০২ ডিসেম্বর, ২০১৯ ০১:৩০ এএম
আপডেট: ০২ ডিসেম্বর, ২০১৯ ০১:৪৩ এএম

এইডসকে আমরা শূন্যের কোটায় নামিয়ে আনতে চাই: স্বাস্থ্যমন্ত্রী

এইডসকে আমরা শূন্যের কোটায় নামিয়ে আনতে চাই: স্বাস্থ্যমন্ত্রী

মেডিভয়েস রিপোর্ট: স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক স্বপন বলেছেন, বিশ্বে অন্যান্য দেশের তুলনায় বাংলাদেশে এইডসের রোগী অনেক কম। এই সংখ্যাও শূন্যের কোঠায় নামিয়ে আনতে চাই। 

তিনি বলেন, বিশ্বে প্রায় ৪ কোটি এইডস রোগী রয়েছেন। সে তুলনায় বাংলাদেশে এইডস রোগীর হার ০.০১ শতাংশ। বাংলাদেশে রোগীদের যেভাবে ওষুধ সহায়তা দেওয়া হয় সেটা আর কোথাও দেওয়া হয় না। বিশ্বে ৫০ ভাগ ওষুধের কাভারেজের তুলনায়ও বাংলাদেশ এগিয়ে রয়েছে। বিশ্বের ৫০ শতাংশের তুলনায় আমাদের দেশে তা ৬১ ভাগ। তবে এটিকে আরও বাড়াতে হবে। 

রোববার বিশ্ব এইডস দিবস উপলক্ষে রাজধানীর কৃষিবিদ ইনস্টিটিউটে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর আয়োজিত আলোচনা সভায় তিনি এ কথা বলেন। 

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের পরিচালক অধ্যাপক ডা. শামিউল ইসলাম জানান, ১৯৮৯ সাল থেকে ২০১৯ পর্যন্ত তিন দশকে ৭ হাজার ৩৭৪ জন মানুষের শরীরে এইচআইভি ভাইরাসের সংক্রমণ হয়েছে। এদের মধ্যে ১ হাজার ৩৪২ জন মারা গেছেন। ২০১৯ সালে ৯১৯ জন নতুন করে এইডসে রোগে আক্রান্ত হয়েছেন। এরাসহ বর্তমানে বাংলাদেশে আনুমানিক ১৪ হাজার এইডস রোগী রয়েছে।

তিনি বলেন, ২০১৯ সালে নতুন আক্রান্তদের মধ্য ৭৪ শতাংশ পুরুষ, ২৫ শতাংশ নারী ও ১ শতাংশ ট্রান্সজেন্ডার। ২৫ থেকে ৪৯ বছর বয়সী মানুষদের মধ্যে এইডস আক্রান্তের হার বেশি। নতুন আক্রান্তদের ৬০৫ জন এই বয়সী। যা মূল সংখ্যার ৭৪.৪২ শতাংশ। এ বছর মোট ২৭ হাজার ১৬৮ জন সাধারণ মানুষের এইডস টেস্টিং ও ৪১ হাজার ৩০৯ জনকে স্ক্রিনিং করা হয়েছে।

শামিউল জানান, এ বছরে আক্রান্ত হওয়া ৯১৯ জনের মধ্যে রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠীতে আক্রান্ত হয়েছে ১০৫ জন। এইডস আক্রান্তের মধ্যে ৫৮৭ জন বিবাহিত, ১৭৫ জন সিঙ্গেল, ১৭ জন তালাকপ্রাপ্ত ও ১০ জন বিধবা রয়েছেন। নতুন আক্রান্তদের মধ্যে ১৭০ জনের মৃত্যু হয়েছে। এছাড়া ব্যাচেলরদের চেয়ে বিবাহিতরাই বেশি সংখ্যায় এইডসে আক্রান্ত হয়েছে।

অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন স্বাস্থ্য অধিদফতরের মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. আবুল কালাম আজাদ।

  এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত