১৩ মার্চ, ২০২০ ০৯:৫০ এএম

করোনায় মৃত্যুপুরী ইতালি: হাজার ছাড়িয়েছে মৃতের সংখ্যা

করোনায় মৃত্যুপুরী ইতালি: হাজার ছাড়িয়েছে মৃতের সংখ্যা

মেডিভয়েস ডেস্ক: প্রাণঘাতী করোনা ভাইরাসে মৃত্যুপুরীতে পরিণত হয়েছে ইতালি। গেলো ২৪ ঘন্টায় দেশটিতে নতুন করে আরও ১৮৯ জনের প্রাণহানির ঘটনা ঘটেছে। ফলে ইউরোপের দেশটিতে হাজার ছাড়িয়েছে মৃতের সংখ্যা।

দেশটির সিভিল প্রটেকশন এজেন্সির দেওয়া তথ্য মতে, দেশটিতে করোনা আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা ১৫ হাজার ১১৩ জন। যা আগে ছিলো ১২ হাজার ৪৬২ জন। প্রতি ২৪ ঘন্টায় ইতালিতে করোনা রোগী শনাক্তের হার বাড়ছে ২১.৭ শতাংশ। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা ইতালির বর্তমান অবস্থাকে মহামারী হিসেবে ঘোষণা দিয়েছেন।  এরই মধ্যে ইতালিসহ ইউরোপের অন্যান্য দেশে ভ্রমণে নিষেধাজ্ঞা জারি করেছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প।

চীন থেকে ছড়িয়ে পড়া ভাইরাসটিতে পৃথিবীর অন্যান্য অঞ্চলের ন্যায় ইউরোপীয় রাষ্ট্রগুলোতে এর প্রভাব পড়েছে। যার সবচেয়ে বেশি ভুক্তভোগী রোমীয়রা। দেশটিতে একরকম অবরুদ্ধ অবস্থায় রয়েছে ছয় কোটি মানুষ। করোনার সংক্রমণ থেকে বাঁচতে খাবার দোকান ও ফার্মেসি ছাড়া সব দোকান বন্ধ করে দেয়া হয়েছে। করোনা ভাইরাসকে বৈশ্বিক মহামারী ঘোষণা করার পর এমন সিদ্ধান্ত নিয়েছে ইতালি সরকার। প্রধানমন্ত্রী গিসেপে কন্তে পানশালা, রেস্তোরাঁ, সেলুন ও এই মুহূর্তে জরুরি নয় এমন কোম্পানিগুলোর সব বিভাগ বন্ধের নির্দেশ দিয়েছেন।

পুরো দেশজুড়েই ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞা ও জনসমাগমে নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছে। এর আগে দেশটির ১৪টি প্রদেশে ৮ মার্চ থেকে আগামী ৩ এপ্রিল পর্যন্ত জরুরি অবস্থা জারি করা হয়। কিন্তু এখন তা বাড়িয়ে দেশটির ২০টি প্রদেশের সবগুলোতেই জরুরি অবস্থা জারি করা হয়েছে।

দেশটির প্রধানমন্ত্রী কন্তে টেলিভিশনে দেয়া এক ভাষণে বলেন, এখন আর সময় নেই। যারা সবচেয়ে ঝুঁকিতে আছেন তাদের সুরক্ষার জন্যই এই ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে বলে উল্লেখ করেছেন তিনি।

এর আগে দেশজুড়ে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, খেলাধুলা, জিমনেশিয়াম, জাদুঘর, নাইটক্লাব, সিনেমা, মসজিদ এবং অন্যান্য ভেন্যু আগামী ১৫ মার্চ পর্যন্ত বন্ধ রাখার নির্দেশ দেয়া হয়েছে। যদিও তা এখন অনির্দিষ্টকালের জন্য করা হয়েছে।

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার দেওয়া তথ্য মতে, এখন পর্যন্ত বিশ্বে ৪ হাজার ৬১৩ জন মানুষ  করোনাতে প্রাণ হারিয়েছে। আক্রান্ত হয়েছে ১ লাখ ২৬ হাজার মানুষ। তবে আশার বিষয় হলো এরই মধ্যে করোনাতে চিকিৎসা নিয়ে ৬৮ হাজার মানুষ সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছে।

  ঘটনা প্রবাহ : করোনাভাইরাস
  এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত