ঢাকা      বুধবার ১৮, সেপ্টেম্বর ২০১৯ - ৩, আশ্বিন, ১৪২৬ - হিজরী



ডা. সুরেশ তুলসান

সহকারী অধ্যাপক (সার্জারি), কুষ্টিয়া মেডিকেল কলেজ।


ডেঙ্গু নিয়ে ব্যবসা করার চেষ্টা করবেন না 

গুজবে কান দেয়া হুজুগে মনুষ্য জাতির এক সহজাত প্রবৃত্তি। এই সুযোগটাকেই কাজে লাগিয়ে কিছু নষ্ট অসৎ চরিত্রের অসাধু মানুষ যুগে যুগে নিজেদের সামান্য কিছু সুবিধা আর অর্থের লোভে জনমানুষের প্রভুত ক্ষতি সাধন করেছে। 

এবারও হয়তো চেষ্টা করেছিল। কিন্তু সরকারের সদিচ্ছার কারণে, ডেঙ্গু ব্যবস্থাপনায় কঠিন নজরদারি, সরকারি হাসপাতালসমূহে ডেঙ্গুর সব পরীক্ষা এবং চিকিৎসা বিনামূল্যে দেওয়া, বেসামরিক হাসপাতাল বা ডায়াগনস্টিক সেন্টারে রোগ নির্ণয় পরীক্ষার মূল্য সরকার কর্তৃক নির্ধারণ করে দেওয়ায় ডেঙ্গু পরীক্ষা এবং চিকিৎসার নামে যে বিশাল অংকের কালোবাজারি বাণিজ্য হওয়ার কথা ছিল তা কিন্তু হয়নি।

ডেঙ্গু টেস্ট কিট নিয়ে কেউ বাণিজ্য করবে, সেই আশাতেও গুড়েবালি। ঔষধ প্রশাসন অধিদপ্তর ডেঙ্গু টেস্ট কিট সরবরাহের উদ্দেশ্যে কন্ট্রোল রুম খুলেছে। সরকারি-বেসরকারি সকল হাসপাতাল বা ডায়াগনস্টিক সেন্টারগুলো ২৪ ঘন্টা সেখানে ফোন করে সমাধান পেতে পারে। 

যদিও মশা নিবারক বিভিন্ন পণ্যের (যেমন ক্রীম, লোশন, লিকুইড, কয়েল, স্প্রে মশারি ইত্যাদির) চাহিদা বৃদ্ধির সাথে সাথে দাম কিছুটা বেড়েছে বাজার অর্থনীতির নিয়মে। 

তারপরও কিন্তু কিছু কিছু  দুষ্টচক্র থেমে নেই। 
সোশ্যাল মিডিয়ায় একটা বিজ্ঞাপন দেখে মনে মনে বেশ ধাক্কাই না খেলাম। 
ডেঙ্গু প্রতিরোধী রংবেরঙের ব্রেসলেট ! 
এই ব্রেসলেট পড়লে নাকি এডিস মশা কামড়াবে না এবং ডেঙ্গু হবে না!!  
প্রতিটির মূল্য ৫০০ টাকা। 

আমার মনে হয়, এই ব্রেসলেট বা এই ধরনের চিকিৎসা সামগ্রী সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ কর্তৃক পরীক্ষিত কিনা এবং দেশে বাজারজাতকরনের অনুমোদন আছে কি না তা যাচাই করা উচিৎ।  তা না থাকলে এদেরকে গ্রেফতার করে শীঘ্রই  আইনের আওতায় আনা উচিৎ।
 
কোন একটি রোগীর শুধুমাত্র ৫০০ টাকার ক্ষতি হলে আমার বলার তেমন কিছু ছিল না, কিন্তু বিষয়টি হলো কেউ যদি এধরনের ব্রেসলেটের ওপর ভরসা করে যদি ব্রেসলেট ব্যবহার এবং আধুনিক চিকিৎসা না নেয়, তাহলে তার বিনা চিকিৎসায় মারা যাওয়ার আশংকা রয়েছে।

এই ডেঙ্গুকে কিন্তু আমরা মোটেও সহজভাবে নিচ্ছি না। আমাদের অপ্রতুল সামর্থ্যের মধ্যেও সরকারি এবং বেসরকারিসহ সকল মহলের প্রচেষ্টা কিন্তু সত্যিই চোখে পড়ার মত প্রশংসাযোগ্য। 

সেই সাথে আমাদের সজাগ থাকতে হবে যেন কোন মহলের কোন অপচেষ্টাই যেন আমাদের পথে বাধা হয়ে না দাঁড়ায়। 

ডেঙ্গু নিয়ে কোন মহলই যে কোন প্রকার ব্যাবসা বা ধান্দা করতে না পারে।

ডেঙ্গু নিয়ে যাদের একটু হলেও ব্যবসা করার ইচ্ছে আছে তাদের প্রতি সাবধান বাণী হলো সুযোগ পেলে কিন্তু ডেঙ্গু আপনাকে বা আপনার পরিবারকেও ছাড়বে না। সুতরাং "সাধু সাবধান"।

সংবাদটি শেয়ার করুন:

 


সম্পাদকীয় বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

ডিপ্রেশন থেকে আত্মহত্যা: করণীয় ও চিকিৎসা

ডিপ্রেশন থেকে আত্মহত্যা: করণীয় ও চিকিৎসা

ডিপ্রেশন একটি ভয়াবহ মানসিক ব্যাধি যা একজন মানুষকে সবার অজান্তে তিলে তিলে…

আরো সংবাদ
























জনপ্রিয় বিষয় সমূহ:

দুর্যোগ অধ্যাপক সায়েন্টিস্ট রিভিউ সাক্ষাৎকার মানসিক স্বাস্থ্য মেধাবী নিউরন বিএসএমএমইউ স্বাস্থ্যমন্ত্রী ঢামেক গবেষণা ফার্মাসিউটিক্যালস স্বাস্থ্য অধিদপ্তর