১২ অক্টোবর, ২০১৯ ১০:৩০ পিএম
আপডেট: ১৩ অক্টোবর, ২০১৯ ০১:০৬ পিএম

এফসিপিএস ট্রেইনিদের ভাতা প্রদানের ঘোষণা বিসিপিএসের

এফসিপিএস ট্রেইনিদের ভাতা প্রদানের ঘোষণা বিসিপিএসের

মেডিভয়েস রিপোর্ট: এফসিপিএস ট্রেইনিদের ভাতা প্রদানের ঘোষণা দিয়েছে বাংলাদেশ কলেজ অব ফিজিশিয়ানস্ এন্ড সার্জনস (বিসিপিএস)। এ লক্ষ্যে অনারারী চিকিৎসকদের ভাতা প্রদানে জন্য বিসিপিএস কর্তৃক স্বীকৃত সরকারি বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে প্রশিক্ষণরতদেরকে অনারারি সচিব বরাবর আবেদন করতে বলা হয়েছে।

শনিবার (১২ অক্টোবর) বাংলাদেশ কলেজ অব ফিজিশিয়ানস্ এন্ড সার্জনস্ এর অনারারী সচিব অধ্যাপক আবুল বাসার মোহাম্মদ খুরশীদ আলম স্বাক্ষরিত এক বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, এফসিপিএস ১ম পর্ব পাস করা অবৈতনিক প্রশিক্ষণার্থীদের মধ্যে যারা বিসিপিএস কর্তৃক স্বীকৃত সরকারি বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে প্রশিক্ষণরত, তাদেরকে শর্ত সাপেক্ষে প্রতিমাসে ২০ হাজার টাকা করে প্রশিক্ষণ ভাতা প্রদান করা হবে। বিসিপিএস থেকে নির্ধারিত ফরম সংগ্রহ করে আগামী ৩০ অক্টোবরের মধ্যে বিসিপিএসের অনারারি সচিব বরাবর আবেদন করার জন্য অনুরোধ করা যাচ্ছে।

এছাড়াও বিজ্ঞপ্তিতে এ সংক্রান্ত নীতিমালা, আবেদন ফরম ও বিস্তারিত তথ্য জানার জন্য কলেজের ওয়েবসাইট ভিজিট করার জন্য বলা হয়েছে।

নীতিমালা:

১. এফসিপিএস ১ম পর্ব পাস করা বিসিপিএস কর্তৃক স্বীকৃত বিভিন্ন মেডিকেল প্রতিষ্ঠানে প্রশিক্ষণরত অবৈতনিক প্রশিক্ষণার্থীদেরকে এ ভাতা প্রদান করা হবে।

২. প্রতি মাসে প্রশিক্ষণার্থীকে ২০ হাজার টাকা করে প্রশিক্ষণ ভাতা প্রদান করা হবে।

৩. প্রশিক্ষণার্থীদেরকে ফেলোশীপ প্রোগ্রামের ৫ বছর/ পুরো প্রশিক্ষণকাল এ ভাতা প্রদান করা হবে। প্রশিক্ষণের কোন স্লট ৬ মাসের কম হবে না।

৪. জুলাই ২০১৯ সেশনে এফসিপিএস ১ম পর্ব পাস করা প্রশিক্ষণার্থীদের থেকে এ ভাতা প্রদান শুরু করা হবে। তবে সরকার থেকে প্রয়োজনীয় অর্থ বরাদ্দ পাওয়া গেলে অতীতে এফসিপিএস ১ম পর্ব পাশ করা প্রশিক্ষণার্থীদের ক্ষেত্রেও এ ভাতা প্রদানের বিষয়টি বিবেচনা করা হবে।

৫. বিসিপিএস কর্তৃক স্বীকৃত কোন প্রতিষ্ঠানে রোড ম্যাপ অনুযায়ী অবৈতনিক প্রশিক্ষণার্থীদেরকে পদায়ন করা হবে। তবে সে ক্ষেত্রে প্রশিক্ষণার্থীকে প্রতিষ্ঠান নির্বাচন করার সুযোগ দেয়া হবে।

৬. এ ভাতা গ্রহণকারীগণ অন্য কোথাও কোন প্রকার চাকরি/ ডিউটি/ প্র্যাকটিস করতে পারবে না। যদি কখনও তা প্রমাণ হয়, তাহলে সমুদয় টাকা ফেরৎসহ লব্ধ প্রশিক্ষণ বাতিল করা হবে।

৭. প্রতি স্লট যথাযথ প্রশিক্ষণ গ্রহণ করার নিশ্চয়তা প্রমাণপত্র ITMC/ প্রশিক্ষক/ হাসপাতাল পরিচালক/ সুপার/ সিভিল সার্জনের কাছ থেকে আনতে হবে। সন্তোষজনকভাবে প্রশিক্ষণ সমাপ্ত সাপেক্ষে প্রশিক্ষণ ভাতা প্রদান করা হবে।

৮. প্রতি মাসে বিসিপিএসের কোষাধ্যক্ষ ও অনারারী সচিবের স্বাক্ষরে চেক/ প্রশিক্ষণার্থীর ব্যক্তিগত অনলাইন ব্যাংক হিসাবের মাধ্যমে প্রশিক্ষণ ভাতা প্রদান করা হবে।

এর আগে গত ১৭ জুন (সোমবার) অনারারি চিকিৎসকদের ভাতা প্রদানে নীতিগত সিধান্ত নেয়া হয়েছে। এ বিষয়ে সরকার থেকে অর্থ বরাদ্দ করা হয়েছে বলে নিশ্চিত করেছিল চিকিৎসকদের ফেসবুক গ্রুপ প্লাটফর্ম।

অনারারি চিকিৎসকদের ভাতা প্রসঙ্গে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি ডা. কনক কান্তি বড়ুয়া মেডিভয়েসকে বলেন, “এটা খুবই গুরুত্বপূর্ণ একটি পদক্ষেপ। আমরা গত দুই বছর ধরে এটা নিয়ে কাজ করে আসছি। আমি যখন বিসিপিএস এর প্রেসিডেন্ট ছিলাম, তখন সেক্রেটারিসহ আরও অনেককে নিয়ে অনারারী ট্রেইনিদের ভাতার ব্যাপারে স্বাস্থ্য সচিবের সাথে বসেছিলাম। সেখানে তিনি এ ব্যাপারে একমত পোষণ করেছিলেন। পরবর্তীতে এটা নিয়ে বেশ কিছু বৈঠক হয়েছে। স্বাস্থ্য সচিবসহ সবাই এ বিষয়টির ব্যাপারে ইতিবাচক ধারণা পোষণ করেন। যদি অনারারি চিকিৎসকদের জন্য ভাতার ব্যবস্থা করা হয়, তাহলে তাদের দায়বদ্ধতা আরও বাড়বে এবং তাদের কাছ থেকে আরও সেবা পাওয়া যাবে। এমনকি এসব চিকিৎসকদের ঐকান্তিকতা ও উৎসাহ আরও বাড়বে।”

বিজ্ঞপ্তি ►ফরম-১ ►ফরম-২

  এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত