ঢাকা      মঙ্গলবার ২০, অগাস্ট ২০১৯ - ৫, ভাদ্র, ১৪২৬ - হিজরী

ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়ে রোগী ভর্তিতে হাসপাতালগুলোয় রেকর্ড

মেডিভয়েস রিপোর্ট: ডেঙ্গু রোগে আক্রান্ত হয়ে দেশের সরকারি-বেসরকারি হাসপাতালগুলোতে ভর্তি হয়েছেন রেকর্ড সংখ্যক রোগী। রাজধানীতে গত ২৪ ঘণ্টায় ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হন ১৭১ জন। বর্তমানে বিভিন্ন হাসপাতালে চিকিৎসাধীন এক হাজার ২২ জন। চলতি মাসের ১-১৬ জুলাই মঙ্গলবার বিকাল পর্যন্ত ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়ে দুই হাজার ৭৬৭ জন হাসপাতালে চিকিৎসা নেন। চলতি মাসে ডেঙ্গু জ্বরে আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ভর্তির সংখ্যা যথাক্রমে ১২৪, ১২৮, ১২৪, ১৪৮, ১১৩, ১৮৬, ১৫০, ১৭৫, ১৭৪, ২২৭, ১৯১, ১৬৫, ১৮৮, ১৫৯, ২১৪ ও ১৭১ জন।

বোধবার (১৭ জুলাই) স্বাস্থ্য অধিদফতরের হেলথ ইমার্জেন্সি অপারেশন সেন্টার ও কন্ট্রোল রুমের সহকারী পরিচালক ডা. আয়শা আক্তার এসব তথ্য জানান।

কন্ট্রোলরুমের তথ্যানুযায়ী, কন্ট্রোলরুমের তথ্যানুযায়ী, চলতি বছরের ১ জানুয়ারি থেকে গতকাল মঙ্গলবার বিকাল ৫টা পর্যন্ত চার হাজার ৮৫০ জন ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হয়ে বিভিন্ন সরকারি-বেসরকারি হাসপাতালে চিকিৎসা নেন। এর মধ্যে জানুয়ারি মাসে ৩৮ জন, ফেব্রুয়ারিতে ১৮, মার্চে ১৭, এপ্রিলে ৫৮, মে মাসে ১৯৩, জুনে ১৭৫৯ জন এবং জুলাই মাসে ২৭৬৭ জন হাসপাতালে ভর্তি হন। এর মধ্যে গত ২৫ এপ্রিল বিআরবি হসপিটাল লিমিটেডে একজন, ২৯ এপ্রিল আজগর আলী হাসপাতালে ও ৩ জুলাই স্কয়ার হাসপাতালে একজন চিকিৎসকসহ মোট তিনজন মারা গেছেন।

এ বিষয়ে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ের মেডিসিন অনুষদের সাবেক ডিন অধ্যাপক ডা. এবিএম আব্দুল্লাহ মেডিভয়েসকে বলেন, অন্যান্য সময়ের চেয়ে এবছর ডেঙ্গু রোগের প্রকোপটা একটু বেশি। এর কারণ হলো, সামান্য বৃষ্টিতেই বাসা-বাড়ির আঙ্গিনায় বা কোন পাত্রে পানি জমে থাকে। আর এভাবে তিন থেকে চার দিন তা অতিবাহিত হলে ওই পানি থেকে ডেঙ্গুর বংশ বিস্তার লাভ করে । এজন্য লক্ষ রাখতে হবে যাতে বৃষ্টির পানি জমে না থাকে।

আরও পড়ুন  মশার ওষুধের কার্যকারিতা পরীক্ষায় ১০ সদস্যের কমিটি গঠন

ডেঙ্গু প্রতিরোধে সিটি করপোরেশনের এতো উদ্যোগ কেন কাজে আসছেনা -এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ডেঙ্গু মশা বাস করে আমাদের বসত বাড়ীতে। বাড়ীর আঙ্গিনা থেকে বেশি মশা বাস করে বড় বড় বাসাগুলোতে। যে কারণে সিটি করপোরেশনের নানা উদ্যোগ তেমন কোন কাজ আসছে না। মানুষের বাসা ফ্রিজের নিচে। ফুলের বাগানের টেবে পানি জমে থেকে এডিস মশা জন্ম গ্রহণ করে। তাই আগে নিজেকে সচেতন হতে হবে। নিজের বাসা বাড়ি পরিস্কার পরিচ্ছন্ন রাখতে হবে। তাহলে কিছু অংশ কমবে।

ডেঙ্গু রোগের চিকিৎসা প্রসঙ্গে ডা. আব্দুল্লাহ বলেন, যেকোন জ্বরে আক্রান্ত রোগী যত বেশি বিশ্রামে থাকবে, যত বেশি তরল খাবার খাবে, তত দ্রুত জ্বর নিয়ন্ত্রণে আসবে। তাই ডেঙ্গুর মূল চিকিৎসা প্রচুর তরল বা পানি গ্রহণ করা, পর্যাপ্ত বিশ্রামে থাকা ইত্যাদি। যেকোন জ্বরে ১০১ ডিগ্রী ফারেনহাইটের ওপর তাপমাত্রা গেলেই তা কমানোর ব্যবস্থা করতে হবে। প্রয়োজনে সাপোজিটরি ব্যবহার করতে হবে। প্রচুর পানি, শরবত ও তরল খাবার বেশি দিতে হবে। কোন অবস্থায়ই শরীরে যেন তরলের ঘাটতি না হয়। জ্বর হলে প্যারাসিটামল ছাড়া অন্য কোন ওষুধ খাবেন না। অন্যান্য ওষুধ প্রয়োগ না করাই উচিত। তবে যেকোন জ্বর তিনদিনের বেশি থাকলে, শরীরে প্রচ- ব্যথা থাকলে বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকের পরামর্শ নিতে হবে।

আরও পড়ুন ► যেভাবে বিপদজনক হয়ে উঠছে ডেঙ্গু!

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের অধ্যাপক ডা. শোয়েব মোমেন মজুমদার বলেন, প্রতিদিন হাসপাতালে ডেঙ্গু রোগীরা আসছে। এবারের সংখ্যাটা অনেক বেশি। বলা যায় যে, গত বছরের তুলনায় প্রায় পাঁচ গুন বেশি। এমনও রোগী আছেন যারা দ্বিতীয়বারের মতো, তৃতীয়বারের মতো আক্রান্ত হয়ে আসছেন। তাদের অবস্থা বেশ জটিল। আর এবারের ডেঙ্গু ছড়াচ্ছে মূলত তিন নম্বর প্রজাতির মশাগুলো। যেগুলোর কারণে রোগের জটিলতা অনেক বেড়েছে।

ডেঙ্গু রোগীর চিকিৎসায় হট লাইন সেবা:

ডেঙ্গু রোগীর চিকিৎসায় হট লাইন সেবা চালু করার ঘোষনা দিয়েছেন ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের (ডিএনসিসি’র) মেয়র মোহাম্মদ সাঈদ খোকন। সেই সঙ্গে  ৬৭ টি মেডিকেল টিম গঠন করা হয়েছে। হটলাইনে ফোন পাওয়ার সঙ্গে সঙ্গেই বাসায় চলে যাবে স্বাস্থ্যকর্মীরা।  কাজেই ডেঙ্গু নিয়ে আর আতংকিত না হওয়ার পরামর্শ দিয়েছেন মেয়র সাঈদ খোকন। একই সঙ্গে ডেঙ্গু নিয়ে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়তে পারে, বিভ্রান্তি সৃষ্টি হতে পারে এমন সংবাদ পরিবেশন থেকে গণমাধ্যমকর্মীদের বিরত থাকারও আহ্বান জানিয়েছেন তিনি।

সাঈদ খোকন বলেন, আজ থেকে ডিএনসিসির স্বাস্থ্যকর্মীরা মাঠে থাকবেন। ডেঙ্গু আক্রান্ত কোন ব্যক্তির স্বাস্থ্যসেবা প্রয়োজন হলে হটলাইন ০৯৬১১০০০৯৯৯ নম্বরে ফোন করলে স্বাস্থ্যকর্মী বাসায় চলে যাবে। ডেঙ্গু ছাড়াও অন্য কোন প্রাথমিক স্বাস্থ্যসেবা প্রয়োজন হলেও প্রাথমিক চিকিৎসাসেবার জন্য আমাদের হটলাইনে ফোন করলে স্বাস্থ্যকর্মী বাসায় চলে যাবে। এছাড়া চলতি মাসেই সিটি কর্পোরেশনের উদ্যোগে বাড়ি বাড়ি গিয়ে ডেঙ্গুর আবাস বা জন্মস্থান ধ্বংস করা হবে বলে ঘোষণা দেন সাঈদ খোকন।

তিনি বলেন, আমরা ডিএনসিসির পক্ষ থেকে সর্বশক্তি প্রয়োগ করে নাগরিকদের ডেঙ্গু প্রতিরোধ ও চিকিৎসাসেবা দিতে প্রস্তুত আছি। ইতোমধ্যে ৬৭টি মেডিকেল টিম গঠন করেছি। বিভিন্ন এলাকায় ৪৭৬টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, সামাজিক-সাংস্কৃতিক প্রতিষ্ঠানে স্বাস্থ্যকর্মীরা অবস্থান নেবেন, তারা বিনামূল্যে চিকিৎসাসেবা দেবেন। স্বাস্থ্যকর্মীরা মনে করলে হাসপাতালে ভর্তি করার ব্যবস্থা নেবেন। আর যদি ঘরে রেখে সুস্থ করানো যায় তাহলে সেই হিসেবে চিকিৎসা সেবা তারা দেবেন।

আরও পড়ুন ► ডেঙ্গু রোগীর চিকিৎসায় হট লাইন: বাসায় যাবে স্বাস্থ্যকর্মীরা

সংবাদটি শেয়ার করুন:

 


জাতীয় বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

ঢাকা ন্যাশনাল মেডিকেলের ডা. নাঈম আর নেই

ঢাকা ন্যাশনাল মেডিকেলের ডা. নাঈম আর নেই

মেডিভয়েস রিপোর্ট: ঢাকা ন্যাশনাল মেডিকেল কলেজের ফিজিওলজি বিভাগের অ্যাসোসিয়েট প্রফেসর ডা. মোহাম্মদ…

চিকিৎসকদের জন্য বিদেশে উচ্চ শিক্ষার ব্যবস্থা করা হবে: প্রধানমন্ত্রী

চিকিৎসকদের জন্য বিদেশে উচ্চ শিক্ষার ব্যবস্থা করা হবে: প্রধানমন্ত্রী

মেডিভয়েস ডেস্ক: দেশের চিকিৎসা সেবাকে এগিয়ে নিতে সরকার সবধরনের উদ্যোগ নেবে বলে…

ফার্মেসি ব্যবসায়ীর পছন্দের ওষুধ না লেখায় চিকিৎসক লাঞ্ছিত

ফার্মেসি ব্যবসায়ীর পছন্দের ওষুধ না লেখায় চিকিৎসক লাঞ্ছিত

মেডিভয়েস রিপোর্ট: কর্মক্ষেত্রে চিকিৎসক লাঞ্ছিত যেন স্বাভাবিক বিষয়ে পরিণত হয়েছে। প্রতিনিয়তই হামলার…

ডেঙ্গু প্রতিরোধে রাজধানীতে এসে ডেঙ্গুতেই প্রাণ গেল স্বাস্থ্য সহকারীর

ডেঙ্গু প্রতিরোধে রাজধানীতে এসে ডেঙ্গুতেই প্রাণ গেল স্বাস্থ্য সহকারীর

মেডিভয়েস রিপোর্ট: ডেঙ্গু প্রতিরোধে সরকারি আদেশে ঢাকা এসে ডেঙ্গুজ্বরে আক্রান্ত হয়ে মারা গিয়েছেন…

ভারতে চিকিৎসা নিতে গিয়ে ফিরেছেন লাশ হয়ে

ভারতে চিকিৎসা নিতে গিয়ে ফিরেছেন লাশ হয়ে

মেডিভয়েস ডেস্ক: ভারতের কলকাতায় চিকিৎসা নিতে গিয়ে লাশ হয়ে ফিরতে হলো মইনুল…

ডেঙ্গুজ্বরে জাতীয় হৃদরোগ ইনস্টিটিউটের সহকারী রেজিস্ট্রারপুত্রের মৃত্যু

ডেঙ্গুজ্বরে জাতীয় হৃদরোগ ইনস্টিটিউটের সহকারী রেজিস্ট্রারপুত্রের মৃত্যু

মেডিভয়েস রিপোর্ট: ডেঙ্গুজ্বরে আক্রান্ত হয়ে রাজধানীর জাতীয় হৃদরোগ ইনস্টিটিউট ও হাসপাতালের সহকারী…

আরো সংবাদ














জনপ্রিয় বিষয় সমূহ:

দুর্যোগ অধ্যাপক সায়েন্টিস্ট রিভিউ সাক্ষাৎকার মানসিক স্বাস্থ্য মেধাবী নিউরন বিএসএমএমইউ স্বাস্থ্যমন্ত্রী ঢামেক গবেষণা ফার্মাসিউটিক্যালস স্বাস্থ্য অধিদপ্তর