০৯ অগাস্ট, ২০১৯ ০৩:১৯ এএম

ডেঙ্গু আমাদের চরম শিক্ষা দিয়েছে: নাসিম

ডেঙ্গু আমাদের চরম শিক্ষা দিয়েছে: নাসিম

মেডিভয়েস রিপোর্ট: সাবেক স্বাস্থ্যমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম বলেছেন, এবার ডেঙ্গু আমাদের চরম শিক্ষা দিয়েছে। সমগ্র জাতিকে নাড়া দিয়েছে। তাই এটাকে নিয়ে রাজনীতি না করে আসুন, সবাই মিলে এডিস মশার উৎসস্থল ধ্বংস করি। ঘরবাড়ি, দোকানপাট, অফিস-আদালত পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন রাখি। দেশজুড়ে ছড়িয়ে পড়া ডেঙ্গু রোগের প্রকোপকে জাতীয় সমস্যা বিবেচনা করে আগামী একবছর ডেঙ্গু প্রতিরোধী অভিযানঅব্যাহত রাখার ওপর গুরুত্বারোপ করেন তিনি।

বৃহস্পতিবার বঙ্গবন্ধু এভিনিউয়ে জাসদ কার্যালয়ের সামনে ১৪ দলের উদ্যোগে ডেঙ্গু প্রতিরোধে জনসচেতনামূলক কর্মসূচি উদ্বোধনকালে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

আওয়ামী লীগ প্রেসিডিয়াম সদস্য ও খাদ্য মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি মোহাম্মদ নাসিম এমপি বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে আমরা ডেঙ্গুমুক্ত বাংলাদেশ গড়তেও আমরা সফল হবো। আগামী এক বছর স্থানীয় সরকার মন্ত্রী, স্বাস্থ্যমন্ত্রী ও দুই সিটি কর্পোরেশনকে সমন্বিতভাবে ডেঙ্গুমুক্ত বাংলাদেশ গড়ার পদক্ষেপ গ্রহণ করার জন্য তিনি আহ্বান জানান।

পরে বঙ্গবন্ধু এভিনিউ এলাকায় শেখ হাসিনার নির্দেশ, ডেঙ্গুমুক্ত বাংলাদেশ, পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন অব্যাহত রাখুন, ডেঙ্গুমুক্ত বাংলাদেশ গড়ে তুলুন, ডেঙ্গুমুক্ত বাংলাদেশ গড়তে সবাই এগিয়ে আসুন-এমন স্লোগান সম্বলিত লিফলেট বিতরণ এবং মশার স্প্রে করেন। মোহাম্মদ নাসিম বলেন, আমাদের এখন কাজ হবে ঢাকাসহ সারাদেশে ডেঙ্গুমুক্ত করতে কাজ করা, ডেঙ্গু বিরোধী অভিযান বছরব্যাপী অব্যাহত রাখা, এডিস মশার বিস্তার রোধে কাজ করা।

মোহাম্মদ নাসিম বলেন, আমরা কেন কী কারণে মরণব্যাধি ডেঙ্গু নির্মূল করতে পারবো না? যেকোন মূল্যে রাজধানীসহ সারাদেশ পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন রাখতে হবে। দেশের মানুষ যদি ঐক্যবদ্ধভাবে এগিয়ে আসে তাহলে অবশ্যই আমরা ডেঙ্গুমুক্ত করতে পারবো। এখন থেকে এডিস মশার উৎসগুলো ধ্বংস করবো- এই হোক আজকের দিনে আমাদের অঙ্গীকার।

ওয়ার্কার্স পার্টির সভাপতি রাশেদ খান মেনন এমপি বলেন, এক সময় যারা ডেঙ্গুকে গুজব বলা হয়েছিল। এখন তারাই বলছে ডেঙ্গু ভয়ঙ্কর আকার ধারণ করেছে। সময়ের কাজ সময় মতো করতে পারলে জনগণকে এত দুর্ভোগ পোহাতে হতো না।

সভাপতির বক্তৃতায় জাসদের সভাপতি হাসানুল হক ইনু বলেন, এখন মূল কাজ ডেঙ্গু আস্তানা ধ্বংস করা, ডেঙ্গুর বিস্তার রোধ করা। এক্ষেত্রে কারো কোন অজুহাত, ব্যর্থতা বা গাফিলতি দেখতে চাই না।

অনুষ্ঠানে আরো বক্তব্য রাখেন সাম্যবাদী দলের সাধারণ সম্পাদক দিলীপ বড়ুয়া, আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী সংসদের সদস্য ও সাবেক মন্ত্রী মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী মায়া বীরবিক্রম, জাসদের সাধারণ সম্পাদক শিরীন আক্তার, গণতন্ত্রী পার্টির সাধারণ সম্পাদক ডা. শাহাদাত হোসেন, জাতীয় পার্টির (জেপি) প্রেসিডিয়াম সদস্য এজাজ আহমেদ মুক্তা, কমিউনিস্ট কেন্দ্রের ডা. অসিত বরণ রায়, বাসদের রেজাউর রশীদ খান, গণআজাদী লীগের সভাপতি এসকে শিকদার, সাধারণ সম্পাদক আতাউল্লাহ খান প্রমুখ।

  এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত