ডা. জয়নাল আবেদিন টিটু

ডা. জয়নাল আবেদিন টিটু

সদস্য, বাংলাদেশ মেডিকেল এসোসিয়েশন,
সদস্য, বিসিএস (হেলথ) অফিসার'স এসোসিয়েশন।


১০ ডিসেম্বর, ২০১৯ ০৯:২৭ এএম
আপডেট: ১০ ডিসেম্বর, ২০১৯ ০৯:৫৪ এএম

নিয়োগপ্রাপ্ত ডাক্তারদের আনন্দময় দিনে কিছু কথা

নিয়োগপ্রাপ্ত ডাক্তারদের আনন্দময় দিনে কিছু কথা

৩৯তম বিসিএস পরীক্ষার মাধ্যমে নিয়োগপ্রাপ্ত ডাক্তারগণ তাদের প্রথম কর্মস্থলে যোগদান করতে যাচ্ছেন। সরকারি কর্মকর্তা হিসাবে আপনার প্রথম যোগদান বর্ণাঢ্য এবং স্মৃতিময় হয়ে থাকুক, এই কামনা করছি৷ আপনাদের আনন্দময় দিনে আমার কিছু কথা আপনাদের সাথে শেয়ার করতে ইচ্ছে হচ্ছে৷

১. যে উপজেলায় আপনার পদায়ন হয়েছে, আপনি সেই উপজেলার ইউএইচএফপিও সাহেবের ফোন নম্বর যোগাড় করুন৷ তাকে ফোন করে নিজের পরিচয় দিয়ে কথা বলুন৷ কোন তারিখে কয়টায় আপনি যোগদান করতে চান, সেটা তাকে জানান৷
আপনার উচিত হবে ইউএইচএফপিও সাহেবের উপস্থিতিতে তার কক্ষে বসে যোগদান পত্র দাখিল করা। আগে থেকে কোনরকম যোগাযোগ না করে ইউএইচএফপিও সাহেবের অনুপস্থিতিতে যোগদান করাটা অসুন্দর দেখায়৷

২. যোগদানের দিন পরিষ্কার পরিচ্ছন্ন পোষাক পরে যাবেন৷ যদি দাড়ি রাখেন, তাহলে সেটা পরিপাটি করে রাখুন৷ আর যদি দাড়ি না রাখেন, তাহলে ভাল ভাবে শেভ করে যাবেন৷

৩. উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে পৌঁছে সবার আগে ইউএইচএফপিও সাহেবের রুমে প্রবেশ করে আপনার যোগদান করার ইচ্ছা তাকে জানান৷

৪. প্রথমবার সচিব বরাবর যোগদান করলেও এবার আপনি যোগদান পত্র দাখিল করবেন 'উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা' বরাবর৷ এবারের যোগদান পত্রের সাথে নিম্নলিখিত কাগজগুলো ১০ কপি করে লাগবে৷
ক) ইউএইচএফপিও বরাবর যোগদানপত্র৷
খ) জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় কর্তৃক নিয়োগাদেশ/ প্রজ্ঞাপন  (নিয়োগের গেজেট হিসাবে পরিচিত) -এর ফটোকপি৷ এ প্রজ্ঞাপনের ১ম পৃষ্ঠা, যে পৃষ্ঠায় আপনার নাম আছে, সেই পৃষ্ঠা এবং শেষ পৃষ্ঠা,  কমপক্ষে এই তিনটি পৃষ্ঠা থাকা উচিত৷ ১ম  পৃষ্ঠায় নিয়োগ দানকারী মন্ত্রণালয়ের নাম এবং স্মারক নম্বর থাকে৷ শেষ পৃষ্ঠায় স্মারক নম্বর থাকে, এবং সরকারের পক্ষে যিনি প্রজ্ঞাপন জারি করেছেন, তার নাম, পদবী এবং সিগনেচার থাকে৷
গ) ০৮/১২/২০১৯ তারিখে আপনি মন্ত্রণালয়ে যোগদান করেছেন, সেই যোগদানপত্রের কপি৷
ঘ) আপনার পদায়নের আদেশ, যে আদেশে আপনাকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে বা উপ-স্বাস্থ্য কেন্দ্রে পদায়ন করা হয়েছে৷ পদায়নের আদেশের ১ম পৃষ্ঠা, যে পৃষ্ঠায় আপনার নাম লেখা আছে, সেই পৃষ্ঠা, এবং শেষ পৃষ্ঠা, কমপক্ষে এই তিনটি পৃষ্ঠা৷
ঙ) আপনার জাতীয় পরিচয়পত্র৷
চ) আপনার এস.এস.সি সার্টিফিকেট, যা আপনার বয়সের প্রমাণক৷
ছ) আপনার এমবিবিএস উত্তীর্ণদের সার্টিফিকেট, যার কারণে আপনি মূল বেতনের সাথে একটি ইনক্রিমেন্ট বেশি পাবেন৷
জ) আপনার ইন্টার্নশীপ ট্রেনিংয়ের সার্টিফিকেট৷
ঝ) আপনার বিএমডিসি রেজিষ্ট্রেশন সার্টিফিকেট, যার কারণে আপনি মূল বেতনের সাথে আরও একটি ইনক্রিমেন্ট বেশি পাবেন৷
ঞ) আপনার সম্পদ এবং সম্পত্তির বিবরণী৷
ট) আপনি এবং আপনার পরিবারের সদস্যরা কখনও কোনদিন যৌতুক নিবেন না বা দিবেন না, এইমর্মে ৩০০ টাকার রেভেনিও স্ট্যাম্পে লিপিবদ্ধ অঙ্গীকারনামা৷
ইউএইচএফপিও সাহেব আপনার যোগদানপত্রে স্বাক্ষর করার পর আপনার যোগদান পর্ব শেষ হল৷

