ডা. শরীফুল কবির সাব্বির

ডা. শরীফুল কবির সাব্বির


১৭ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ০৩:৪১ পিএম

ভিজিট রঙ্গ!

ভিজিট রঙ্গ!

ডাক্তারের চেম্বারে এক রোগীর আগমন। দেখে মনে হল বিরাট বড়লোক, কারণ পরনে তার দামী পায়জামা ও পাঞ্জাবী। সিরিয়াল নিয়ে ভিতরে ঢুকলেন। সালাম বিনিময় শেষে ডাক্তার সাহেবের পাশের সিটে গিয়ে বসলেন। শুরু হলো তাদের মধ্যে আলাপচারিতা।

ডাক্তার : আপনার কি কি সমস্যা চাচা?

রোগী : বাবা আমার অনেক সমস্যা!

ডাক্তার : আচ্ছা একটা একটা করে বলেন আমি শুনবো।

রোগী : দুইদিন ধইরা জ্বর, কাশি, সর্দি, মাজায় ব্যথা, ঘাড়ে ব্যথা, মাথা টনটন করে, জিব্বায় স্বাদ পাইনা, রাতে ঘুমই হয় না!

ডাক্তার : আর কোন সমস্যা নাই তো? ডায়াবেটিস বা প্রেশারের সমস্যা আছে আপনার?

রোগী : না না ঐসব কিচ্ছু নাই।

ডাক্তার : আচ্ছা তাহলে ঔষধ দিচ্ছি।

রোগী : বাবা আগে বলেন আপনার ভিজিট কত?

ডাক্তার : ৩০০ টাকা।

রোগী : (মনে মনে বললেন, এতো বেশি!) বাবা জিব্বার স্বাদের লাইগা, মাজার আর ঘাড়ের ব্যথার লাইগা, মাথার টনটনানির লাইগা ঔষধ দেয়া লাগবো না তার বদলে ১০০ টাকা কম রাইখো বাবা!

ডাক্তার : ঠিক আছে, একটু এগিয়ে আসেন আপনার প্রেশার ও নাড়ি পরীক্ষা করে দেখি ঠিক আছে কিনা।

রোগী : বাবা ঐসব পরীক্ষা না কইরা আরো ৫০ টাকা কম রাখা যায় না?

ডাক্তার : হুম যায় বাবা। তাহলে জ্বর, কাশি, সর্দি ও রাতের ঘুমের জন্য ঔষধ দিচ্ছি...

রোগী : বাবা জ্বর আমার হারা বছরই থায়ে। আর হজরের নামাজ হরি বইল্লা রাতে ঘুমাইতে গেলে জাগোনের টেনশন মাথাত থায়ে। কাশিডা ভালো হইলে সর্দিডাও ভালো হই যাইবো। তুমি খালি কাশির ঔষধ দাও। আরো ১০০ টাকা কম রাইক্ষো! 

ডাক্তার : (মনে মনে বললেন "তার মানে আমার ভিজিট দাঁড়াচ্ছে মাত্র ৫০ টাকা") আচ্ছা চাচা ঠিক আছে!

রোগী : বাবা আমার এই কাশিডা দুই তিন বছর ধইরা। অনেক ওসুদ খাইছি কিন্তু একেবারে ভালা হয় না। কোন ডাক্তার দেহান বাদ রাখছিনা। তোমার ওসুদে কতদূর কি হইবো আল্লাহ মালুম। কাশি ফুরাফুরি ভালা না হইলেও চইলবো। ভিজিটটা কি আর একটু কমান যায় না ?

ডাক্তার : চাচা এই নেন ভিক্স চকলেট, এটা চুষে চুষে খান আর বাড়িতে চলে যান। ভিজিট লাগবে না!!!

 

লেখক : শরীফুল কবির সাব্বির
ঢাকা মেডিকেল কলেজ

(মেডিভয়েস : সংখ্যা ৫, বর্ষ ২, জুন-জুলাই ২০১৫ তে প্রকাশিত)

  এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত
তুমি সবার প্রফেসর আবদুল্লাহ স্যার, আমার চির লোভহীন, চির সাধারণ বাবা
পিতাকে নিয়ে ছেলে সাদি আব্দুল্লাহ’র আবেগঘন লেখা

তুমি সবার প্রফেসর আবদুল্লাহ স্যার, আমার চির লোভহীন, চির সাধারণ বাবা

বেশিদিন ওমিপ্রাজল খেলে হাড় ক্ষয়ের ঝুঁকি বাড়ে 
কিডনি পাথরের ঝুঁকি বাড়ায় নিয়মিত অ্যান্টাসিড সেবন 

বেশিদিন ওমিপ্রাজল খেলে হাড় ক্ষয়ের ঝুঁকি বাড়ে 

ডাক্তার-নার্সদের অক্লান্ত পরিশ্রমের কথা মিডিয়ায় আসে না
জাতীয় হৃদরোগ ইন্সটিটিউটের সিসিউতে ভয়ানক কয়েক ঘন্টা

ডাক্তার-নার্সদের অক্লান্ত পরিশ্রমের কথা মিডিয়ায় আসে না