২৬ ফেব্রুয়ারী, ২০২০ ০৮:৫০ পিএম
জিএমপি সনদ অর্জন 

এবার আফ্রিকায় যাচ্ছে বাংলাদেশের ওষুধ 

এবার আফ্রিকায় যাচ্ছে বাংলাদেশের ওষুধ 

মেডিভয়েস রিপোর্ট: গুড ম্যানুফ্যাকচারিং প্রাকটিস (জিএমপি) সনদ অর্জন করায় মধ্য আফ্রিকায় ওষুধ রপ্তানির সুযোগ পেয়েছে বাংলাদেশের ওষুধ কোম্পানি এপেক্স ফার্মা লিমিটেড। আর এ সুবাদে মধ্য আফ্রিকায় বাংলাদেশের ওষুধশিল্পের সম্ভাবনার দুয়ার উন্মুক্ত হলো।  

উৎপাদনক্ষেত্রে ভালো চর্চার জন্য এপেক্স ফার্মা লিমিটেডকে মর্যাদাপূর্ণ ‘গুড ম্যানুফ্যাকচারিং প্রাকটিস’ (জিএমপি) সনদ প্রদান করেছে গণতান্ত্রিক কঙ্গো প্রজাতন্ত্রের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের আওতাধীন বিশেষ বোর্ড ‘ডিরেক্টরেট অব ফার্মেসি অ্যান্ড মেডিসিন’।

এর পরিপ্রেক্ষিতে সম্প্রতি রাজধানীতে এপেক্স ফার্মার মার্কেটিং বিভাগের প্রধান মো. সায়িদ হোসেনের হাতে আনুষ্ঠানিকভাবে সনদপত্রটি তুলে দেন গণতান্ত্রিক কঙ্গো প্রজাতন্ত্রের বাংলাদেশ কনস্যুলেটের অনারারি কনসাল জিয়াউদ্দিন আদিল এবং নাজির আলম। এপেক্স ফার্মা লিমিটেডের পরিচালক দিলিপ কাজুরীসহ উর্ধ্বতন কর্মকর্তারা এসময় উপস্থিত ছিলেন।  

মর্যাদাপূর্ণ এই সনদটি পাওয়ায় কোম্পানিটির জন্য মধ্য আফ্রিকার ১১টি দেশে ওষুধ রপ্তানির পথ উন্মুক্ত হয়েছে।

এ বিষয়ে গণতান্ত্রিক কঙ্গো প্রজাতন্ত্রের বাংলাদেশ কনস্যুলেটের অনারারি কনসাল নাজির আলম বলেন, ‘বাংলাদেশ দীর্ঘদিন থেকেই বিশ্বের অনেক দেশে ওষুধ রপ্তানি করে আসলেও মধ্য আফ্রিকার দেশগুলোতে সেটা সম্ভব হচ্ছিল না। গণতান্ত্রিক কঙ্গো প্রজাতন্ত্রের ডিরেক্টরেট অব ফার্মাসি অ্যান্ড মেডিসিনের কাছ থেকে বাংলাদেশের ওষুধ কোম্পানি এপেক্স ফার্মা মর্যাদাপূর্ণ এই ‘জিএমপি’ সনদপত্রটি পাওয়ার ফলে এ বাধা দূর হলো। বাংলাদেশের জন্য এটি নিঃসন্দেহে বড় একটি অর্জন।’
 

রিজেন্ট ও জেকেজির প্রতারণার বিষয়ে ব্যাখ্যা

‘মহতী উদ্দেশ্য বাস্তবায়ন করতে গিয়ে প্রতারিত স্বাস্থ্য অধিদপ্তর’

কঠোর পদক্ষেপের আহ্বান বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার

বিশ্বে করোনা পরিস্থিতির অবনতি: একদিনে সর্বোচ্চ ২,২৮,১০২ আক্রান্ত

রিজেন্ট ও জেকেজির প্রতারণার বিষয়ে ব্যাখ্যা

‘মহতী উদ্দেশ্য বাস্তবায়ন করতে গিয়ে প্রতারিত স্বাস্থ্য অধিদপ্তর’

কঠোর পদক্ষেপের আহ্বান বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার

বিশ্বে করোনা পরিস্থিতির অবনতি: একদিনে সর্বোচ্চ ২,২৮,১০২ আক্রান্ত

  এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত