২৩ নভেম্বর, ২০১৯ ০২:০০ পিএম
আপডেট: ২৩ নভেম্বর, ২০১৯ ০৩:৪৮ পিএম

ডা. সাদেকুল ইসলাম তালুকদারকে ময়মনসিংহ মেডিকেলে বদলি

ডা. সাদেকুল ইসলাম তালুকদারকে ময়মনসিংহ মেডিকেলে বদলি
ডা. সাদেকুল ইসলাম তালুকদার। ফেসবুক থেকে সংগৃহীত

মেডিভয়েস রিপোর্ট: কিশোরগঞ্জের শহীদ সৈয়দ নজরুল ইসলাম মেডিকেল কলেজের প্যাথলজী বিভাগের প্রধান ও সহকারী অধ্যাপক ডা. সাদেকুল ইসলাম তালুকদারকে ময়মনসিংহ মেডিকেলে বদলি করা হয়েছে।

গত ২১ নভেম্বর (বৃহস্পতিবার) স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের এক প্রজ্ঞাপনে এ তথ্য জারি করা হয়।

একই প্রজ্ঞাপনে ময়মনসিংহ মেডিকেলের সহকারী অধ্যাপক (প্যাথলজি) ডা. জয় প্রকাশ বিশ্বাসকে নেত্রকোনা মেডিকেল কলেজে সংযুক্তি করা হয়েছে। তিনি একই সঙ্গে নেত্রকানো সদর হাসপাতালে কাজ করার নির্দেশনা দেয়া হয়েছে।

রাষ্ট্রপতির আদেশক্রমে স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের স্বাস্থ্যসেবা বিভাগের পার-১ অধিশাখার উপসচিব শামীমা নাসরিন স্বাক্ষরিত প্রজ্ঞাপনে উল্লেখ করা হয়, বদলি বা পদায়নকৃত কর্মকর্তা আগামী সাত কর্মদিবসের মধ্যে বদলিকৃত কর্মস্থলে যোগদান করবেন। অন্যথায় বর্তমান কর্মস্থল থেকে তাৎক্ষণিক অব্যাহতি (স্ট্যান্ড রিলিজ) মর্মে গণ্য হবেন। 

সাদেকুল ইসলাম তালুকদার টাঙ্গাইলের সখীপুরের কাকড়াজান ইউনিয়নের অন্তর্গত ঢনঢনিয়া গ্রামে ১৯৬১ সালে জন্মগ্রহণ করেন। পিতা দলিল উদ্দিন তালুকদার ও মাতা ফাতেমা খাতুনের কোল আলোকিত করা এ কৃতি সন্তানের শিক্ষাজীবন শুরু হয় পারিবারিক মক্তবে ধর্মীয় শিক্ষার মাধ্যমে।

স্বাধীনতা যুদ্ধের সময় ঘোনারচালা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় থেকে তিনি প্রাথমিক শিক্ষা সমাপ্ত করেন। তিনি কচুয়া পাবলিক উচ্চ বিদ্যালয়ে ৮ম শ্রেণি পর্যন্ত লেখাপড়া করেন।

১৯৭৭ সালে ভালুকার বাটাজোর বিএম হাইস্কুল থেকে চারটি বিষয়ে লেটার মার্কসহ প্রথম বিভাগে এসএসসি, কালিহাতি উপজেলার আলাউদ্দিন সিদ্দিকী মহাবিদ্যালয় থেকে ১৯৭৯ সালে প্রথম বিভাগে এইচএসসি পাস করেন।

১৯৮৫ সালে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ থেকে চিকিৎসাশাস্ত্রে এমবিবিএস ডিগ্রি লাভ করেন। ১৯৯১ সাল পর্যন্ত তিনি বিভিন্ন উপজেলা হেলথ কমপ্লেক্সে সরকারি চাকরি করেন। মেডিকেল কলেজের প্রভাষক হিসেবে ১৯৯২ সালে তদানীন্তন আইপিজিএমআর বর্তমানে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয় থেকে চিকিৎসাশাস্ত্রে উচ্চতর এম.ফিল (প্যাথলজি) ডিগ্রি অর্জন করেন এরপর তিনি পুনরায় ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজের প্রভাষক হিসেবে যোগদান করেন।

