বিদ্যুতের ছেঁড়া তারে প্রাণ গেল চিকিৎসকের 


মেডিভয়েস রিপোর্ট: বৃষ্টির পানিতে সৃষ্ট জলাবদ্ধতায় পড়ে থাকা বৈদ্যুতিক ছেঁড়া তারে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে মারা গেছেন পলাশ দে নামের একজন চিকিৎসক। বৃহস্পতিবার বিকেলে রাজধানীর কলাবাগানের গ্রিনরোডে এ ঘটনা ঘটে। 

ডা. পলাশ সিরাজগঞ্জের শাহজাদপুর উপজেলার পৌরসভার ৫ নম্বর ওয়ার্ডের প্রাণনাথপুর পালপাড়া গ্রামের গোপাল দের ছেলে।

নিহত পলাশের ছোট ভাই তুষার দে ও কাকা বাসু দে জানান, পলাশ ২ বছর আগে বগুড়া শহীদ জিয়া মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল থেকে এমবিবিএস পাস করেন। পরে তিনি ঢাকার কলাবাগানের গ্রীন রোডের গ্রীন লাইফ হাসপাতালে চাকরিতে যোগদান করেন।

এখানে পার্টটাইম চাকরির পাশাপাশি তিনি একটি কোচিং সেন্টারে বিসিএস পরীক্ষার জন্য প্রস্তুতি নিচ্ছিলেন। তিনি থাকতেন মোহাম্মদপুরের নবোদয় হাউজিংয়ের ৬ নম্বর রোডের ১৪ নম্বর বাসায়। এ দিন বিকাল চারটার দিকে তিনি বাসা থেকে বের হয়ে গ্রীনরোডের গ্রীন লাইফ হাসপাতালে তার কর্মস্থলে যাচ্ছিলেন।

এ সময় তিনি গ্রীনরোডে জমে থাকা বৃষ্টির পানি ভেঙে অফিসে যাওয়ার চেষ্টা করেন তিনি। কিন্তু তিনি ওই পানিতে পড়ে থাকা বৈদ্যুতিক ছেঁড়া তারের সংস্পর্শে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হন। তাকে স্থানীয়রা সংজ্ঞাহীন অবস্থায় উদ্ধার করে নিকটস্থ ক্রিসেন্ট গ্যাস্ট্রোলিভার হাসপাতালে নিলে সেখানকার কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

পলাশ দে সিরাজগঞ্জের শাহজাদপুর পাইলট উচ্চ বিদ্যালয় থেকে এসএসসি ও রাজধানীর নটরডেম কলেজ থেকে এইচএসসি পাস করেন। পরে বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজে ভর্তি হন। 

পরে বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজে ভর্তি হন। ডা. পলাশ দে ২০১১-১২ সেশনের শিক্ষার্থী ছিলেন। গত বছর একই মেডিকেল কলেজ থেকে ইন্টার্নশিপ শেষ করেন তিনি। 

ডা. পলাশ দের ফেসবুক টাইমলাইনে গিয়ে দেখা যায়, ‘এই ছুটির কয়টা দিন বৃষ্টি দিও না করুণাময়। তাহলে ঈদের পর মহামারী হয়ে যেতে পারে।হসপিটালগুলো ভর্তি একদম। এই পরিষ্কার অমৃত সদৃশ জল মৃত্যু ডেকে আনতে পারে বহু মানুষের’। 

এদিকে তার মৃত্যুর খবর চিকিৎসক সমাজে শোকের ছায়া নেমে এসেছে।

ডা. পলাশ দের মৃত্যুর খবর দিয়ে স্বাস্থ্য বিষয়ক অনলাইন টিভি চ্যানেল রাজ টিভির মিডিয়া ও কমিউনিকেশন প্রধান রিফাত বিন রহমান নাঈম বলেন, ‘ডা. পলাশ দে, ২০১১-১২ সেশন, শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ, একটু আগে গ্রিনরোডে বৃষ্টির জমে থাকা পানিতে থাকা ইলেক্ট্রিক তারের সঙ্গে লেগে ইলেক্ট্রাকিউটেড হয়ে মারা গেছেন। বৃষ্টির সময় রাস্তা পারাপারে সাবধান থাকবেন দয়া করে।’

এ মৃত্যুর ঘটনায় শোক জানিয়েছেন চিকিৎসকদের অন্যতম সংগঠন ফাউন্ডেশন ফর ডক্টরস সেফটি অ্যান্ড রাইটসের (এফডিএসআর) চেয়ারম্যান অধ্যাপক ডা. আবুল হাসনাত মিল্টন।

‘শোক সংবাদ—এই মৃত্যুর দায় কার?’ শিরোনামে নিজের ফেসবুক টাইমলাইনে তিনি বলেন, ‘চোখের সামনে এ রকম একটা তাজা প্রাণ চলে যেতে দেখা, খুব বেশি কষ্টকর। ওর জন্য দোয়া করবেন, আর সবাই একটু সাবধানে থাকবেন—প্লিজ।

ডা. পলাশ দের মৃত্যুতে মেডিভয়েস পরিবার শোকাহত।