ঢাকা      রবিবার ২২, সেপ্টেম্বর ২০১৯ - ৭, আশ্বিন, ১৪২৬ - হিজরী

ভারতে স্বাস্থ্যখাতে বরাদ্দ বাড়ল ১৯ শতাংশ

মেডিভয়েস ডেস্ক: ভারতের বাজেটে স্বাস্থ্যখাতে ১৯ শতাংশ বরাদ্দ বাড়ানো হয়েছে। দেশটির ২০১৯-২০ অর্থবছরের বাজেটে অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারামন এ ঘোষণা দেন।

২০১৮-১৯ অর্থ বছরের স্বাস্থ্যখাতে বরাদ্দ করা হয়েছিল ৫২ হাজার ৮০০ কোটি টাকা। এবার তা বেড়ে হয়েছে ৬০ হাজার ৯০৮.২২ কোটি টাকা। খবর আনন্দবাজার পত্রিকার।

বাজেটের প্রশংসা করে ভারতের স্বাস্থ্যমন্ত্রী হর্ষ বর্ধন বলেন, এই বাজেট নরেন্দ্র মোদী সরকারের বাস্তববোধ এবং দূরদর্শিতার প্রকাশ।

বাজেটে স্বাস্থ্যবীমা প্রকল্পের জন্য বরাদ্দ করা হয়েছে ৬ হাজার ৪০০ কোটি টাকা।  ‘আয়ুষ্মান ভারত-প্রধানমন্ত্রী জন আরোগ্য যোজনা’নামের ওই প্রকল্পে প্রতিটি দরিদ্র পরিবারকে বার্ষিক ৫ লাখ টাকার স্বাস্থ্যবীমা দেওয়া হবে।   

জাতীয় শহর স্বাস্থ্য মিশনের অধীনে ‘আয়ুষ্মান ভারত হেলথ অ্যান্ড ওয়েলনেস সেন্টার’ গড়ে তোলার জন্য বাজেটে ২৪৯.৯৬ কোটি টাকা বরাদ্দের প্রস্তাব দিয়েছেন নির্মলা।

দেশটির জাতীয় গ্রামীণ স্বাস্থ্য মিশনের অধীনে হেলথ অ্যান্ড ওয়েলনেস সেন্টার গড়ে তোলার জন্য ১ হাজার ৩৪৯.৯৭ কোটি টাকা বরাদ্দ করা হয়েছে বাজেটে।

ওই প্রকল্পের অধীনে ২০২২ সালের মধ্যে প্রায় দেড় লক্ষ উপ-স্বাস্থ্য কেন্দ্র এবং প্রাথমিক স্বাস্থ্যকেন্দ্রের মানোন্নয়ন করা হবে। সেখানে রক্তচাপ, ডায়াবেটিস, ক্যানসার এবং বয়সজনিত রোগের চিকিৎসা করা হবে।

গতবার জাতীয় স্বাস্থ্য মিশনে বরাদ্দ করা হয়েছিল ৩০ হাজার ১২৯.৬১ কোটি টাকা। এবার তা বেড়ে হয়েছে ৩২ হাজার ৯৯৫ কোটি টাকা।

রাষ্ট্রীয় স্বাস্থ্যবীমা যোজনায় ১৫৬ কোটি টাকা বরাদ্দের প্রস্তাব দেওয়া হয়েছে। গত বছর ন্যাশনাল এড্স অ্যান্ড এসটিডি কন্ট্রোল প্রোগ্রামে বরাদ্দ করা হয়েছিল ২ হাজার ১০০ কোটি টাকা। এবার কেন্দ্র তা বাড়িয়ে ২ হাজার ৫০০ কোটি টাকা করার প্রস্তাব দিয়েছে। এ বছর এমসের জন্য বরাদ্দ করা হয়েছে ৩ হাজার ৫৯৯ কোটি ৬৫ লাখ টাকা। গত বছর এই বরাদ্দ ছিল ৩ হাজার ০১৮ কোটি টাকা।

মানসিক স্বাস্থ্য বাজেটে বরাদ্দ কমেছে

ভারতের এবারের বাজেটে জাতীয় মানসিক স্বাস্থ্য প্রকল্পে বরাদ্দ কমেছে। গত বছর বরাদ্দ হয়েছিল ৫০ কোটি টাকা। এ বার ৪০ কোটি টাকা।

এ বাজেট কমে যাওয়ায় দেশটিতে মিশ্র প্রতিক্রিয়া দেখা দিয়েছে।

মানবাধিকার কর্মী রত্নাবলী রায় তার প্রতিক্রিয়ায় বলেন, ‘রাষ্ট্র তার প্রান্তিক মানুষদের কোন চোখে দেখে, এ থেকেই বোঝা যায়। পরিসংখ্যান বলছে, আত্মহত্যা মারণ আকার নিয়েছে। মানসিক অসুস্থতার বোঝা আমাদের সমাজের উপরে অনেক বেশি। মানসিক স্বাস্থ্য আইন পড়লে বাজেট বরাদ্দ কমত না বলেই আমার বিশ্বাস।’

মেডিকেল কলেজের জন্য বরাদ্দ ৫৫০ কোটি টাকা

দেশটির কেন্দ্রীয় বাজেটে ২০১৮-১৯ অর্থবছরে ৫৫০ কোটি টাকা বরাদ্দের প্রস্তাব করা হয়েছে। তবে এ খাতে গত বছর বরাদ্দ হয়েছিল ৭৫০ কোটি টাকা। 
এদিকে নার্সিং পরিষেবার উন্নতির জন্য ৬৪ কোটি টাকা বরাদ্দ করেছে কেন্দ্র। এছাড়াও ফার্মাসি স্কুল এবং কলেজের উন্নতির জন্য বরাদ্দ করা হয়েছে পাঁচ কোটি টাকা। ৮০০ কোটি টাকা বরাদ্দের প্রস্তাব দেওয়া হয়েছে জেলা হাসপাতাল এবং রাজ্য সরকারি মেডিকেল কলেজের (স্নাতকোত্তর) উন্নয়নে। 

জেলা হাসপাতালগুলোকে নতুন মেডিকেল কলেজে উন্নীত করার জন্য কেন্দ্র বরাদ্দ করেছে ২ হাজার কোটি টাকা। 
আর সরকারি মেডিকেল কলেজ (স্নাতক স্তরে) এবং কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য প্রতিষ্ঠানগুলির উন্নয়নের জন্য ১ হাজার ৩৬১ কোটি টাকা বরাদ্দ করেছে কেন্দ্র। এ ছাড়া বিভিন্ন রাজ্যে ইনস্টিটিউশন অব প্যারামেডিক্যাল সায়েন্সেস এবং প্যারামেডিক্যাল কলেজ গড়ার জন্য ২০ কোটি টাকা বরাদ্দ করা হয়েছে।
 

 

 

সংবাদটি শেয়ার করুন:

 


আন্তর্জাতিক বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

৩২ কিমি দূরে বসে হৃদযন্ত্রের সফল অস্ত্রোপচার!

৩২ কিমি দূরে বসে হৃদযন্ত্রের সফল অস্ত্রোপচার!

মেডিভয়েস ডেস্ক: প্রায় ৩২ কিলোমিটার দূরে থেকেই হৃদযন্ত্রের সফল অস্ত্রোপচার করলেন একজন…

এবার ড্রোনেই পৌঁছাবে জরুরি ওষুধ ও রক্ত

এবার ড্রোনেই পৌঁছাবে জরুরি ওষুধ ও রক্ত

মেডিভয়েস ডেস্ক: রোগীদের কাছে জরুরি ওষুধ ও রক্ত পৌঁছে দিতে নতুন পরিষেবা…

ভারতে যে কারণে ই-সিগারেট নিষিদ্ধ

ভারতে যে কারণে ই-সিগারেট নিষিদ্ধ

মেডিভয়েস ডেস্ক: তরুণ প্রজন্মের ই-সিগারেটে আসক্ত হয়ে পড়া এবং রাজস্ব হারানোর প্রেক্ষাপটে…

আরো সংবাদ














জনপ্রিয় বিষয় সমূহ:

স্বাস্থ্যমন্ত্রী স্বাস্থ্য অধিদপ্তর সায়েন্টিস্ট রিভিউ সাক্ষাৎকার মানসিক স্বাস্থ্য মেধাবী নিউরন বিএসএমএমইউ ঢামেক গবেষণা ফার্মাসিউটিক্যালস