১১ জানুয়ারী, ২০২০ ১০:১৩ এএম

বিএসএমএমইউতে মুজিব জন্মশতবার্ষিকীতে বিনামূল্যে চিকিৎসাসেবা

বিএসএমএমইউতে মুজিব জন্মশতবার্ষিকীতে বিনামূল্যে চিকিৎসাসেবা

মেডিভেয়েস রিপোর্ট: বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ে (বিএসএমএমইউ) মুজিব জন্মশতবর্ষ উপলক্ষে বিনামূল্যে চিকিৎসাসেবা প্রদান, বিনামূল্যে রোগ নির্ণয় ও বিনামূল্যে বিভিন্ন ল্যাবরেটরি পরীক্ষাসহ নানা পরিকল্পনা হাতে নেয়া হয়েছে।

শুক্রবার (১০ জানুয়ারি) বিএসএমএমইউ'র উপাচার্য অধ্যাপক ডা. কনক কান্তি বড়ুয়া এসব কথা জানিয়েছেন।

তিনি বলেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী মুজিব শতবর্ষ উদযাপন উপলক্ষে বিনামূল্যে চিকিৎসাসেবা, রোগ নির্ণয়সহ নানা আয়োজন আমাদের রয়েছে। বিভিন্ন বিভাগ হতে বছরব্যাপী রোগ প্রতিরোধ ও স্বাস্থ্য বিষয়ক জনসচেতনতামূলক পোস্টার প্রকাশ ও লিফলেট বিতরণ, বঙ্গবন্ধু রচিত অসমাপ্ত আত্মজীবনী শিক্ষার্থী ও প্রতিযোগীদের মাঝে বিতরণ, বঙ্গবন্ধুর চিকিৎসা ভাবনা বিষয়ে গুরুত্বপূর্ণ গবেষণাসমূহ প্রকাশ এবং উচ্চতর মেডিকেল শিক্ষা কর্যক্রম নিয়ে প্রদর্শনী ও ডিসপ্লে ইত্যাদি বাস্তবায়নের সুবিন্যস্ত পরিকল্পনা রয়েছে।

ডা. কনক কান্তি বলেন, বঙ্গবন্ধুর দর্শন ও স্বাস্থ্য ভাবনা নিয়ে আলোচনা সভা, চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতা, রচনা প্রতিযোগিতা, বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য নির্মাণ, বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে স্মৃতিজাদুঘর তৈরি, মুজিব শতবর্ষের লোগো সম্বলিত বার্ষিক দেয়াল ক্যালেন্ডার ২০২০ তৈরি ও টেলিফোন নির্দেশিকা ২০২০ তৈরির কর্মসূচি গ্রহণ করা হবে।

এর আগে, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস ও মুজিব জম্মশতবার্ষিকী উদযাপন উপলক্ষে বিএসএমএমইউ'র বি ব্লকে স্থাপিত বঙ্গবন্ধুর ম্যুরালে পুষ্পস্তবক অর্পণ করা হয়। পরে, বিকেল ৫টা ১৮ মিনিটে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী উদযাপন উপলক্ষে ক্ষণ গণনার কার্যক্রম হিসেবে জাতীয় প্যারেড গ্রাউন্ডে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা কর্তৃক ক্ষণ গণনার কার্যক্রম উদ্বোধনের সঙ্গেসঙ্গে বিএসএমএমইউয়ের বি ব্লকে একটি ঘড়ি চালু করা হয়। তারপর গোল চত্ত্বরের পাশে একটি আনন্দ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়।

আনন্দ সমাবেশে অধ্যাপক ডা. কনক কান্তি বড়ুয়া বলেন, জননেত্রী শেখ হাসিনার হাতকে আরও শক্তিশালী করে দেশের অগ্রগতিকে সমুন্নত রাখার মাধ্যমে মুজিব শতবর্ষকে সফল করে তুলতে হবে।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-উপাচার্য (গবেষণা ও উন্নয়ন) অধ্যাপক ডা. মো. শহীদুল্লাহ সিকদার, উপ-উপাচার্য (প্রশাসন) অধ্যাপক ডা. মুহাম্মদ রফিকুল আলম, কোষাধ্যক্ষ অধ্যাপক ডা. মোহাম্মদ আতিকুর রহমান, বেসিক সায়েন্স ও প্যারাক্লিনিক্যাল সায়েন্স অনুষদের ডীন অধ্যাপক ডা. খন্দকার মানজারে শামীম, শিশু অনুষদের ডীন অধ্যাপক ডা. চৌধুরী ইয়াকুব জামাল, রেজিস্টার অধ্যাপক ডা. এবিএম আব্দুল হান্নান, প্রক্টর অধ্যাপক ডা. সৈয়দ মোজাফফর আহমেদসহ অন্যান্যরা।

ওই আনন্দ সমাবেশে বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন বিভাগের ডীন, বিভাগীয় চেয়ারম্যান, শিক্ষক, অফিস প্রধান, চিকিৎসক, ছাত্রছাত্রী, কর্মকর্তা, নার্স-ব্রাদার, মেডিক্যাল টেকনোলজিস্ট ও কর্মচারীরা উপস্থিত ছিলেন।

‘চিকিৎসা দিতে গিয়ে করোনায় আক্রান্ত হলাম, এর মধ্যে আবার এ হয়রানি’
যৌন হয়রানির শিকার শেবাচিমের নারী ইন্টার্ন চিকিৎসক

‘চিকিৎসা দিতে গিয়ে করোনায় আক্রান্ত হলাম, এর মধ্যে আবার এ হয়রানি’

যৌন হয়রানির শিকার শেবাচিমের নারী ইন্টার্ন চিকিৎসক

‘চিকিৎসা দিতে গিয়ে করোনায় আক্রান্ত হলাম, এর মধ্যে আবার এ হয়রানি’

করোনা ও বার্ধক্যজনিত অসুস্থতা

এক দিনে চিরবিদায় পাঁচ বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক

এক বছর প্রয়োগ হবে সেনা সদস্যদের দেহে

চীনে করোনার প্রথম ভ্যাকসিন অনুমোদন

  এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত
নিবন্ধনহীন ওষুধ লিখলে চিকিৎসকের শাস্তি
জাতীয় ওষুধনীতি-২০১৬’ এর খসড়ার নীতিগত অনুমোদন

নিবন্ধনহীন ওষুধ লিখলে চিকিৎসকের শাস্তি