১০ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ০১:৫৫ পিএম

এইচ আই ভি সংক্রমন ও এইডস : মৃত্যু নয় একটিও আর 

এইচ আই ভি সংক্রমন ও এইডস : মৃত্যু নয় একটিও আর 

এইডসের ভয়াবহতা ও এর প্রতিকার সম্পর্কে বিশ^ব্যাপী গণসচেতনতা সৃষ্টির উদ্দেশ্যে ১৯৮৮ সালে গঠন করা হয় আন্তর্জাতিক এইডস সোসাইটি এবং সে বছরই ১ ডিসেম্বরকে বিশ^ এইডস দিবস হিসেবে ঘোষণা করা হয়। প্রতিবছর এ দিনটিতে এইডস সচেতনতার  প্রতীক “লাল রিবন” এ ছেয়ে যায় পৃথিবীর প্রতিটি নগরী।

প্রতিবারের মত এবারও ১ ডিসেম্বর ২০১৪ সোমবার বিভিন্ন কর্মসূচির মধ্য দিয়ে পালিত হয়েছে এইডস দিবস। এ বছরের প্রতিপাদ্য “এইচ আই ভি সংক্রমন ও এইডস, মৃত্যু নয় একটিও আর; বৈষম্যহীন পৃথিবী গড়বো সবাই, এই আমাদের অঙ্গীকার।” দিবসটি উপলক্ষে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ^বিদ্যালয়ের প্রসূতি ও ধাত্রীবিদ্যা বিভাগ বর্ণাাঢ্য পদযাত্রার আয়োজন করেছে। টি-শার্ট, লিফলেট ও পোষ্টার বিতরণের মাধ্যমে এক র‌্যালি সকাল ৮:৩০ ঘটিকায় বি এস এম এম ইউ এর বটমুল থেকে শুরু হয়ে এর নবনির্মিত বহির্বিভাগে এসে শেষ হয়। র‌্যালিটি উদ্ধোধন করেন বি এস এম এম ইউ এর ভাইস চ্যান্সেলর অধ্যাপক প্রাণ গোপাল দত্ত। তিনি বলেন, সারা বিশে^র শিশু মৃত্যুর অন্যতম প্রতিরোধ্য একটি কারণ হল এইচ আই ভি সংক্রমণ।

উল্লেখ্য স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের তথ্য মতে, ২০১৩ সালের ৩০ নভেম্বর পর্যন্ত দেশে ১২৯৯ জন এইডস রোগী  সনাক্ত হয়েছে। শুধু ২০১৩ সালেই এইচ আই ভি তে আক্রান্ত হয়ে মারা গেছে ৮২ জন নারী-পুরুষ।

১৪ নভেম্বরঃ বিশ^ ডায়াবেটিক দিবস 

ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণের বহুবিধ প্রচেষ্টার মাঝে ইনসুলিন আবিষ্কার ছিল এক বৈপ্লবিক ঘটনা। ডা. ফ্রেডেরিক ব্যান্টিং ও তার সহকর্মী চার্লস বেন্ট ইনসুলিন আবিস্কার করেন ১৯২১ সালে। ব্যান্টিং এর যুগান্তকারী ভূমিকার কথা স্মরণ করে তার জন্ম দিন তথা ১৪ নভেম্বরকে সর্বসম্মতিক্রমে বিশ^ ডায়াবেটিস দিবস হিসেবে পালন করা হয়। 

স্বাস্থ্যসম্মত খাবার শুরু হোক সকালের নাস্তা থেকেই- এ স্লোগানকে সামনে রেখে  গত ১৪ নভেম্বর ২০১৪ শুক্রবার বিশ^ ডায়াবেটিস দিবস পালিত হয়েছে। দিবস উপলক্ষে শুক্রবার সকাল ৮.০০ টায় বাংলাদেশ ডায়াবেটিক সমিতি ও সানোফি বাংলাদেশ এর যৌথ উদ্যোগে রাজধানীর মানিক মিঞা এভিনিউ থেকে এক বর্ণাঢ্য র‌্যালি বের করা হয় যা শাহবাগে এসে সকাল ৯.৩০ এ শেষ হয়। এ দিনটিতে ঢাকার বিভিন্ন পয়েন্টে বিনামূল্যে রক্তের গ্লুকোজ মাত্রা নির্ণয়ের আয়োজন করা হয়। উল্লেখ্য IDF এর তথ্য মতে বর্তমান বিশে^ ৩৮২ মিলিয়ন মানুষ ডায়াবেটিসে আক্রান্ত। বাংলাদেশে প্রতি ১৮ জনে প্রাপ্তবয়স্ক ব্যাক্তির মধ্যে অন্তত একজন এতে আক্রান্ত হচ্ছে।

“মানবাধিকার সুরক্ষিত থাকুক ৩৬৫ দিনই”

২য় বিশ^ যুদ্ধের পর জাতিতে জাতিতে বিভেদ দূর করতে এবং মানুষকে তার অধিকারগুলো সম্পর্কে অবহিত করার জন্য ১৯৪৮ সাল থেকে জাতিসংঘের সাধারণ পরিষদ কর্তৃক ১০ ডিসেম্বর বিশ^ব্যাপী উদযাপিত হয় আন্তর্জাতিক মানবাধিকার দিবস। গত ১০ ডিসেম্বর ২০১৪ বুধবার পালিত ৬৬ তম সার্বজনীন মানবাধিকার দিবসের প্রতিপাদ্য বিষয় Human Rights 365 অর্থাৎ বছরের ৩৬৫ দিনই মানবাধিকারের। গত ১০ ডিসেম্বর সকাল ১০ টায় জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে আইন সহায়তা ফাউন্ডেশন, বাংলাদেশ মানবাধিকার ব্যুরো, এশীয় ছিন্নমূল মানবাধিকার বাস্তবায়ন ফাউন্ডেশন, সবার তরে আমরা ফাউন্ডেশন (ঝঞঋ), জনকল্যান সমিতি (বাস্তুহারা), বাংলাদেশ মানবাধিকার ফাউন্ডেশন সংগঠনগুলোর নেতারা দেশে মানবাধিকার বর্তমান পরিস্থিতি, মানবাধিকার বাস্তবায়নের পথে অন্তরায়, সরকারের ভূমিকা এবং সাধারন মানুষের করণীয় নিয়ে আলোচনা করেন। এতে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ মানবাধিকার ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যান অধ্যাপক ডা. আব্দুর রহিম খান, মহাসচিব এডভোকেট কামাল হোসেন, জনকল্যান সমিতি সভাপতি মো. হারুনুর রশিদ, সবার তরে ফাউন্ডেশনের নির্বাহী পরিচালক মনিরা বেগম প্রমুখ।
লেখাটি মেডিভয়েস চতুর্থ সংখ্যায় প্রকাশিত

  এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত