ঢাকা      বুধবার ১৮, সেপ্টেম্বর ২০১৯ - ৩, আশ্বিন, ১৪২৬ - হিজরী

ঢাকা মেডিকেলে দফায় দফায় সংঘর্ষে আহত ২০

মেডিভয়েস রিপোর্ট: রিপোর্ট নেয়াকে কেন্দ্র করে ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে দুপক্ষের সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। রোববার দুপুর সাড়ে ১২টায় ঢামেকের নতুন ভবনের দ্বিতীয়তলার প্যাথলজি বিভাগে এ সংঘর্ষ হয় বলে দৈনিক যুগান্তরের খবরে বলা হয়েছে। 

দফায় দফায় চলা এ সংঘর্ষে কমপক্ষে ২০ জন আহত হয়েছেন। তাদের ঢামেক জরুরি বিভাগে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে।

সূত্রে জানা গেছে, রক্তের রিপোর্ট দিতে দেরি হওয়ার কারণে বাকবিতণ্ডার এক পর্যায়ে এ সংঘর্ষ বাঁধে।

ঢামেক জরুরি বিভাগে দায়িত্বরত ব্রাদার মো. রাসেল জানান, এক আত্মীয়ের রক্তের রিপোর্ট আনতে দুপুর সাড়ে ১২টায় তিনি প্যাথলজি বিভাগে যান। নিয়ম অনুযায়ী, তিনি সেখানে লাইনে দাঁড়িয়ে ছিলেন। অনেকক্ষণ লাইনে থাকার পরও রিপোর্ট না পেয়ে রিপোর্ট প্রদানকারী কর্মকর্তাকে দেরি হওয়ার কারণ জানতে চাই। ওই কর্মকর্তা তাকে জানান, আপনি ব্রাদার হলেই আপনার রিপোর্ট তাড়াতাড়ি দেব, এমন কোনো কথা আছে?

এ নিয়ে কথা কাটাকাটির একপর্যায়ে রিপোর্ট প্রদানকারী ওই ব্যক্তি ব্রাদার রাসেলের কলার ধরে মারধর করে। এ সময় আরও তিনজন এর প্রতিবাদ করলে বিষয়টি সংঘর্ষে রূপ নেয়।

 

বিষয়টি জানার পর পর ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল ডা. নাসির উদ্দিন ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে সংঘর্ষ থামান। সবার উদ্দেশে তিনি বলেন, এটা হাসপাতাল। মানুষ চিকিৎসার জন্য আসে, আপনারা সবাই শান্ত হোন। 

ঢামেকহা পরিচালক বলেন, ‘এটা কিভাবে হয়েছে, কেন হলো, কোন জায়গা থেকে হয়েছে, কার কতটুকু সম্পৃক্ততা আছে—এগুলো আমরা খুঁজে বের করবো। এবং এর সঙ্গে যাদের সম্পৃক্ততা প্রমাণিত হবে তাদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’

 

বিষয়টি নিয়ে পরে আলোচনা হবে বলে ঘটনাস্থল ত্যাগ করেন তিনি।

এদিকে প্যাথলজি বিভাগে তিনজন নার্সকে আটকে রেখে মারধর করা হচ্ছে—এমন গুজব হাসপাতালে ছড়িয়ে পড়ে।

এ খবরে অন্য নার্সরা মিছিল করে প্যাথলজি বিভাগে জড়ো হন। সে সময় প্যাথলজি বিভাগের গেট বন্ধ করে দেয়া হলেও ভেতরে দুপক্ষের মধ্যে আবারও সংঘর্ষ হয়।

ওই সংঘর্ষে প্যাথলজি বিভাগের বিভাগীয় প্রধান ডা. আজিজের ওপরও হামলা হয় বলে অভিযোগ এসেছে।

এ ব্যাপারে ডা. আজিজ বলেন, ‘আমি তাদের বোঝানোর চেষ্টা করি, একপর্যায়ে তারা আমার ওপর হামলা করে।’

প্যাথলজি বিভাগের একটি সূত্র জানায়, ঢাকা মেডিকেলে চতুর্থ শ্রেণি ও টেকনোলজিস্টদের মধ্যে হাতাহাতি-মারামারির ঘটনা ঘটেছে। এখানে রোগী বা বহিরাগত কারও সংযোগ নেই। বরং প্যাথলজি বিভাগে তাদের মারামারিতে সাধারণ রোগীরাও আহত হয়েছেন। এতে তাদের মধ্যে আতঙ্ক বিরাজ করছে।

ঘটনার সময় রোগী ও তদের স্বজনদের আতঙ্কে দিগ্বিদিগ ছোটাছুটি করতে দেখা গেছে।

সংবাদটি শেয়ার করুন:

 


ক্যাম্পাস বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বারডেমের অধীন সিসিডি কোর্সে ভর্তি বিজ্ঞপ্তি

বারডেমের অধীন সিসিডি কোর্সে ভর্তি বিজ্ঞপ্তি

মেডিভয়েস রিপোর্ট: জানুয়ারি-জুন ২০২০ সেশনে ডায়াবেটোলজি সার্টিফিকেট কোর্সের ভর্তির জন্য বিএমডিসির রেজিস্ট্রেশনপ্রাপ্ত…

বিএসএমএমইউ অধিভুক্ত কলেজে এমডি/এমএস ভর্তি পরীক্ষা ৮ নভেম্বর

বিএসএমএমইউ অধিভুক্ত কলেজে এমডি/এমএস ভর্তি পরীক্ষা ৮ নভেম্বর

মেডিভয়েস রিপোর্ট: বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় (বিএসএমএমইউ) এবং অধিভুক্ত মেডিকেল কলেজ/ডেন্টাল কলেজ…

“সিলেট মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় হবে আন্তর্জাতিক মানের”

“সিলেট মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় হবে আন্তর্জাতিক মানের”

মেডিভয়েস রিপোর্ট: সিলেট মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য মোর্শেদ আহমেদ চৌধুরী বলেছেন, সিলেট মেডিকেল…

রংপুর মেডিকেলের অধ্যক্ষসহ ৬ জনের বিরুদ্ধে মামলা

রংপুর মেডিকেলের অধ্যক্ষসহ ৬ জনের বিরুদ্ধে মামলা

মেডিভয়েস রিপোর্ট: ব্যবহার অনুপযোগী ও নিম্নমানের যন্ত্রপাতি সরবরাহের মাধ্যমে সরকারের চার কোটি…

ইসলামী ব্যাংক মেডিকেলের ফুটবল চ্যাম্পিয়ন ওয়ারিয়র’স-১৩

ইসলামী ব্যাংক মেডিকেলের ফুটবল চ্যাম্পিয়ন ওয়ারিয়র’স-১৩

মেডিভয়েস রিপোর্ট: রাজশাহী ইসলামী ব্যাংক মেডিকেল কলেজে ‘আন্তঃবর্ষ ফুটবল টুর্নামেন্ট-২০১৯’ চ্যাম্পিয়ন হয়েছে…

রাবি অধিভুক্ত মেডিকেলগুলোর ফাইনাল প্রফের ফল প্রকাশ

রাবি অধিভুক্ত মেডিকেলগুলোর ফাইনাল প্রফের ফল প্রকাশ

মেডিভয়েস রিপোর্ট: রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের (রাবি) অধিভুক্ত মেডিকেল কলেজগুলোর ২০১৯ সালের মে মাসে…

আরো সংবাদ
























জনপ্রিয় বিষয় সমূহ:

দুর্যোগ অধ্যাপক সায়েন্টিস্ট রিভিউ সাক্ষাৎকার মানসিক স্বাস্থ্য মেধাবী নিউরন বিএসএমএমইউ স্বাস্থ্যমন্ত্রী ঢামেক গবেষণা ফার্মাসিউটিক্যালস স্বাস্থ্য অধিদপ্তর