১৪ মার্চ, ২০২০ ০৩:৫২ পিএম

হোমকোয়ারেন্টাইন উপেক্ষা করলে জেল-জরিমানা: স্বাস্থ্যমন্ত্রী

হোমকোয়ারেন্টাইন উপেক্ষা করলে জেল-জরিমানা: স্বাস্থ্যমন্ত্রী
স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক। ছবি: সাহিদ

মো. মনির উদ্দিন: বিদেশ ফেরত যেসব নাগরিক হোমকোয়ারেন্টাইন উপেক্ষা করবেন তাদেরকে বিদ্যমান আইন অনুযায়ী জেল-জরিমানা করা হবে বলে জানিয়েছেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক। 

আজ শনিবার (১৪ মার্চ) স্বাস্থ্য সেবা বিভাগের আয়োজনে রাজধানীর শ্যামলীতে শিশু হাসপাতালে তিন সপ্তাহব্যাপী হাম-রুবেলা ক্যাম্পেইনের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে এ কথা বলেন তিনি। 

প্রবাসীদের দেশে ফিরে আসার বিষয়ে এক প্রশ্নোত্তরে মন্ত্রী বলেন, ‘এটি খুবই গুরুত্ব সহকারে দেখছি, এ ব্যাপারে অবহিতও আছি। আমরা সব সময় বলে আসছি, যারা বিদেশে আছেন তারা আপাতত স্ব স্ব স্থানে থাকুন। এ মুহূর্তে বাংলাদেশে না আসলে ভালো। তাহলে আপনার পরিবারকে নিরাপদে রাখতে পারবেন। দেশকে নিরাপদে রাখতে পারবেন। তারপরও আমাদের কথা উপেক্ষা করে যারা আসছেন তাদেরকে হোম কোয়ারেন্টাইনে রাখা হচ্ছে। এটি তদারকি করতে জেলা-উপজেলা পর্যায়ে কমিটি করা হয়েছে। তারা বিদেশ ফেরত নাগরিকদের ঘরে অবস্থানের বিষয়টি নিশ্চিত করছে।  ঘরে না থাকলে সংশ্লিষ্টদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে। প্রয়োজনে জেলা-জরিমানা করা হবে।’

তিনি বলেন, ‘ভারত থেকে যারা এসেছেন তারা কোয়ারেন্টাইনে ছিলেন। পরবর্তীতে তাদের কোয়ারেন্টাইনে রাখার দরকার নেই। তাদেরকে ছেড়ে দেওয়া হবে। যারা ইতালি থেকে এসেছে, তাদেরকে আশকোনায় রাখা হয়েছে। পরীক্ষা-নিরীক্ষা করে আমরা সিদ্ধান্ত নেবো।’ 

শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ছুটি ঘোষণা করা হবে কিনা জানতে চাইলে মন্ত্রী বলেন, এ বিষয়ে চিন্তা-ভাবনা চলছে। এ ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নেবে শিক্ষা মন্ত্রণালয়। করোনা প্রাদুর্ভাবের বিষয়ে তারাও অবহিত। এবং যথাসময়ে ব্যবস্থা গ্রহণ করবেন।  

হ্যান্ড স্যানিটাইজারসহ বিভিন্ন উপকরণের দাম বেড়ে যাওয়ার বিষয়ে আরেক প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী বলেন, ‘আমরা চাই এগুলো যেন সুভল মূল্যে পাওয়া যায়। ওষুধ প্রশাসনের মাধ্যমে একটি মূল্য নির্ধারণ করা হয়েছে। তারা সারাদেশে বিভিন্ন জায়গায় তদারকি করছে। র‌্যাব-পুলিশ ও ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে করা হচ্ছে। অনেক জায়গায় জেল-জরিমানাও করা হয়েছে।’ 

মন্ত্রী বলেন, ‘হ্যান্ড স্যানিটাইজার অবধারিত কোনো বিষয় না। সাবান দিয়ে ধুলেও একই রকম বা তার চেয়ে বেশি কাজ হবে। ২০ সেকেন্ড ধুলে হাত পরিষ্কার হবে, আমরা নিরাপদে থাকতে পারবো।’ 

জনসমাগম এড়িয়ে চলার পরামর্শ দিয়ে মন্ত্রী বলেন, ‘সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়ের সঙ্গে আমাদের বৈঠক হচ্ছে। আগামীকালও একটি বৈঠক হবে। বস্তি, সিনেমা ও ক্লাবগুলোর বিষয়ে চিন্তা-ভাবনা চলছে। এছাড়া আমাদের তৈরি পোশাক শিল্প কারখানার সুন্দর ব্যবস্থানার জন্য আগামীকাল বৈঠক ডাকা হয়েছে। একটি সুন্দর সমাধান বের হবে বলে আশা করছি।’ 

ফ্লাইটগুলো বন্ধ করার বিষয়ে সরকারের পরিকল্পনা তুলে ধরে তিনি বলেন, ‘বিমানমন্ত্রী, পররাষ্ট্রমন্ত্রী ও স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীকে সকল বিষয়ে অবহিত করে রাখছি। তারা পরিস্থিতি সম্পর্কে পুরোপুরি অবগত। উপযুক্ত সময়ে তারা সিদ্ধান্ত নেবেন।’ 

অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. আবুল কালাম আজাদ, বাংলাদেশ মেডিকেল অ্যান্ড ডেন্টাল ইউনিটের চেয়ারম্যান অধ্যাপক ডা. মোহাম্মদ শহীদুল্লাহ, ঢাকা শিশু হাসপাতালের পরিচালক অধ্যাপক ডা. সৈয়দ সফ আহমেদ মুয়াজ, এমএনসিঅ্যান্ডএএইচের লাইন ডিরেক্টর ডা. মো. শামসুল হক, সম্প্রসারিত টিকাদান কর্মসূচির প্রোগ্রাম ম্যানেজার ডা. মওলা বকস চৌধুরী এবং উন্নয়ন সহযোগী সংস্থা ইউনিসেফ ও বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার প্রতিনিধিরা। 

  ঘটনা প্রবাহ : করোনাভাইরাস
  এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত
নিবন্ধনহীন ওষুধ লিখলে চিকিৎসকের শাস্তি
জাতীয় ওষুধনীতি-২০১৬’ এর খসড়ার নীতিগত অনুমোদন

নিবন্ধনহীন ওষুধ লিখলে চিকিৎসকের শাস্তি