৩১ ডিসেম্বর, ২০১৯ ০৭:৪২ এএম

ডেন্টাল কোর্সে পাঁচ বছর যথেষ্ট নয় 

ডেন্টাল কোর্সে পাঁচ বছর যথেষ্ট নয় 
অধ্যাপক ডা. আবুল কাসেম

মো. মনির উদ্দিন: ডেন্টাল কোর্সের জন্য পাঁচ বছর যথেষ্ট নয় বলে মন্তব্য করেছেন বাংলাদেশ ডেন্টাল সোসাইটির সভাপতি অধ্যাপক ডা. আবুল কাসেম। তিনি বলেছেন, চৌদ্দটা বিষয় ভালোভাবে পড়ানোর জন্য ছয় বছর সময় জরুরি। 

সোমবার (৩০ ডিসেম্বর) দুপুরে রাজধানীর গুলশানে আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন তিনি। 

দ্য ইন্টারন্যাশনাল কংগ্রেস অব ওরাল ইমপ্লান্টোলোজিস্টের (আইসিওআই) ঢাকা কেন্দ্রের আনুষ্ঠানিক যাত্রা উপলক্ষে এর আয়োজন করে বাংলাদেশ একামেডি অব ওরাল ইমপ্লান্টলোজি (বিএওআই)। 

অধ্যাপক আবুল কাসেম বলেন, ‘ডেন্টালে পাঁচ বছরের কোর্স হয়েছে। অনেকেই বলেন, ডেন্টালের কোর্স কেন পাঁচ বছরের হবে? আমাদের বেসিক সাবজেক্টই নয়টা। ক্লিনিক্যাল আছে পাঁচটা। মোট চৌদ্দটা। ভালো করে পড়ালে এ বিষয়গুলো পাঁচ বছরেও শেষ হওয়ার কথা না। এজন্য ছয় বছর সময় জরুরি।’

তিনি বলেন, ‘ডেন্টাল কলেজের অনেক মালিক ফুলে ফেঁপে উঠেছেন। তারা লেকচারার থেকে আরম্ভ করে প্রফেসরদের পর্যন্ত বেতন দেন না। সরকারি চাকরিতে একজন লেকচারার কমপক্ষে ৩০ হাজার টাকা পান। কিন্তু বেসরকারিতে যারা আছেন, অনেক ডেন্টাল কলেজে তাদেরকে বেতন দেওয়া হয় না। ৭- ৮ হাজার টাকা দেওয়া হয়। কোথাও দেওয়াই হয় না। এভাবে চলতে থাকলে একটি পেশা উপরে উঠতে পারবে না। ’

ডেন্টালের ভর্তি পরীক্ষা পদ্ধতিতে পরিবর্তনের কথা জানিয়ে তিনি বলেন ‘আমাদের সময় একসঙ্গে পরীক্ষা হতো। যারা পেছনে থাকতো তাদেরকে ডেন্টালে দেওয়া হতো। আমাদের প্রথমেই দুই নম্বর বানানো হতো। এটা আমি আলাদা করেছি। আমাদের পরীক্ষা আলাদাভাবে হবে। যে প্রথম হবে সেই ডেন্টালে আসবে। এখানে দুই নম্বরের কোনো ব্যাপার নাই। আমি আমার মতো করে চলবো। আমি স্বাধীনভাবে চিন্তা করি, স্বাধীনতায় বিশ্বাস করি। আমার স্বাধীনতাটুকু যাতে হরণ না হয়, আমি তা করার চেষ্টা করি।’

ডেন্টাল সোসাইটির সভাপতি বলেন, নিজের পেশা নিয়ে সব সময় চিন্তা করেন তিনি। কেউ তার কাছে কোনো বিষয়ে সহযোগিতা চাইলে সর্বোতভাবে তা করার চেষ্টা করেন।

নিজের পেশাকে সব সময় ঊর্ধ্বে রাখেন উল্লেখ করে তিনি বলেন, ছোট ভাইয়ের মতোই এ পেশাকে ভালবাসেন তিনি। 

বাংলাদেশে আইসিওআইর পথচলায় যত রকম সহযোগিতা দরকার তার সবই করা হবে উল্লেখ করে তিনি বলেন, ‘তবে এর চিকিৎসা সাধারণের নাগালের মধ্যে রাখতে হবে। এবং আমাদের অনুজদের উৎসাহিত করতে হবে, যাতে তারা প্রতিদিন একটি করে ইমপ্লান্ট করে। প্রয়োজনে ১৫ হাজার টাকায় হোক। এটি নিশ্চিত হলে আমাদের অনেকের দাঁত টিকে যাবে। এতে অনুজরা অনেকাংশে লাভবান হবেন। 

আইসিওআই’র প্রথম বাংলাদেশি অ্যাম্বাসেডর ডা. আব্দুল্লাহ আল মামুন খানের দৃষ্টি আকর্ষণ করে তিনি বলেন, ‘এ পেশার ভালোর জন্য আপনার যেকোন চিন্তা প্রকাশ করুন, আমি তা বাস্তবায়নের চেষ্টা করবো।’  

২০০৯ সাল থেকে ঢাকা ডেন্টালের অধ্যক্ষ হিসেবে দায়িত্ব পালনের সময় পেশার জন্য যা মর্যদাকর মনে হয়েছে তার সবই করেছেন বলেও জানান তিনি।

জাতীয় মেধায় প্রথম হওয়া চিকিৎসকের নির্মোহ অভিব্যক্তি

করোনার বিরুদ্ধে লড়াই: ১৪ মাসের মেয়েটাকে দেখি না তিন সপ্তাহ ধরে 

কুর্মিটোলায় করোনা বেড পরিদর্শনকালে স্বাস্থ্যমন্ত্রী

চিকিৎসা না দিলে বেসরকারি হাসপাতালের লাইসেন্স বাতিল

জাতীয় মেধায় প্রথম হওয়া চিকিৎসকের নির্মোহ অভিব্যক্তি

করোনার বিরুদ্ধে লড়াই: ১৪ মাসের মেয়েটাকে দেখি না তিন সপ্তাহ ধরে 

কুর্মিটোলায় করোনা বেড পরিদর্শনকালে স্বাস্থ্যমন্ত্রী

চিকিৎসা না দিলে বেসরকারি হাসপাতালের লাইসেন্স বাতিল

  এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত
নিবন্ধনহীন ওষুধ লিখলে চিকিৎসকের শাস্তি
জাতীয় ওষুধনীতি-২০১৬’ এর খসড়ার নীতিগত অনুমোদন

নিবন্ধনহীন ওষুধ লিখলে চিকিৎসকের শাস্তি