২০ মার্চ, ২০২০ ০৯:০৫ পিএম

বিএসএমএমইউর সহযোগী অধ্যাপক ডা. কৃষ্ণা রুপাকে ছুরিকাঘাত

বিএসএমএমইউর সহযোগী অধ্যাপক ডা. কৃষ্ণা রুপাকে ছুরিকাঘাত

মেডিভয়েস রিপোর্ট: বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বিএসএমএমইউ) সার্জারি বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক এবং খাদ্যমন্ত্রী সাধন চন্দ্র মজুমদারের মেয়ে কৃষ্ণা রুপা মজুমদারকে ছুরিকাঘাত করা হয়েছে।

আজ শুক্রবার (২০ মার্চ) বিকেল তিনটার দিকে রাজধানীর মিন্টো রোডে বাসার কাছে এ ঘটনা ঘটে। মুখোশধারীরা তাকে ছুরিকাঘাত করে পালিয়ে যায়। 

বর্তমানে তিনি রাজধানীর মিন্টু রোডে বাবার বাসাতেই আছেন। এই হামলা পূর্ব পরিকল্পিত বলে দাবি করেছেন গুরুতর আহত ডা. কৃষ্ণা রুপা মজুমদার।

জানতে চাইলে বিএসএমএমইউ উপাচার্য অধ্যাপক ডা. কনক কান্তি বড়ুয়া মেডিভয়েসকে বলেন, ‘এ ব্যাপারে আমি অবগত নই। আমার ডিপার্টমেন্টে খোঁজ-খবর নিয়ে দেখছি। আজকে বন্ধের দিন। তিনি কোথায় বসেন। তিনি একজন মন্ত্রীর মেয়ে।’

গত বছর ডা. কৃষ্ণা রুপা মজুমদারের স্বামী মারা যান। তখন তার স্বজনদের অভিযোগ ছিল তাকে হত্যা করা হয়েছে। 

এর সঙ্গে ওই ঘটনায় কোনো যোগসূত্র আছে আছে কিনা, জানতেই চাইলে অধ্যাপক ডা. কনক কান্তি বড়ুয়া বলেন, ‘সে তো নিয়মিত হাসপাতালে আসতো-যেতো। ও রকম তো কিছু শুনিনি।’

প্রসঙ্গত, গত বছরের ১৭ মার্চ রাত ১২টা পর্যন্ত একটি হাসপাতালে রোগীর অস্ত্রোপচার করে ইন্দিরা রোডের বাসায় যান খাদ্যমন্ত্রীর জামাতা বিএসএমএমইউর ম্যাক্সিলোফেসিয়াল সার্জারি বিভাগের সহকারী অধ্যাপক ডা. রাজন কর্মকার। ভোর রাত ৪টার দিকে হঠাৎ করেই হৃদরোগে আক্রান্ত হলে তাকে রাজধানীর স্কয়ার হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসক পরীক্ষা নিরীক্ষা শেষে তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

ভিসেরা পরীক্ষার প্রতিবেদনে বলা হয়, তার মৃত্যুর কারণ হার্ট অ্যাটাক। তবে রাজনের পরিবারের দাবি তাকে হত্যা করা হয়েছে।

  এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত