২৪ মার্চ, ২০২১ ০১:২৪ পিএম

পেছাচ্ছে না এমবিবিএস ভর্তি পরীক্ষা

পেছাচ্ছে না এমবিবিএস ভর্তি পরীক্ষা
ফাইল ছবি

মেডিভয়েস রিপোর্ট: ২০২০-২১ শিক্ষাবর্ষে এমবিবিএস ভর্তি পরীক্ষা নির্দিষ্ট সময়েই অনুষ্ঠিত হবে বলে জানিয়েছেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক।

এমবিবিএস ভর্তি পরীক্ষা সুষ্ঠুভাবে আয়োজনের লক্ষ্যে আজ বুধবার (২৪ মার্চ) সকালে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে সংশ্লিষ্ট অংশিজনদের সাথে সমন্বয় সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন তিনি।

স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, ‘দেশে করোনা পরিস্থিতি এখন বৃদ্ধি পাচ্ছে। অন্যদিকে, মেডিকেল ভর্তিচ্ছু শিক্ষার্থীদের ভর্তি পরীক্ষা না নিলে জাতীর এই মেধাবি মুখগুলোর ভবিষ্যত শিক্ষাজীবনে অনিশ্চয়তা দেখা দিতে পারে। এসব বিবেচনায় রেখে ২ এপ্রিলই দেশে মেডিকেল কলেজে ভর্তি পরীক্ষা যথাযথ স্বাস্থ্যবিধি বজায় রেখে গ্রহণ করা হবে।’

তিনি আরও বলেন, ভর্তি পরীক্ষাটি স্বচ্ছতা ও স্বাস্থ্যবিধি ঠিক রাখতে সরকারের পুলিশ বাহিনী, গোয়েন্দা শাখা, শিক্ষা বিভাগ ও বিদ্যুৎ বিভাগসহ সংশ্লিষ্ট সকল শাখা মিলে টিম-ওয়ার্ক ও কো-অর্ডিনেশনের মাধ্যমে কাজ করবে এবং পরীক্ষা কেন্দ্রে ও কেন্দ্রের আশপাশে এলাকার স্বাস্থ্যবিধি বজায় রাখবে। 

জাহিদ মালেক বলেন, ‘পরীক্ষার্থীরা কেন্দ্রে দূরত্ব বজায় রেখে বসবে। মাস্ক ব্যবহারের পাশাপাশি অন্যান্য স্বাস্থ্যবিধি মেনে পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করবে। তারা কেন্দ্রে প্রবেশ ও বের হওয়ার সময় যেন স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলে, তা নিশ্চিত করতে সংশ্লিষ্টদের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।’

তিনি আরও বলেন, ‘পরীক্ষা নিয়ে যেন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে কোনো রকম গুজব ছড়ানো না হয়, সে দিকে খেয়াল রাখতে বলা হয়েছে। পরীক্ষার প্রশ্নপত্র নিরাপত্তা ও সতর্কতার সঙ্গে কেন্দ্রে যাওয়া হবে।’

ভর্তি পরীক্ষা সুষ্ঠু করতে একটি সেল গঠনের কথা জানিয়ে স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, কোথাও কোনো রকমের সমস্যা দেখা দিলে তাদেরকে অবহিত করবে। তারা প্রয়োজনীয় নির্দেশনা প্রদান করবে। এ ছাড়া পরীক্ষা কেন্দ্রের আশপাশে ফটোকপি মেশিনের দোকান বন্ধ রাখা, কোচিং সেন্টার বন্ধ রাখাসহ অন্যান্য তৎপরতার দিকেও নজর দেওয়া হয়েছে।

গতবারের তুলনায় এ বছর পরীক্ষার্থ সংখ্যা প্রায় দ্বিগুণ হয়েছে উল্লেখ করে স্বাস্থ্যমন্ত্রী আরো বলেন, ‘গত বছর এমবিবিএস ভর্তি পরীক্ষায় পরীক্ষার্থী সংখ্যা ছিল ৭২ হাজার। আর এবছর ভর্তি পরীক্ষার্থী সংখ্যা ১ লক্ষ ২২ হাজার ৮৭৪ জন। পাশাপাশি এ বছর করোনার কারণে সকলের স্বাস্থ্য সুরক্ষা নিশ্চিত করতে কেন্দ্র সংখ্যা ১৯টি এবং ভেন্যু সংখ্যা ৫৫টি করা হয়েছে। একই সাথে কেন্দ্রের ভেতরে পরীক্ষা চলাকালীন পরীক্ষার্থীদের ও কেন্দ্রের বাইরে অপেক্ষমাণ অভিভাবকদের স্বাস্থ্যবিধি বজায় রাখতে বিশেষ নজরদারির ব্যবস্থা থাকবে।’

গৃহীত পদক্ষেপগুলো সমন্বিতভাবে বাস্তবায়ন করলে এমবিবিএস-বিডিএস পরীক্ষা সুন্দর হবে বলেও এ সময় আশাবাদ ব্যক্ত করেন তিনি।

এর আগে সকাল সাড়ে ১১টায় সচিবালয়ে মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে এ সংক্রান্ত সভা শুরু হয়।

স্বাস্থ্য শিক্ষা বিভাগের সচিব মো. আলী নূরের সভাপতিত্বে সভায় আরো উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ মেডিকেল অ্যাসোসিয়েশনের (বিএমএ) সভাপতি ডা. মোস্তফা জালাল মহিউদ্দিন, জাতীয় টেকনিক্যাল কমিটির সভাপতি, স্বাস্থ্য শিক্ষা বিভাগের মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. এ এইচ এম এনায়েত হোসেন, বিদ্যুৎ বিভাগ, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের প্রতিনিধি, পুলিশ বাহিনী প্রতিনিধি, সরকারের গোয়ান্দা শাখার প্রতিনিধিসহ সংশ্লিষ্ট অন্যান্য শাখার প্রতিনিধিগণ এ সময় সভায় বক্তব্য রাখেন। 

প্রসঙ্গত, গত চার ফেব্রুয়ারি ২০২০-২১ শিক্ষাবর্ষে এমবিবিএস/বিডিএস ভর্তি পরীক্ষার তারিখ অনুমোদন করে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়। মন্ত্রণালয়ের স্বাস্থ্য শিক্ষা বিভাগের চিকিৎসা শিক্ষা-১ শাখার উপসচিব মোহাম্মদ আবদুল কাদের স্বাক্ষরিক এক বিজ্ঞপ্তিতে এ কথা জানানো হয়।

এ সিদ্ধান্ত অনুযায়ী, আগামী ২ এপ্রিল এমবিবিএস ও ৩০ এপ্রিল বিডিএস পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা রয়েছে।

মেডিভয়েসের জনপ্রিয় ভিডিও কন্টেন্টগুলো দেখতে সাবস্ক্রাইব করুন MedivoiceBD ইউটিউব চ্যানেল। আপনার মতামত/লেখা পাঠান [email protected] এ।
দাবি মেনে নেওয়ার আশ্বাস বিভিন্ন মেডিকেলের

বর্ধিত ভাতা পাচ্ছেন ৭ বেসরকারি মেডিকেলের ইন্টার্ন চিকিৎসকরা

  এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত