ঢাকা মঙ্গলবার, ২২ অক্টোবর ২০১৯, ৭ কার্তিক ১৪২৬,    আপডেট ১২ ঘন্টা আগে
০২ নভেম্বর, ২০১৬ ২১:০৯

ডাক্তার হিসেবে মালয়েশিয়া-সিঙ্গাপুর যেতে চাইলে

ডাক্তার হিসেবে মালয়েশিয়া-সিঙ্গাপুর যেতে চাইলে

মেডিভয়েস ডেস্ক : বর্তমান সময়ে ডাক্তারদের চাহিদায় মালয়েশিয়া সিংগাপুর রয়েছে হট লিস্টে।  নিরাপদ জীবনযাত্রা এবং সম্মানজনক বেতনের জন্যই মূলত এ দুই দেশ সবার পছন্দের।
এখানে এই দুই দেশের ক্লিনিক্যাল ক্যারিয়ার প্রসিডিউর শেয়ার করছিঃ

দুই দেশেই ক্যারিয়ার হুবহু একরকম। এ দুই দেশে চিকিৎসা পেশায় চাকরি করতে হলে আপনাকে প্রথমে ঐ  দেশের লাইসেন্স নিতে হবে।

২টি উপায়ে আপনি লাইসেন্স পেতে পারেন।

১। মালয়েশিয়ান মেডিকেল কাউন্সিল (MMC) এবং সিংগাপুর মেডিকেল কাউন্সিল (SMC) । আপনি যদি মালয়েসিয়া এবং সিংগাপুরের মিনিস্ট্রি অফ হেলথ এর স্বীকৃত কোন মেডিকেল কলেজ থেকে এমবিবিএস পাশ করে থাকেন তবে আপনি সরাসরি তাদের লাইসেন্স পেয়ে ট্রেইনিং পোস্টে জব করতে পারবেন (পেইড জব)। পরবর্তীতে মালয়েসিয়ার বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ে ফেলোশিপ পোস্ট গ্র্যাজুয়েশনের জন্য আবেদন করতে পারবেন। কেননা আপনি ইতোমধ্যে তাদের মিনিস্ট্রি অফ হেলথ এর রেজিস্টার্ড ডাক্তার।

এক্ষেত্রে আপনি যদি ঢাকা মেডিকেল কলেজ, ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ, চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ, সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ থেকে এমবিবিএস পাশ করে থাকেন তবে আপনি সরাসরি মালয়েশিয়া এবং সিংগাপুরের লাইসেন্স পাবেন। কেননা এই দুটি দেশ বাংলাদেশের শুধুমাত্র এই ৪টি মেডিকেল কলেজ স্বীকৃতি দিয়েছে। তবেিএজন্য ইন্টার্নশিপ ছাড়াও আপনার ২ বছরের অভিজ্ঞতা থাকতে হবে।
এই ৪টি মেডিকেল কলেজ থেকে গ্র্যাজুয়েটেড হয়ে ইন্টার্ন এর পর ২ বছরের অভিজ্ঞতা নিয়ে সরাসরি নিচের এড্রেসে সিভি ড্রপ করে মালয়ান এবং সিংগাপুরিয়ান লাইসেন্স নিয়ে নিন।

Malaysian Medical Council
[email protected]
Block B,Ground Floor,
Jalan Cenderasari,50590
Kuala Lumpur, Malaysia.
[email protected]
603-22628480/26912171
03-26912937/03-26938569

উপরোক্ত ঠিকানায় সরাসরি আবেদন করে মালিয়েশিয়ান লাইসেন্স পাবেন।

২। যারা এই ৪টি মেডিকেল কলেজ ব্যাতীত অন্য যেকোন মেডিকেল কলেজ থেকে এমবিবিএস পাশ করেছেন তাদের জন্য ক্লিনিক্যাল লাইসেন্স পেতে হলে এমন একটি Post-Graduation করতে হবে যেখানে ৩ বছরের ট্রেইনিং থাকে। এক্ষেত্রে আমাদের দেশের এফসিপিএস-কে কাউন্ট করা হয়, তবে তারা এমআরসিপি/এমআরসিএস-কে বেশী মূল্যায়ন করে থাকে। জব পার্সপেক্টিভ খুব ভাল। রেজিস্ট্রেশনের পর আপনি বিভিন্ন এজেন্সীতে সিভি ড্রপ করে জবের জন্য এপ্লাই করতে পারবেন।

একই নিয়মে যদি সিংগাপুরের লাইসেন্স পেতে চান তবে আপনাকে নিম্নোক্ত ঠিকানায় সিভি জমা দিতে হবেঃ

Singapore Medical Councill) – SMC website:
https://www.moh.gov.sg/…/car…/professional_registration.html

নন-ক্লিনিক্যালঃ মালয়েশিয়া এবং সিংগাপুরে নন-ক্লিনিক্যাল ক্যারিয়ার হাইলি পেইড। দক্ষিণ এশিয়ার দেশগুলো থেকে এখনো এই দুটি দেশে নন-ক্লিনিক্যাল জব করার প্রচলন শুরু হয়নি। তাই আপনারা এখন থেকেই শুরু করতে পারেন।

নন-ক্লিনিক্যাল জব করতে হলে অবশ্যই অবশ্যই সেখান থেকে যে সেক্টরে জব করতে চান সেই ফ্যাকাল্টি থেকে মাস্টার্স করে তারপর এপ্লাই করতে হবে।
নন-ক্লিনিক্যালের কিছু উল্লেখযোগ্য জবের কথা এখানে শেয়ার করছিঃ
1. Healthcare Administrator
2. Health Educator
3. Medical Social Worker
5. Medical Equipment Preparer
4. Mental Health Counselor
6. Athletic Trainer
7. Rehabilitation Counselor
8. Medical Records and Health Information Technician
9. Medical Secretary
10. Medical Transcriptionist

এসব মাস্টার্স প্রোগ্রামের টিউশন ফি সাধারনত বছরে ৪ লাখ টাকা। কোর্স শেষে জব মেলে। যেখানে বেতন-ভাতা মোটামুটি ৩ লাখ টাকার কাছাকাছি হয়ে থাকে। 
মাস্টার্স প্রোগ্রামের জন্য IELTS স্কোর মিনিমাম 7 থাকতে হয়। 

 

  এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত