২৮ অগাস্ট, ২০১৯ ১০:০৮ এএম

ভারতীয় নকল সার্টিফিকেটে সকল রোগের ‘বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক’

ভারতীয় নকল সার্টিফিকেটে সকল রোগের ‘বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক’

মেডিভয়েস রিপোর্ট: নারায়ণগঞ্জে ‘বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক’ পরিচয়ে প্রতারণার দায়ে জহিরুল ইসলাম (৪৪) নামক এক ভুয়া চিকিৎসককে আটক করেছে র‌্যাব-১১। সিদ্ধিরগঞ্জের চিটাগাংরোড সংলগ্ন চাঁন সুপার মার্কেটে অবস্থিত কুমিল্লা ডায়াগনস্টিক কমপ্লেক্সে আল্ট্রাসনোগ্রাম রিপোর্ট তৈরি করার সময় তাকে হাতেনাতে আটক করা হয়।

জানা গেছে, তিনি ভারতীয় নকল এমবিবিএস/এএম সার্টিফিকেট কিনে জেনারেল প্র্যাকটিশনার হিসেবে রোগীদের সঙ্গে প্রতারণা করে আসছিল।

মঙ্গলবার (২৭ আগস্ট) বিকেলে অভিযান চালিয়ে তাকে আটক করা হয় বলে জানিয়েছেন র‌্যাব-১১ এর উপ-পরিচালক মেজর তালুকদার নাজমুছ সাকিব।

র‌্যাব জানায়, জিজ্ঞাসাবাদ ও প্রাথমিক অনুসন্ধানে জানা যায়, মো. জহিরুল ইসলামের বাড়ি কুমিল্লা জেলার ব্রাহ্মণপাড়া থানাধীন বেজোড়া এলাকায়। তিনি দীর্ঘদিন নিজেকে বিশেষজ্ঞ এমবিবিএস ডাক্তার পরিচয় দিয়ে কুমিল্লা ডায়াগনস্টিক কমপ্লেক্সে নিয়মিত রোগী দেখাসহ রোগীদের বিভিন্ন ডাক্তারি পরীক্ষা-নিরীক্ষা ও আল্ট্রাসনোগ্রাম রিপোর্ট তৈরি করে আসছে।

তিনি নিজেকে ডা. মো. জহিরুল ইসলাম, এমবিবিএস, পিজিটি (মেডিসিন এন্ড গাইনি), সিএমইউ (ডিইউ), ডিএমইউ (ডিইউ), (সনোলজিস্ট) মেডিসিন, মা, শিশু, চর্ম ও যৌন রোগের অভিজ্ঞ চিকিৎসক বলে দাবি করে আসছিলেন। আটকের পর র‌্যাব নিবন্ধনকৃত চিকিৎসক হিসেবে তার এমবিবিএস ডাক্তারি সনদ ও বিএমডিসি কর্তৃক রেজিস্ট্রেশন নম্বর দেখতে চাইলে তিনি কোনো কিছুই দেখাতে পারেনি।

জিজ্ঞাসাবাদে জহিরুল র‌্যাবকে জানান, তিনি মূলত মেডিকেল এ্যাসিসটেন্ট হিসেবে কাজ করতেন। ২০০৩ সালে পাঁচ লাখ টাকা দিয়ে একটি নকল ভারতীয় এমবিবিএস/এএম সার্টিফিকেট কিনে জেনারেল প্র্যাকটিশনার হিসেবে রোগীদের সঙ্গে প্রতারণা করে আসছিল।

র‌্যাব আরও জানায়, প্রতিষ্ঠানের মালিক প্রয়োজনীয় কাগজপত্র দেখাতে ব্যর্থ হলে ভ্রাম্যমাণ আদালত বসিয়ে প্রতিষ্ঠানটি সিলগালা করে দেওয়া হবে। ওই ভুয়া চিকিৎসকের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে।

করোনা ও বার্ধক্যজনিত অসুস্থতা

এক দিনে চিরবিদায় পাঁচ বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক

এক বছর প্রয়োগ হবে সেনা সদস্যদের দেহে

চীনে করোনার প্রথম ভ্যাকসিন অনুমোদন

  এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত
নিবন্ধনহীন ওষুধ লিখলে চিকিৎসকের শাস্তি
জাতীয় ওষুধনীতি-২০১৬’ এর খসড়ার নীতিগত অনুমোদন

নিবন্ধনহীন ওষুধ লিখলে চিকিৎসকের শাস্তি