ডেলটা মেডিকেলে শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভ ও ক্লাস বর্জনের ডাক


মেডিভয়েস রিপোর্ট: রাজধানীর ডেলটা মেডিকেল কলেজে ১১ দফা দাবিতে ক্লাস বর্জন ও প্রধান শিক্ষকের অফিসে অবস্থান করে বিক্ষোভ করেছে শিক্ষার্থীরা। এসময় শিক্ষার্থীরা দাবি আদায় না হওয়া পর্যন্ত মেডিকেলের সকল একাডেমিক শাখার সকল বর্ষের সকল প্রকার একাডেমিক ক্লাস, পরীক্ষা ও ক্লিনিক্যাল প্লেসমেন্ট অনির্দিষ্টকালের জন্য বর্জনের ঘোষনা দেয়।

সোমবার (৯ সেপ্টেম্বর) সকালে তারা এ বিক্ষোভ কর্মসূচি পালন করে। এসময় তারা অধ্যক্ষ বরাবর স্মারকলিপি প্রদান করে। মেডিকেলের প্রথম বর্ষ থেকে ফাইনাল ইয়ার পর্যন্ত সব ছাত্র ছাত্রীদেরেই এ বিক্ষোভে অংশগ্রহন করতে দেখা যায়।

মেডিকেল কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, বৃহস্প্রতিবার সকাল ১১. ০০ টায় মিটিং করে এসব ব্যাপারে সিদ্ধান্ত জানানো হবে। 

শিক্ষার্থীরা জানান, আমরা ডেলটা মেডিকেল কলেজের ছাত্র ছাত্রীরা আমাদের একাডেমিক ও হাসপাতাল সংক্রান্ত বেশ কিছু সমস্যা দীর্ঘদিন যাবৎ প্রিন্সিপাল স্যারের কাছে উত্থাপন করে আসছি। বিভিন্ন পর্যায়ে আমাদের অসুবিধা ও ন্যায্য অধিকারগুলো আমাদের স্যারেরা জানেন এবং নীতিগত সমর্থন দিয়েছেন। তবু সমস্যাগুলোর কোন সমাধান মিলছে না। তাই বাধ্য হয়েই আমরা আন্দোলনে নামতে বাধ্য হয়েছি।

স্মারকলিপিতে উল্লেখিত তাদের দাবীসমূহ হলো-

১. ক্লিনিক্যাল ক্লাসের সংখ্যা বাড়াতে হবে এবং ব্যাবহারিক ক্লাসের পরিবেশ সৃষ্টি করতে হবে।

২. সকল ক্লিনিক্যাল প্লেসমেন্টের জন্য পৃথক ক্লাসরুমের ব্যবস্থা করে শিক্ষক স্বল্পতা দূর করতে হবে।

৩. সকল গ্যালারীর যথাযথ মানোন্নয়ন করে ক্লাস করার উপযোগী পরিবেশ সৃষ্টি করতে হবে।

৪. যাবতীয় চিকিৎসা বিনামূল্যে নিশ্চিত করতে হবে।

৫. ফ্রী বেড ও স্টুডেন্ট কেবিনের ব্যবস্থা করতে হবে।

৬. জনসাধারনের উপর নির্ধারিত ফি (২৫% সাধারণ ডিসকাউন্ট) এরপর ৪০% ডিসকাউন্ট প্রধান করতে হবে।

৭. স্টুডেন্ট, ইন্টার্ন, শিক্ষক এবং চিকিৎসকদের জন্য আলাদা ক্যান্টিন এবং সাথে সবার জন্য আলাদা আলাদা আসন ব্যাবস্থা করতে হবে।

৮. কলেজ ক্যাম্পসের সকল ওয়াশরুমের মানোন্নয়ন করতে হবে এবং ব্লাডব্যাংক, লাইব্রেরী ও ডেন্টাল ইউনিট সংলগ্ন সংরক্ষিত ওয়াশরুম স্টুডেন্টদের জন্য উন্মুক্ত করতে হবে।

৯. মেডিকেল কলেজ ছাত্র ছাত্রীদের জন্য সাপ্তাহিক সেমিনার, জার্নাল, পাব্লিকেশন্সসহ একটি সচল ডিবেটিং ক্লাব প্রতিষ্ঠা করতে হবে।

১০. একাডেমিক আউটডোর আ ইনডোরে শিক্ষার্থীদের প্রতি অসদাচরণ (ফ্যান বন্ধ করে দেওয়া, খারাপ ব্যাবহার করা) বন্ধ করতে হবে।

১১. উপরোক্ত দাবিসমূহ কোনরূপ কালক্ষেপন না করে যথাযত ব্যাবস্থার মাধ্যমে মেনে নিতে হবে।

এ ব্যাপারে ডেলটা মেডিকেল কলেজের অধ্যক্ষের সাথে যোগাযোগের চেষ্টা করা হলে তাকে পাওয়া যায়নি।