২৮ জানুয়ারী, ২০২০ ০১:১৮ পিএম

নবজাতকের সুস্থতায় মায়ের দুধ

নবজাতকের সুস্থতায় মায়ের দুধ

মেডিভয়েস ডেস্ক: মায়ের দুধ নবজাতক শিশুর আদর্শ খাবার। যার প্রতিটি উপাদানিই শিশুর বেড়ে ওঠার ক্ষেত্রে বেশ অত্যাবশ্যকীয়। 

শিশু স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞগণের মতে, অন্য যে কোন বিকল্প দুধের চেয়ে মায়ের দুধের পুষ্টিগণ বহুলাংশে বেশি। পরিমিত প্রোটিন, ভিটামিন ও রোগ প্রতিরোধ উপাদানের সংমিশ্রণে বুকের দুধ শিশুর জন্য সবচেয়ে আদর্শ খাবার। মায়ের বুকের দুধে ল্যাকটোজ নামক এক বিশেষ ধরনের শর্করা আছে, যা শিশুর শরীরের ক্যালসিয়ামের অভাব পূরণ করে।

বিশেষজ্ঞরা আরো বলছেন, মায়ের দুধে প্রায় ২০০ উপাদান রয়েছে, যা অন্য কোনো দুধে নেই। মায়ের বুকের দুধ শুধু যে শিশুমৃত্যুর হার কমায়, তা নয় বরং মায়ের স্বাস্থ্যের জন্যও তা উপকারী। মায়ের দুধ সেবনে শিশুর সংক্রামক ব্যাধির আক্রমণ অনেক কমে যায়। ফলে শিশুমৃত্যুর ঝুঁকি কমে যায়। মাতৃদুগ্ধ পানকারী শিশুদের মানসিক ও শারীরিক বিকাশ ঘটে পরিপূর্ণভাবে।

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার মতে, জন্মের পর শিশুকে বুকের দুধ খাওয়ালে মায়ের স্তন ক্যান্সারের আশঙ্কা ২৫ শতাংশ কমে আর জরায়ু ক্যান্সারের আশঙ্কা ৩ থেকে ৬০ শতাংশ কমে যায়। সারা বিশ্বের মতো বাংলাদেশেও প্রতি বছর ১ থেকে ৭ আগস্ট পালিত হয় বিশ্ব মাতৃদুগ্ধ সপ্তাহ। ১৯৯৩ সালে বিশ্ব মাতৃদুগ্ধ সপ্তাহে মাতৃবান্ধব কর্মস্থল সৃষ্টির উদ্যোগের যে অভিযান শুরু হয়েছিল একনও তা অব্যাহত আছে। সরকারি বা স্বায়ত্তশাসিত প্রতিষ্ঠানে, কর্মস্থল, হাসপাতাল, শপিংমল ও বিনামবন্দরের মতো জনাকীর্ণ স্থলে ব্রেস্ট ফিডিং কর্নার স্থাপনের জন্য সম্প্রতি হাইকোর্ট রুল জারি করেছে।


কেন শালদুধ?

শিশু জন্মের পরপরই মায়ের বুকের যে হলুদ ও আঠালো দুধ নিঃসরণ হয়, সেটিই শালদুধ। এ শালদুধ শিশুর জন্য প্রথম খাবার। এতে অধিক পরিমাণে প্রোটিন ও ভিটামিন থাকে। শিশুর জন্য শালদুধ অতিপ্রয়োজনীয়। 

শালদুধের ইমুনোগ্লোবিন শিশুর রোগ প্রতিরোধের জন্য অত্যন্ত জরুরি। বাচ্চার জন্মের পরপর জন্ডিস হওয়ার হাত থেকে এটি রক্ষা করে। শালদুধ ভাইরাস ও ব্যাকটেরিয়ার বিপক্ষে শিশুর প্রথম প্রতিষেধক।

কেন মায়ের বুকের দুধ?

৬ মাস পর্যন্ত নবজাতকের পুষ্টিচাহিদা সম্পূর্ণরূপে পূরণ করে থাকে। মায়ের দুধে এমন উপাদান থাকে, যা শিশুকে ভাইরাস-ব্যাকটেরিয়ার হাত থেকে রক্ষা করে।
পুষ্টিশূন্যতা থেকে রক্ষা করে ও শিশুমৃত্যুহার কমায়। মায়ের দুধ শিশুর বুদ্ধির বিকাশ ঘটায়। এককথায়, মায়ের দুধের কোনো বিকল্প নেই।

শিশুকে দুধ খাওয়ালে মা’য়ের শরীর ভালো থাকবে ?
মায়ের জরায়ু স্বাভাবিক আকারে দ্রুত ফিরিয়ে আনতে সাহায্য করে। মায়ের স্তন ও জরায়ু ক্যানসারের ঝুঁকি কমায়। 

মায়ের বুকের দুধ শিশুর অমৃত, সঞ্জীবনী। শিশুকে মায়ের দুধ পান করানোর জন্য মাকে পরিবারের সবাই মিলে সহযোগিতা করতে হবে।

 

  এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত
বেশিদিন ওমিপ্রাজল খেলে হাড় ক্ষয়ের ঝুঁকি বাড়ে 
কিডনি পাথরের ঝুঁকি বাড়ায় নিয়মিত অ্যান্টাসিড সেবন 

বেশিদিন ওমিপ্রাজল খেলে হাড় ক্ষয়ের ঝুঁকি বাড়ে