১৫ নভেম্বর, ২০১৯ ০৭:৫৪ পিএম

ডা. বুলবুল সরওয়ারের পাশে ‘ডক্টরস ওয়েলফেয়ার ট্রাস্ট’

ডা. বুলবুল সরওয়ারের পাশে ‘ডক্টরস ওয়েলফেয়ার ট্রাস্ট’

মো. মনির উদ্দিন: মেডিভয়েসে প্রকাশিত প্রতিবেদন দেখে অসুস্থ কথাসাহিত্যিক অধ্যাপক ডা. বুলবুল সরওয়ারের পাশে দাঁড়ালো ডক্টরস ওয়েলফেয়ার ট্রাস্ট। বিশেষ তহবিল গঠন করে দেশে কিংবা চিকিৎসকের পরামর্শ অনুযায়ী প্রয়োজনে বিদেশে উন্নত চিকিৎসার ঘোষণা দিয়েছে তারা।

গতকাল প্রতিথযশা এ চিকিৎসকের বাসায় গিয়ে পরিবারের সদস্যদের এ কথা জানানো হয়েছে বলে আজ শুক্রবার (১৫ ডিসেম্বর) সন্ধ্যায় বিষয়টি মেডিভয়েসকে নিশ্চিত করেছেন ট্রাস্টের কমিউনেকশন বিভাগের প্রধান ডা. এসএম মামুন। 

তিনি বলেন, ‘চিকিৎসকদের দেখে স্যার আবেগআপ্লুত হয়ে যান। তিনি কথা বলতে পারেন না, তাই আমাদের দিকে নির্বাক তাকিয়ে ছিলেন।’

এসএম মামুন বলেন, আত্মীয়-স্বজনের সঙ্গে কথা হয়েছে। এমআরআই করানোর পর দ্বিতীয় দফা স্যারকে পক্ষাঘাতগ্রস্তদের পুনর্বাসনকেন্দ্রে (সিআরপি) নেওয়া হবে। সিআরপিতে চিকিৎসার জন্য আগামী তিন মাস চিকিৎসা দেওয়ার পরিকল্পনা আছে। সেখানে প্রায় সাড়ে তিন লাখ টাকা প্রয়োজন। এটা ট্রাস্ট বহন করবে।  

তিনি আরও বলেন, এমআরআই'র রিপোর্ট পরবর্তীতে স্কয়ার হাসপাতালের একজন চিকিৎসককে দেখানো হবে। সেখানে চিকিৎসক পরিকল্পনা করবেন দীর্ঘ দিন হয়ে যাওয়ায় সার্জারিতে গেলে ফলপ্রসূ কিছু হবে কিনা। পাশাপাশি এমআরআই’র রিপোর্ট ভারতের কয়েকটি হাসপাতালের পাঠানো হবে। সেখানেও সার্জারিতে যাওয়ার বিষয়ে পরামর্শ চাওয়া হবে। তারা সিদ্ধান্ত দিলে স্যারকে ভারতে পাঠানো হবে। এ ক্ষেত্রে ওয়েলফেয়ার ট্রাস্ট খরচের পরিমাণ জেনে প্রয়োজনীয় তহবিল গঠনের উদ্যোগ নেবে। 

নিজেদের ফেসবুক গ্রুপে এক পোস্টে সংগঠনটির প্রতিষ্ঠাতা ডা. মোবারক হোসাইন বলেন, ‘বাংলাদেশের সনামধন্য লেখক ও অসংখ্য ডাক্তারের শিক্ষক অধ্যাপক ডা. বুলবুল সরওয়ার ইশকেমিক স্ট্রোকে আক্রান্ত হওয়ার পর থেকে এখনও শয্যাশায়ী। প্রয়োজন উন্নত চিকিৎসার। কিন্তু এই এক বছরে তাঁর চিকিৎসা ব্যয়ভার বহন করতে গিয়ে স্যারের পরিবারটি এখন নিঃস্বপ্রায়। কারণ তিনিই ছিলেন পরিবারের একমাত্র উপার্জনক্ষম ব্যক্তি।’

তিনি বলেন, ‘মেডিভয়েস পত্রিকায় প্রকাশিত সংবাদের ভিত্তিতে ট্রাস্টের কমিউনিকেশন বোর্ড স্যারের পরিবারের সাথে যোগাযোগ করেন। গতকাল বৃহস্পতিবার (১৪ নভেম্বর) ডক্টরস ওয়েলফেয়ার ট্রাস্টের চার সদস্যের একটি প্রতিনিধি দল নিয়ে স্যার ও পরিবার সদস্যদের সঙ্গে সাক্ষাৎ করি।’

অধ্যাপক বুলবুল সরওয়ারের সার্বিক অবস্থার খোঁজ-খবর ও ভবিষ্যৎ চিকিৎসা পরিকল্পনা নিয়ে কথা হয়েছে জানিয়ে তিনি বলেন, উন্নত চিকিৎসায় ডক্টরস ওয়েলফেয়ার ট্রাস্ট সকলকে সঙ্গে নিয়ে সাধ্য অনুযায়ী তাঁর পাশে থাকবে।

