১০ জুন, ২০২০ ১১:৫৩ এএম

বিএসএমএমইউতে গণস্বাস্থ্যের কিটের ফলাফল ‘আগামী সপ্তাহে’

বিএসএমএমইউতে গণস্বাস্থ্যের কিটের ফলাফল ‘আগামী সপ্তাহে’

মেডিভয়েস রিপোর্ট: বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ে (বিএসএমএমইউ) পরীক্ষাকৃত গণস্বাস্থ্যের উদ্ভাবিত করোনাভাইরাস শনাক্তের ‘জিআর কোভিড-১৯ র‌্যাপিড টেস্ট’ কিটের কার্যকারিতার ফলাফল এ সপ্তাহেই দেওয়ার কথা থাকলেও তা দিতে পারছে না। তবে আগামী সপ্তাহেই পরীক্ষার ফলাফল জমা দেয়া হবে বলে জানিয়েছে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ।

বুধবার (১০ জুন) বিএসএমএমইউ উপাচার্য অধ্যাপক ডা. কনক কান্তি বড়ুয়া এ তথ্য জানিয়েছেন।

তিনি বলেন, ‘আমরা বলেছিলাম যে এই সপ্তাহে পরীক্ষার ফলাফল জমা দেব। তবে কিছু প্রযুক্তিগত সমস্যা হওয়ার কারণে এটি জমা দিতে দেরি করতে হচ্ছে। আশাকরি, আগামী সপ্তাহে এটি জমা দিতে পারব। আমরা ইতিমধ্যে প্রযুক্তিগত সমস্যার সমাধান করেছি।’

তবে তাদের কি ধরণের প্রযুক্তিগত সমস্যা হয়েছে সে সম্পর্কে পরিষ্কারভাবে কিছু বলেননি তিনি।

এর আগে অধ্যাপক কনক কান্তি বড়ুয়া গণমাধ্যমকে জানিয়েছিলেন, বুধবারের (আজ) মধ্যে তারা ওষুধ প্রশাসন অধিদপ্তরের কাছে কিট পরীক্ষার ফলাফল জমা দেবেন। আর ওষুধ প্রশাসন অধিদপ্তরের মহাপরিচালক মেজর জেনারেল মাহবুবুর রহমানও সম্প্রতি বলেছিলেন, বিএসএমএমইউ’র বিচারে কার্যকর প্রমাণিত হলে কিটগুলোর অনুমোদন দিতে তিনি বিলম্ব করবেন না।

এ প্রসঙ্গে গণস্বাস্থ্য সমাজভিত্তিক মেডিকেল কলেজের উপাধ্যক্ষ ডা. মহিবুল্লাহ খন্দকার বলেন, ‘আমরা পরীক্ষার জন্য কিট জমা দিয়েছি। এখন বাকিটা তাদের মর্জি (দ্রুত কিটের পরীক্ষা সম্পন্ন করা)।’

গত ৩০ এপ্রিল গণস্বাস্থ্যের কিট পরীক্ষা করার জন্য বিএসএমএমইউ’র মাধ্যমে ট্রায়াল দেওয়ার অনুমতি দেয় ওষুধ প্রশাসন অধিদপ্তর। এসময় সংস্থাটির দেয়া বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, ট্রায়াল শেষে প্রাপ্ত ফলাফলের ভিত্তিতে পরবর্তী প্রয়োজনীয় কার্যক্রম নেওয়া হবে।

প্রসঙ্গত, গত ২৫ এপ্রিল বিকেলে ‘জিআর কোভিড-১৯ ডট ব্লট’ হস্তান্তর করে গণস্বাস্থ্য কেন্দ্র। যুক্তরাষ্ট্রের গবেষণা প্রতিষ্ঠান সেন্টার্স ফর ডিজিস কন্ট্রোল অ্যান্ড প্রিভেনশন (সিডিসি) কিট গ্রহণের জন্য যায়। তবে আমন্ত্রণ জানানোর পরও গণস্বাস্থ্য কেন্দ্র উদ্ভাবিত এ কিট গ্রহণের জন্য যায়নি সরকারের কোনো প্রতিষ্ঠান। পরে পরীক্ষার অনুমতি দেয় ঔষুধ প্রশাসন অধিদপ্তর।

  ঘটনা প্রবাহ : করোনাভাইরাস
  এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত
নিবন্ধনহীন ওষুধ লিখলে চিকিৎসকের শাস্তি
জাতীয় ওষুধনীতি-২০১৬’ এর খসড়ার নীতিগত অনুমোদন

নিবন্ধনহীন ওষুধ লিখলে চিকিৎসকের শাস্তি