৫. আপনার কী করণীয় এ ব্যাপারে ইউএইচএফপিও সাহেবের কাছ থেকে ব্রিফিং নিন৷ তিনি আপনার নিয়ন্ত্রণকারী কর্মকর্তা৷ সরকারের কর্মসূচী বাস্তবায়ন করার জন্য, উপজেলা স্বাস্থ্য বিভাগের কর্মকর্তা কর্মচারীদের পরিচালনা করার জন্য এবং সবার কাছ থেকে কাজ আদায় করার জন্য তিনিই সরকারের প্রতিনিধি৷

৬. আপনি আপনার কর্মস্থলে অবস্থান করুন৷ আপনার জন্য খাট পালংক, চেয়ার টেবিল আলমারি কোন কিছুই বরাদ্দ নেই৷ যোগদানের পর ভাল মানের খাট, পড়ার জন্য চেয়ার, টেবিল নিজের ব্যক্তিগত ব্যবহারের আলমারি নিজের টাকায় কিনে নিন৷ মর্যাদাসম্পন্ন মানুষ যে মানের আসবাবপত্র ব্যবহার করে, আপনি সেই মানের আসবাবপত্র ক্রয় করুন৷ কয়েকজন মিলে পড়াশোনার গ্রুপ তৈরি করে নিন৷ সময়টা ভাল কাটবে৷
 
৭. সঠিক সময়ে কর্মস্থলে হাজির হবেন, আপনার উপর অর্পিত দায়িত্ব দক্ষতার সাথে পালন করবেন৷ নির্ধারিত সময়ের আগে কর্মস্থল ত্যাগ করবেন না৷

৮. রোগীদের সাথে উত্তম আচরণ করবেন৷ আপনি বা আপনার পিতামাতা অসুস্থ হলে যে আচরণ আপনি আশা করতেন৷ সেই আচরণ৷ এটা আপনার নৈতিক দায়িত্ব৷ 

৯. যারা সরকারী হাসপাতালে চিকিৎসা নিতে আসে, তাদেরকে ছোট মনে করবেন না৷ তারা বিনা পয়সায় চিকিৎসা নেয় না৷  জনগণের পক্ষ থেকে সরকার তার নিযুক্ত কর্মকর্তা কর্মচারীকে বেতন পরিশোধ করে৷

১০. ডায়াগনস্টিক সেন্টার যতই হাতছানি দিক, কখনোই অফিস সময়ে বাইরে গিয়ে আল্ট্রাসনোগ্রাফি বা অন্য কোন কর্ম করবেন না, এটা অন্যায়৷ নিশ্চিত থাকুন, অন্যায় করে বিপদে পড়লে আপনার সাহায্যে কেউ এগিয়ে আসবে না৷

১১. সহকর্মী ডাক্তার, নার্স এবং অন্য সকল কর্মচারীদের সাথে সদ্ভাব বজায় রাখবেন৷ কারও সাথে বিবাদে জড়ালে তা নিজের জন্য ক্ষতির কারণ হয়৷

১২. অন্যান্য অফিসের এবং স্থানীয় জনগণের সাথে উত্তম সম্পর্ক বজায় রাখলে তা আপনার সম্মান এবং শক্তি উভয়টিই বৃদ্ধি করবে৷

১৩. ওষুধ কোম্পানির সাথে বা স্থানীয় ডায়াগনস্টিক সেন্টারের সাথে বেশী জড়াবেন না৷

Add
একজন এফসিপিএস পরীক্ষা উত্তীর্ণ চিকিৎসকের অনুভুতি

পরীক্ষা প্রস্তুতির শেষের কয়েকদিন মেয়ের সাথে দেখা করতে পারিনি

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার সতর্কতা

চীনে রহস্যজনক ‘করোনা ভাইরাসে’ দ্বিতীয় মৃত্যু

একজন এফসিপিএস পরীক্ষা উত্তীর্ণ চিকিৎসকের অনুভুতি

পরীক্ষা প্রস্তুতির শেষের কয়েকদিন মেয়ের সাথে দেখা করতে পারিনি

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার সতর্কতা

চীনে রহস্যজনক ‘করোনা ভাইরাসে’ দ্বিতীয় মৃত্যু

একজন এফসিপিএস পরীক্ষা উত্তীর্ণ চিকিৎসকের অনুভুতি

পরীক্ষা প্রস্তুতির শেষের কয়েকদিন মেয়ের সাথে দেখা করতে পারিনি

  এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত