১১ অগাস্ট, ২০১৯ ১০:৫০ এএম

২৪ ঘণ্টায় বিএসএমএমইউয়ে ডেঙ্গুতে আক্রান্ত রোগী ১৮০ জন

২৪ ঘণ্টায় বিএসএমএমইউয়ে ডেঙ্গুতে আক্রান্ত রোগী ১৮০ জন

মেডিভয়েস রিপোর্ট: ডেঙ্গুর প্রকোপ এখন শহর থেকে ছড়িয়েছে গ্রাম পর্যন্ত। সারাদেশে একমাত্র আতঙ্কের বিষয়ে পরিণত হয়েছে ডেঙ্গু। ঢাকার হাসপাতাল গুলোয় ক্রমেই রোগীর সংখ্যা বাড়ছে। গত ২৪ ঘন্টায় বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ে (বিএসএমএমইউ) ডেঙ্গুতে আক্রান্ত ভর্তি রোগীর সংখ্যা ১৮০ জন। এদের মধ্যে ডেঙ্গু সেলে নতুন ভর্তি ৩০ জন। এছাড়াও পূর্বের ভর্তিকৃত রোগী রয়েছেন ১৫০ জন।

রোববার (১১ আগস্ট) বিএসএমএমইউয়ের সেকশন অফিসার (জনসংযোগ ) প্রশান্ত কুমার মজুমদার মেডিভয়েসকে এ তথ্য জানিয়েছেন।

জানা গেছে, সবমিলিয়ে চলতি বছর এ পর্যন্ত বহির্বিভাগে ৫১৪৫ জন ডেঙ্গু রোগী সেবা নিয়েছেন। এছাড়াও গত ২৭ আগস্ট থেকে ১০ আগস্ট (শনিবার) সকাল ৮টা পর্যন্ত ডেঙ্গু চিকিৎসা সেলে ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হয়ে ৫৬৮ রোগী ভর্তি হয়েছেন। এদের মধ্যে সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরে গেছেন ৩৮৬ জন। মেডিসিন ওয়ার্ড, শিশু ওয়ার্ড, ডেঙ্গু চিকিৎসা সেল, কেবিন, আইসিইউ ও এসডিইউতে এসকল রোগী ভর্তি আছেন।

প্রশান্ত কুমার মজুমদার বলেন, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের মেডিসিন বহির্বিভাগে বর্তমানে দৈনিক গড়ে প্রায় ৩০০ জন জ্বরের রোগী সেবা নিচ্ছেন। এসকল রোগীর প্রায় ৩০ শতাংশ ডেঙ্গু জ্বরে আক্রান্ত। বর্তমানে আইসিইউতে ১ জন এবং এইচডিইউতে ৩ জন রোগী ভর্তি আছেন। মাননীয় উপাচার্য অধ্যাপক ডা. কনক কান্তি বড়ুয়া ডেঙ্গু রোগীদের চিকিৎসার বিষয়ে সার্বক্ষণিক খোঁজ-খবর রাখছেন।

তিনি আরও বলেন, ডেঙ্গু রোগীদের চিকিৎসা সেবা নিশ্চিত করতে শয্যা সংখ্যা ১৫০ থেকে ২০০ শয্যায় উন্নীত করা হয়েছে। ডেঙ্গু সেলের মাধ্যমে ভর্তিকৃত রোগীদের পরীক্ষা-নিরীক্ষা, ওষুধ, স্টেশনারিসহ চিকিৎসাসেবা, বেড ভাড়া এমনকি আইসিইউ এবং এইচডিইউ সেবাও বিনামূল্যে দেয়া হচ্ছে। এছাড়াও ডেঙ্গু সেলে আসা রোগীদের প্রাথমিকভাবে সিবিসি, এনএস১, আইজিএম, আইজিএম ও আইজিজি বিনামূল্যে করা হচ্ছে।

ঈদের ছুটির মাঝেও ডেঙ্গু চিকিৎসাসেবা সেল খোলা থাকবে উল্লেখ করে তিনি বলেন, পবিত্র ঈদুল আযহার পরদিন ১৩ আগস্ট থেকে বহির্বিভাগ খোলা থাকবে। ১৪ আগস্টও বহির্বিভাগ খোলা থাকবে। আর ১৫ আগস্ট জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৪তম শাহাদাৎ বার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে বহির্বিভাগে সকাল ৯টা থেকে বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকবৃন্দ বিনামূল্যে চিকিৎসাসেবা প্রদান করবেন।

এদিকে, বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ডা. কনক কান্তি বড়ুয়া ১০ আগস্ট (শনিবার) সকালে বহির্বিভাগ ১ ও ২, কেবিন ব্লকের ১ম ও ২য় তলার ডেঙ্গু সেলের চিকিৎসাসেবা কার্যক্রম পরির্শন করেন। এসময় তিনি রোগীদের মাথায় হাত বুলিয়ে দেন এবং তাঁদের চিকিৎসার খোঁজ-খবর নেন ও প্রয়োজনীয় নির্দেশনা প্রদান করেন।

এসময় উপস্থিত ছিলেন উপ-উপাচার্য (গবেষণা ও উন্নয়ন) অধ্যাপক ডা. মো. শহীদুল্লাহ সিকদার, উপ-উপাচার্য (প্রশাসন) অধ্যাপক ডা. মুহাম্মদ রফিকুল আলম, নার্সিং অনুষদের ডীন অধ্যাপক ডা. মো. মনিরুজ্জামান খান, রেজিস্ট্রার অধ্যাপক ডা. এ বিএম আব্দুল হান্নান, প্রক্টর অধ্যাপক ডা. সৈয়দ মোজাফফর আহমেদ, পরিচালক (হাসপাতাল) ব্রিগেডিয়ার জেনারেল ডা. এ কে মাহবুবুল হক প্রমুখ।

  এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত