২৮ অক্টোবর, ২০১৬ ০৩:২৩ পিএম

কাপড়ের রং আর স্যাকারিন দিয়ে ম্যাঙ্গো জুস

কাপড়ের রং আর স্যাকারিন দিয়ে ম্যাঙ্গো জুস

কাপড় তৈরিতে ব্যবহৃত রং দেওয়া হচ্ছিল জুসে। এ ছাড়া ঘনচিনি, স্যাকারিন আর ফ্লেভার দিয়েও তৈরি করা হচ্ছে বিভিন্ন ধরনের ভেজাল জুস। 
বৃহস্পতিবার রাজধানীর কামরাঙ্গীরচর এলাকার কাদের ফুড প্রডাক্টস নামের একটি কারখানায় অভিযান চালিয়ে র‌্যাবের ভ্রাম্যমাণ আদালত এসব দেখতে পান।

এ কারণে আদালত প্রতিষ্ঠানের মালিক আবদুল কাদেরকে দেড় বছরের কারাদণ্ড দিয়েছেন। বেলা ১১টা থেকে বিকেল চারটা পর্যন্ত র‌্যাব-১০ এবং বিএসটিআইয়ের যৌথ উদ্যোগে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করেন র্যাব সদর দপ্তরের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সারওয়ার আলম। 

আদালত পরিচালনার সময় নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট দেখতে পান, কারখানায় নোংরা পরিবেশে কাপড়ে ব্যবহৃত বিভিন্ন রং, ফ্লেভার আর ঘনচিনি ও স্যাকারিনের দ্রবণ তৈরি করে পাল্প ছাড়াই ম্যাঙ্গো জুস ও এনার্জি ড্রিংকস তৈরি করা হচ্ছে। তাদের মান নিয়ন্ত্রণ ও বিএসটিআইয়ের অনুমোদন নেই। 

আদালত অভিযুক্ত কাদেরকে জিজ্ঞাসাবাদ করলে তিনি জানান যে চার বছর ধরে এভাবে জুস তৈরি করছেন এবং সারা দেশে সরবরাহ করছেন। এ জন্য তিনি আদালতের কাছে দোষ স্বীকার করে ক্ষমা চান। আদালত এসব অপরাধের কারণে অভিযুক্ত কাদেরকে দেড় বছর বিনাশ্রম কারাদণ্ড দেন। এ সময় ছয় ট্রাক ভেজাল জুস জব্দ করা হয়।

অপরদিকে চকবাজার থানার আমেরিকান গলির ‘খোকন প্লাস্টিক ঘর’ থেকে প্রায় এক ট্রাক পলিথিন জব্দ করেন ভ্রাম্যমাণ আদালত। অবৈধভাবে নিষিদ্ধ পলিথিন তৈরি করার দায়ে চার ব্যক্তিকে দুই লাখ টাকা জরিমানা করেন ভ্রাম্যমাণ আদালত। আদালত পরিচালনার সময় উপস্থিত ছিলেন র‌্যাব-১০ এর সহকারী পুলিশ সুপার গোলাম আম্বিয়া মাহমুদ ও সহকারী পুলিশ সুপার রেজাউল করিম।

সৌজন্যে : প্রথম আলো। 

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের কৈফিয়তনামা

ভুল কাজ করে, ভুল কথা বলে সরকারকে বিব্রত করবেন না

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের কৈফিয়তনামা

ভুল কাজ করে, ভুল কথা বলে সরকারকে বিব্রত করবেন না

  এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত