১৬ মার্চ, ২০২০ ০৮:৩২ পিএম

করোনাভাইরাস: অতিবৃদ্ধের সেবা না দেয়ার সিদ্ধান্ত ইতালির

করোনাভাইরাস: অতিবৃদ্ধের সেবা না দেয়ার সিদ্ধান্ত ইতালির
ছবি: সংগৃহীত

মেডিভয়েস ডেস্ক: নিবিড় পরিচর্চা কেন্দ্র (আইসিইউ) সংকটের কারণে ইতালিতে করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত ৮০ বছর বা তার চেয়ে বেশি বয়সী ব্যক্তিদের এই সেবা না দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে কর্তৃপক্ষ। 

হাসপাতালগুলোতে নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে, চাহিদার তুলনায় সম্পদ অপর্যাপ্ত থাকায় কোভিড-১৯ রোগীদের মধ্যে যাদের সুস্থ হওয়া এবং বেঁচে থাকার সম্ভাবনা বেশি, তাদের অগ্রাধিকার ভিত্তিতে চিকিৎসা দেওয়া হবে। 

ব্রিটিশ সংবাদ মাধ্যম দ্য টেলিগ্রাফ জানিয়েছে, দেশটিতে প্রতিদিনই করোনা ভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা বহুগুণে বাড়ছে। আর এতে সবচেয়ে বড় সংকট তৈরি হচ্ছে হাসপাতালগুলোর আইসিইউতে। এই সংকট কাটাতে কর্তৃপক্ষ অমানবিক এই সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

ইতালির চিকিৎসকরা করোনা আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা বাড়ায় আতঙ্কিত হয়ে এরই মধ্যে কিছু রোগীকে আইসিইউ সেবা থেকে বঞ্চিত করার কথা জানিয়েছে। এমন পরিস্থিতিতে বয়স্ক এসব রোগীর সামনে মৃত্যুর প্রহর গোনা ছাড়া আর কোনো পথ নেই।

টেলিগ্রাফের খবরে বলা হয়েছে, মূলত যুদ্ধের সময় যেভাবে বয়স আর বাঁচার সম্ভাবনা বিচার করে আহত বা অসুস্থ ব্যক্তিদের চিকিৎসা দেওয়া হয়, এখন সেই নিয়মই অনুসরণ করা হচ্ছে।

শুধু ইতালি নয়, অন্য যেসব দেশে কোভিড-১৯ রোগীর সংখ্যা দ্রুত বাড়ছে, তাদেরও চিকিৎসা দেওয়ার ক্ষেত্রে একই সিদ্ধান্ত নিতে হতে পারে। 

পরিসংখ্যান বলছে, নভেল করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মারা যাওয়া রোগীদের বেশির ভাগের বয়স ৮০ বা তার ঊর্ধ্বে।

ভক্স নিউজের এক প্রতিবেদন বলা হয়, গত সপ্তাহে ইতালিতে ১০৫ জন ব্যক্তি করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা গেছে। তাদের বেশির ভাগের বয়স ৮১ বছরের ঊর্ধ্বে।

আইসিইউ সংকটের পাশাপাশি ইতালিতে সংকট তৈরি হয়েছে শেষকৃত্য নিয়েও। মৃত ব্যক্তিদের প্রতি ৩০ মিনিট পর পর দাফন করা হচ্ছে।

লম্বার্ডির বার্গামোর স্থানীয় হাসপাতালের কবরস্থানটিতে আর কোনো জায়গা নেই। তাই শেষকৃত্যের অপেক্ষায় মরদেহগুলো চার্চে রাখা হয়েছে।
ইতালিতে এখন পর্যন্ত ২৪ হাজার ৭৪৭ জন কোভিড-১৯ রোগী শনাক্ত হয়েছেন এবং মারা গেছেন ১ হাজার ৮০৯ জন। সুস্থ হয়ে উঠেছেন দু’ হাজারেরও বেশি মানুষ।

 

  ঘটনা প্রবাহ : করোনাভাইরাস
  এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত