অধ্যাপক ডা. শুভাগত চৌধুরী

অধ্যাপক ডা. শুভাগত চৌধুরী

লেখক, অধ্যাপক ডা. শুভাগত চৌধুরী।


০৬ অগাস্ট, ২০১৯ ০১:২৪ পিএম

ডায়াবেটিক রোগীর ভ্রমণকালীন সতর্কতা ও কিছু করণীয়

ডায়াবেটিক রোগীর ভ্রমণকালীন সতর্কতা ও কিছু করণীয়

ভ্রমণ করতে কে না ভালবাসে- হোক তা দেশে বা বিদেশে। ইট-কাঠ-পাথরের জঞ্জালে ভরা এই শহুরে রোবটিক জীবনের প্রতি বীতশ্রদ্ধ হয়ে হোক আর প্রকৃতির প্রতি রোমান্টিকতা থেকেই হোক, ভ্রমণের প্রতি আকাঙ্ক্ষা কমবেশি সবারই থাকে। হয়ত সময়, সুযোগ কিংবা শারীরিক সক্ষমতার কারণে সবার সেই আকাঙ্ক্ষা পূরণ করা হয়ে উঠে না। শারীরিক সক্ষমতার দিক থেকে সবচেয়ে বড় বাঁধা হয়ে দাঁড়ায় ডায়াবেটিস রোগীদের জন্য।

ডায়াবেটিস আছে—তাই বলে কি ভ্রমণ করবেন না? অবশ্যই ভ্রমণ করবেন। তবে ডায়াবেটিক রোগীর ভ্রমণকালীন সতর্কতা নিয়ে রয়েছে কিছু দিকনির্দেশনা। এগুলো মেনে চললে আপনার ভ্রমণে ডায়াবেটিস কোন বাঁধা নয়। সুতরাং ভ্রমণের অন্তত চার সপ্তাহ আগে চিকিৎসকের সঙ্গে দেখা করুন। প্রয়োজনীয় পরীক্ষা-নিরীক্ষা সেরে নিন। সম্ভব হলে চিকিৎসককে আপনার ভ্রমণবৃত্তান্ত জানান।

ভ্রমণের পূর্বে ডায়াবেটিস রোগীর করণীয়:

১. ভ্রমনের আগে চেক আপ করান। এআইসি, রক্ত সুগার, রক্ত চাপ, কোলেস্টেরল মান ঠিক আছে নিশ্চিত হন। প্রয়োজনে যথাযথ টীকা নিন দেশ বিশেষে।

২. ডায়াবেটিস মেডিকেল আইডি পরে নিন। ডাক্তারের ব্যবস্থা পত্র নিন।

৩. ওষুধ এবং গ্লুকোজ স্নাক্স নিবেন হাতের লাগেজে। চেক ইন বাগাজে দিলে অনেক সময় হারাবার ঝুঁকি থাকে।

৪. ওষুধ নিবেন মূল বাক্সে এবং ফার্মেসি ল্যাবেল যাতে ওষুধের ব্যপারে ভূল বুঝা-বুঝি না হয়।

৫. সময় ও অঞ্চলের ব্যপারে সতর্ক থাকুন। পূর্বে ভ্রমন করলে দিন হ্রাস হয়। পশ্চিমে গেলে হয় দীর্ঘ। ওষুধ সেবন সে অনুযায়ী করতে হবে।

সর্বোপরি আপনার ভ্রমন যেন আনন্দের হয়। মনে রাখবেন, পূর্ব পরিকল্পনা করলে ডায়াবেটিক রোগে কোন সমস্যা হয়না।

  এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত