মাধ্যমের কাছে বিব্রতকর পরিস্থিতির সম্মুখীত হতে হচ্ছে। বিধায় আগামী ২৯/০৫/২০২১ইং তারিখের মধ্যে কৈফিয়ত তলবের সঠিক জবাব নিম্নস্বাক্ষরকারী কার্যালয়ে দাখিল করার জন্য আপনাদের অনুরোধ করা হলো।’

যথাযথ দায়িত্বপ্রাপ্ত ব্যক্তি না হওয়া সত্ত্বেও কারণ দর্শানোর নোটিসের ঘটনায় ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন হাসপাতালের মেডিকেল অফিসার ডা. মো. ইখতিয়ার উদ্দীন। তিনি বলেন, ‘আমিসহ দুইজন চিকিৎসককে শোকজ করা হয়েছে। অন্যজন হলেন হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল অফিসার (আরএমও) মুশরাত ফারকান্দা জেবিন। এ রকম পরিস্থিতির শিকার হওয়া আমার জন্য বিব্রতকর। আমি জরুরি বিভাগের কর্তব্যরত চিকিৎসক। আমার কক্ষে অবস্থান করছিলাম। জরুরি বিভাগের বাইরে বারান্দায় রাখা বিছানায় কুকুর আসলো না বিড়াল আসলো, এটা তো আর আমার কর্তব্যের মধ্যে পড়ে না। যখন রোগী আসে, আমি তখন চিকিৎসা প্রদান করি। প্রয়োজন হলে বের হই। এ ছাড়া তো আমার কক্ষে থেকে বের হওয়ার কথা না। এটা নৈশপ্রহরীর দায়িত্ব—হাসপাতাল ভবনে অনাকাঙ্ক্ষিত কিছু যেন না ঘটে। জরুরি বিভাগের বাইরে রাখা বিছানা রক্ষণাবেক্ষণের দায়িত্ব আমার না।’

ঘটনার বর্ণনা তুলে ধরে তিনি বলেন, ‘ওই দিন রাত তিনটার দিকে জরুরি বিভাগে একজন রোগী আসেন। প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে ওই রোগীকে ভর্তি করিয়েছি। এ সময় তার সঙ্গে ওয়ার্ডে গিয়েছে স্বজনেরা। পরে তারা বেরিয়ে যাওয়ার সময় কেউ হয় তো রাস্তার পাশে জরুরি বিভাগে কুকুর দেখে ছবি তুলেছিল। ওই স্বজন হয় তো তার পরিচিত সাংবাদিকের কাছে ছবি পাঠিয়েছে। এভাবে বিষয়টি ছড়িয়ে পড়ে।

এ ঘটনায় চিকিৎসকদের শোকজ করার কারণ জানতে চাইলে ইউএইচএফপিও ডা. মো. হাবিবুর রহমান মেডিভয়েসকে বলেন, ‘মেডিকেল অফিসার নিশ্চয়ই কুকুর তাড়াবেন না। তবে তাঁর উপস্থিতিতে হাসপাতালে কোনো অপ্রীতিকর ঘটনা দেখলে তিনি নির্দেশনা দেবেন। আমাদের অভিযোগের মূল কথা হলো: ওই সময় যারা ছিলেন, তাদের মধ্যে সমন্বয়হীনতা ছিল। বিষয়টি আরএমওর দায়িত্বের মধ্যে পড়ে। বহিবির্ভাগ-জরুরি বিভাগসহ সব কিছুর দায়িত্ব তাঁর। সামগ্রিকভাবেই আমার দায়িত্বও রয়েছে। আর মেডিকেল অফিসার এই দায়িত্বের আওতায় পড়েন না। তবে ওই সময় তিনিও পুরোপুরি তৎপরত ছিলেন না। তাহলে এভাবে কেউ ছবি তুলতে পারতেন না।’

একটি মহল হাসপাতালের ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ণ করার জন্য এভাবে ছবি তুলিয়েছে অভিযোগ করে তিনি বলেন, সিসি টিভির ফুটেজে দেখা গেছে, বহিরাগত একটি লোক বাহিরে দাঁড়িয়ে থেকে একটি কুকুরকে ধাওয়া করে হাসপাতালে ঢুকান এবং ১/২ সেকেন্ডের মধ্যে ছবিটি তুলেন। একজন এসে যে কুকুরটি তাড়িয়ে দেবে সেই সুযোগও দেওয়া হয়নি।

তাঁর নেতৃত্বে হাসপাতালের প্রভূত অগ্রগতিতে ঈর্ষাপরায়ণ হয়ে তারা এ কাজটি করছে বলেও অভিযোগ করেন তিনি। 

মেডিভয়েসের জনপ্রিয় ভিডিও কন্টেন্টগুলো দেখতে সাবস্ক্রাইব করুন MedivoiceBD ইউটিউব চ্যানেল। আপনার মতামত/লেখা পাঠান [email protected] এ।
  এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত
নিবন্ধনহীন ওষুধ লিখলে চিকিৎসকের শাস্তি
জাতীয় ওষুধনীতি-২০১৬’ এর খসড়ার নীতিগত অনুমোদন

নিবন্ধনহীন ওষুধ লিখলে চিকিৎসকের শাস্তি