দিলরুবা সরওয়ারের কৃতজ্ঞতা প্রকাশ

ডা. বুলবুল সরওয়ারের চিকিৎসায় পাশে দাঁড়ানোর ঘোষণায় ডক্টরস ওয়েলফেয়ার ট্রাস্ট্রের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেছেন তাঁর সহধর্মিনী দিলরুবা সরওয়ার। মেডিভয়েসকে তিনি বলেন, ‘আমি খুব খুশি ও কৃতজ্ঞ তাদের প্রতি। তারা যদিও আমাদের চেয়ে অনেক ছোট, এই ছোট মানুষগুলো যে উদ্যোগটা নিয়েছে—এটি অনেক বড় উদ্যোগ, আলহামদুলিল্লাহ। আল্লাহ তাদেরকে অনেক বড় ডাক্তার বানাক, বড় হোক তারা।’

ডক্টরস ওয়েলফেয়ার ট্রাস্ট্রের এমন আশ্বাসে আবেগআপ্লুত দিলরুবা সরওয়ার বলেন, ‘খুব ভালো লাগছে—অন্তত স্যারের চিকিৎসাটা হবে। উন্নত চিকিৎসার উদ্যোগ এক প্রকার থেমেই গিয়েছিল। এটা যে চালানো যাবে, আমি কখনো ভাবতে পারিনি। এজন্য আল্লাহর কাছে লাখ লাখ শুকরিয়া। ’

পরিবারের একমাত্র উপার্জনক্ষম মানুষটির অসুস্থতার ব্যয় বহন করতে গিয়ে তারা প্রায় নিঃস্ব হয়ে গেছেন জানিয়ে তিনি বলেন, নিজের সন্তানদের পড়ালেখা চালিয়ে যাওয়া অনেকটা কষ্টকর হয়ে যাচ্ছে। 

যেভাবে অসুস্থ হলেন

গত বছরের ২৮ অক্টোবর ইশকেমিক স্ট্রোকে আক্রান্ত হন জনপ্রিয় এ চিকিৎসক। পরে তাঁকে ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অব নিউরোসায়েন্স হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়।

ওই বছরের ৩০ নভেম্বর ডা. বুলবুল সরওয়ারের টাইমলাইনে একটি পোস্টে বলা হয়, ডাক্তার বুলবুল সরওয়ার এর দীর্ঘমেয়াদি চিকিৎসার প্রয়োজন। কিন্তু তার জন্যে অনেক বড় অংকের টাকা প্রয়োজন।

তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ভারতের চেন্নাই নেয়ার সিদ্ধান্তের কথা উল্লেখ করে তার পরিবার জানায়, চিকিৎসার জন্য প্রয়োজন প্রায় ৭০ লক্ষ টাকা।

একজন বুলবুল সরওয়ার 

১৯৬২ সালে গোপালগঞ্জ জেলায় জন্মগ্রহণ করেন ডা. বুলবুল সরওয়ার। গ্রামের স্কুল থেকে মেট্রিক ও ঢাকা কলেজ থেকে এইচএসসি পরীক্ষা কৃতিত্বের সঙ্গে উত্তীর্ণ হন। পরে ঢাকা মেডিকেল কলেজ থেকে এমবিবিএস পাস করেন তিনি। পরবর্তীতে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে পোস্ট গ্র্যাজুয়েশন করেছেন। বাংলাদেশের একটি বিশ্ববিদ্যালয় থেকে তিনি মিশরের কায়রো থেকে উচ্চশিক্ষা, পিএইচডি করেছেন। 

সাহিত্য চর্চা

ডা. বুলবুল সরওয়ার ৫৫টি বই লিখেছেন। তার মধ্যে ঝিলাম নদীর দেশ, ইস্তাম্বুল, রাজকন্যা কংকাবতী, মীর ত্বকী মীর, মহানগরী, রুবাইয়াতে বুলবুল, পত্র নয় প্রেম উল্লেখযোগ্য। এছাড়াও তিনি একজন প্রতিষ্ঠিত অনুবাদক ও লেখক।

সিন্ডিকেট মিটিংয়ে প্রস্তাব গৃহীত

ভাতা পাবেন ডিপ্লোমা-এমফিল কোর্সের চিকিৎসকরা

স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের নির্দেশনা উপেক্ষা

অতিরিক্ত বেতন নিচ্ছে একাধিক বেসরকারি মেডিকেল

প্রস্তুতির নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর

অক্টোবর-নভেম্বরে ২য় ধাপে করোনা সংক্রমণের শঙ্কা

  এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত
স্বাধীনতা পদক ২০১৭ প্রাপ্ত অধ্যাপক ডা. টি এ চৌধুরীর সংক্ষিপ্ত জীবনী
বাংলাদেশের গাইনী এবং অবসের জীবন্ত কিংবদন্তী

স্বাধীনতা পদক ২০১৭ প্রাপ্ত অধ্যাপক ডা. টি এ চৌধুরীর সংক্ষিপ্ত জীবনী