১৯৯৮ সালে তিনি সহকারী অধ্যাপক হিসেবে পদোন্নতি লাভ করেন। দীর্ঘ শিক্ষকতা জীবনে তিনি অনেক গুণী চিকিৎসক তৈরি করেছেন। ভুটানের বর্তমান প্রধানমন্ত্রী ডা. লোটে শেরিং ও বাংলাদেশে সাবেক স্বাস্থ্যপ্রতিন্ত্রী ও বর্তমান তথ্য প্রতিমন্ত্রী ডা. মুরাদ হাসানও তার ছাত্র। 

তিনি ২০০৮ সাল থেকে প্রায় ৭ বছর দিনাজপুর মেডিকেল কলেজে সহকারী অধ্যাপক পদে নিয়োজিত ছিলেন। কিশোরগঞ্জের শহীদ সৈয়দ নজরুল ইসলাম মেডিকেল কলেজের সহকারী অধ্যাপক ও বিভাগীয় প্রধান হিসেবে সর্বশেষ কর্মরত ছিলেন। তিনি সেখানে ৪ বছর সুনামের সঙ্গে দায়িত্ব পালন করেন।

এছাড়াও তিনি চিকিৎসা বিজ্ঞানেও গবেষক কর্ম দিয়ে বিশেষ অবদান রাখেন।  তার গবেষণা প্রকাশনা ৮৭টি। এ পর্যন্ত তার প্রায় অর্ধশতাধিক গবেষণামূলক বৈজ্ঞানিক প্রবন্ধ জাতীয় ও আন্তর্জাতিক জার্নালে প্রকাশিত হয়েছে।

ডা. সাদেকুল ইসলাম তালুকদার বৈজ্ঞানিক সম্মেলনে অংশগ্রহণের জন্য কয়েকবার নেপাল, ভারত, পাকিস্তান ভ্রমণ করেন। তিনি বর্তমানে ৩টি মেডিকেল জার্নাল সম্পাদনা করেন।

চিকিৎসা বিজ্ঞানে স্বীকৃতিস্বরূপ যুক্তরাষ্ট্রের আমেরিকান কলেজ অব ফিজিশিয়ান তাকে এমএসিপি সার্টিফিকেট প্রদান করেন। চিকিৎসা সেবার পাশাপাশি তিনি একজন বিশিষ্ট সমাজসেবক। 

দীর্ঘদিন ধরে তিনি এলাকার মেধাবী ও গরিব শিক্ষার্থীদের মাঝে অর্থনৈতিক সাহায্য করে আসছেন। এলাকার যেকোন উন্নয়নমূলক কাজে তিনি একজন পৃষ্ঠপোষক। তার বহু শিক্ষার্থী আজ দেশে-বিদেশে গুরুত্বপূর্ণ পদে বহাল রয়েছেন। এছাড়াও ছুটিতে এলাকায় গিয়ে তিনি অসংখ্য গরীব রোগীর ফ্রি চিকিৎসা করেন।

মেডিভয়েসে বিভিন্ন বিষয়ে নিয়মিত লেখালেখি করা এ চিকিৎসকের বিভিন্ন বই ইতিমধ্যে প্রকাশ হয়েছে।

তার প্রকাশিত উল্লেখযোগ্য বইগুলো হলো-

১. Colour drawingt of common pathology slide

২. প্যাথলজি ল্যাবরেটরি সহায়িকা

৩. স্মৃতির পাতা থেকে

৪. বর্ণিল অতীত  

[প্রিয় পাঠক, আপনিও মেডিভয়েস অনলাইনের অংশ হয়ে উঠুন। লাইফস্টাইল বিষয়ক ফ্যাশন, স্বাস্থ্য, ভ্রমণ, নারী, ক্যারিয়ার, পরামর্শ, এখন আমি কী করব, খাবার, রূপচর্চা ও ঘরোয়া টিপস নিয়ে লিখুন এবং সংশ্লিষ্ট বিষয়ে ছবিসহ মেইল করুন-[email protected]-এ ঠিকানায়। লেখা আপনার নামে প্রকাশ করা হবে।]
  এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত