১৬ জানুয়ারী, ২০২০ ০৯:৩৮ পিএম

পানি ঢুকিয়ে হাসপাতালের বায়োমেট্রিক মেশিন অচল

পানি ঢুকিয়ে হাসপাতালের বায়োমেট্রিক মেশিন অচল
সিরিঞ্জের মাধ্যমে বায়োমেট্রিক মেশিনে পানি ঢুকিয়ে দেন হাসপাতালের পরিচ্ছনতাকর্মী ফারুক মিয়া। ছবি: সংগৃহীত

মেডিভয়েস রিপোর্ট: সিরিঞ্জের মাধ্যমে পানি ঢুকিয়ে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতালের বায়োমেট্রিক মেশিন অচল করে দেওয়া হয়েছে। এ ঘটনায় জড়িত অভিযোগে হাসপাতালের চতুর্থ শ্রেণির কর্মচারী পরিচ্ছনতাকর্মী ফারুক মিয়াকে সাময়িক বরখাস্ত করেছে কর্তৃপক্ষ। বুধবার ভোরে এ ঘটনা ঘটানো হয়। 

এ প্রসঙ্গে ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা সিভিল সার্জন ডা. মো. শাহ আলম মেডিভয়েসকে জানান, একজন চতুর্থ শ্রেণীর কর্মচারী ইচ্ছাকৃত বা প্ররোচিত হয়ে মেশিনটি নষ্ট করেছে। সিসি টিভির ফুটেজ দেখে বিষয়টি নিশ্চিত হয়ে তাকে সাময়িক বহিষ্কার করা হয়েছে। পাশাপাশি তার বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য থানায় অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। জেলা পুলিশ সুপারের সঙ্গে কথা হয়েছে। তাকে গ্রেপ্তার করা হবে। 

ওই পরিচ্ছনতাকর্মীকে স্থায়ীভাবে বহিষ্কারের পরিকল্পনা আছে কিনা—জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘এ ব্যাপারে চট্টগ্রাম বিভাগীয় পরিচালককে জানানো হয়েছে। পরিচালকের কার্যালয় থেকে অবশ্যই কোনো নির্দেশনা আসবে। এর ভিত্তিতে তাকে স্থায়ীভাবে বহিষ্কার করা হবে।’

তিনি আরও বলেন, ‘আমরা ধারণা করছি, এ রকম দুঃসাহসিক কাজে কোনো মহল তাকে উদ্বুদ্ধ করেছে। তাকে গ্রেপ্তারের পর পুলিশ রিমান্ডে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করলে সেটা বেরিয়ে আসতে পারে।’ 

সূত্রে জানা গেছে, গতকাল বুধবার (১৫ ডিসেম্বর) ভোর ৫টা ৫৭ মিনিটে একটি সিরিঞ্জের মাধ্যমে হাসপাতালের প্রশাসনিক ব্লকে বায়োমেট্রিক মেশিনে পানি ডুকিয়ে দেন ফারুক মিয়া। এতে মেশিনটি অচল হয়ে পড়লে হাসপাতালের চিকিৎসক, কর্মকর্তা-কর্মচারীদের ডিজিটাল মেশিনে হাজিরা দেয়া বন্ধ হয়ে যায়। পরে হাসপাতালের সিসিটিভি ক্যামেরায় তার কর্মকাণ্ড ধরা পড়ে।

প্রসঙ্গত, এর আগেও একবার মেশিনটি একবার নষ্ট হয়েছিল। তখন কেউ ইচ্ছা করেই তা করেছে বলে ধারণা করে প্রশাসন। এর পরিপ্রেক্ষিতে প্রশাসনিক ব্লকে বায়োমেট্রিক মেশিনের পাশে সিসি ক্যামেরা বসানো হয়।

  এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত
নিবন্ধনহীন ওষুধ লিখলে চিকিৎসকের শাস্তি
জাতীয় ওষুধনীতি-২০১৬’ এর খসড়ার নীতিগত অনুমোদন

নিবন্ধনহীন ওষুধ লিখলে চিকিৎসকের শাস্তি