ঢাকা      শনিবার ২১, সেপ্টেম্বর ২০১৯ - ৫, আশ্বিন, ১৪২৬ - হিজরী

আজ বিশ্ব ব্রেইন টিউমার দিবস

মেভিয়েস রিপোর্ট: আজ ৮ জুন, বিশ্ব ব্রেইন টিউমার দিবস। ২০০০ সাল থেকে বিশ্বব্যাপী দিবসটি পালিত হচ্ছে। ১৯৯৮ সালে জার্মান ব্রেইন টিউমার অ্যাসোসিয়েশন নামে একটি দাতব্য সংস্থা গঠিত হয়। ২০০০ সাল থেকে এই সংস্থার উদ্যোগে পালিত হয়ে আসছে  ব্রেইন টিউমার দিবস। ব্রেইন টিউমারে আক্রান্ত রোগীদের প্রতি শ্রদ্ধা ও তাদের পরিবারের প্রতি সহমর্মিতা জানাতে দিনটি আন্তর্জাতিকভাবে চিহ্নিত।

ব্রেইন টিউমারের প্রকোপ দিন দিন বাড়ছে। দিবসটি পালনের লক্ষ্য হলো এই রোগ সম্পর্কে মানুষকে জানানো, আক্রান্তদের প্রতি সহানুভূতি গড়ে তোলা, প্রতিরোধে মানুষকে সচেতন করে তোলা।

চিকিৎসকদের মতে, যেকোন বয়সের যেকোন ব্যাক্তি ব্রেইন টিউমারে আক্রান্ত হতে পারে। পয়তাল্লিশ বছর বয়সী ব্যক্তিদের ক্যান্সারে মৃত্যুর হার বেশি এবং শিশুদের মধ্যে ছয় থেকে নয় বছর বয়সীদের মধ্যে এই মৃত্যুর হার আশঙ্কাজনক।

ব্রেইন টিউমার কী?

মস্তিষ্কের কোষের টিউমার হলো ব্রেইন টিউমার। যখন মস্তিষ্কের কোনো বিশেষ অঞ্চলের কোষ অনিয়ন্ত্রিতভাবে বাড়ে, তখন তাকে ব্রেইন টিউমার বলে। ব্রেইন টিউমার দুই রকমের হতে পারে— বিনাইন বা শিষ্ট টিউমার ও ম্যালিগন্যান্ট বা দুষ্টু টিউমার।

যেকোনো বয়সেই ব্রেইন টিউমার হতে পারে। কিছু টিউমারের সূত্রপাত হয় মস্তিষ্কেই। এদের বলে প্রাইমারি ব্রেইন টিউমার।

কিছু ব্রেইন টিউমারের সূত্রপাত হয় শরীরের অন্য কোনো স্থানের টিউমার থেকে। এদের বলে সেকেন্ডারি বা মেট্যাস্ট্যাটিক ব্রেইন টিউমার। মেট্যাস্ট্যাটিক ব্রেইন টিউমার প্রধানত আসে ছড়িয়ে পড়া ক্যানসার থেকে। যেমন- এর প্রধান উৎস হলো ফুসফুসের ক্যানসার, স্তন বা ব্রেস্ট ক্যান্সার, অন্ত্রের ক্যানসার, রক্ত ক্যান্সার বা লুকিমিয়্যা। প্রাইমারি ব্রেইন টিউমার সাধারণত মস্তিষ্কের বিভিন্ন কোষকলা থেকে সৃষ্টি হয় এবং এর মধ্যে প্রধান ক্যানসারগুলো হচ্ছে- গাইয়োমা বা অ্যাস্ট্রোসাইটোমা, অলিগোডেন্ত্রোগ্লাইয়োমা, মেডুলোব্লাস্টোমা, ইপেন্ডাইমোমা ও লিম্ফোমা।

ব্রেন টিউমারের লক্ষণ:

১. দীর্ঘ মেয়াদে মাথাব্যথা

২. খিঁচুনি হওয়া, অজ্ঞান হয়ে যাওয়া

৩. বমির ভাব বা বমি হওয়া
 
৪. দৃষ্টিশক্তি নষ্ট হয়ে যাওয়া

৫. কথা জড়িয়ে যাওয়া, কথা বলতে অসুবিধা

৬. আচরণগত পরিবর্তন ইত্যাদি

তবে এর লক্ষণগুলো নির্ভর করে মস্তিষ্কের কোন অংশ আক্রান্ত হয়েছে তার ওপর।

জাতীয় ক্যান্সার গবেষণা ইনস্টিটিউট ও হাসপাতালের সাবেক পরিচালক অধ্যাপক ড. গোলাম মোস্তফা জানান, ব্রেইন টিউমার হলে দীর্ঘ মেয়াদে মাথাব্যথা, খিঁচুনি হওয়া, অজ্ঞান হয়ে যাওয়া, বমির ভাব বা বমি হওয়া, দৃষ্টিশক্তি নষ্ট হয়ে যাওয়া, কথা জড়িয়ে যাওয়া, কথা বলতে অসুবিধা, আচরণগত পরিবর্তনসহ বিভিন্ন সমস্যা দেখা দিতে পারে। তাই এ বিষয়ে সতর্ক থাকা জরুরি।

সংবাদটি শেয়ার করুন:

 


জাতীয় বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

এমবিবিএস ভর্তি পরীক্ষায় রেকর্ড সংখ্যক আবেদন

এমবিবিএস ভর্তি পরীক্ষায় রেকর্ড সংখ্যক আবেদন

মেডিভয়েস রিপোর্ট: দেশের সরকারি ও বেসরকারি মেডিকেল কলেজে এমবিবিএস প্রথম বর্ষের ভর্তি পরীক্ষায…

চিকিৎসক সংকট: তথ্য জানতে জেলায় জেলায় ৩৯তম বিসিএসে উত্তীর্ণরা

চিকিৎসক সংকট: তথ্য জানতে জেলায় জেলায় ৩৯তম বিসিএসে উত্তীর্ণরা

ভ্রমণকাহিনী শুনলেই দৃশ্যপটে ভেসে ওঠে আনন্দময় কিছু মূহূর্ত। ভ্রমণকে বেছে নেয় সবাই…

‘ভ্যাকসিন হিরো’ সম্মাননায় ভূষিত হচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী

‘ভ্যাকসিন হিরো’ সম্মাননায় ভূষিত হচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী

মেডিভয়েস রিপোর্ট: বাংলাদেশে টিকাদান কর্মসূচির সাফল্যের জন্য ‘ভ্যাকসিন হিরো’ সম্মাননায় ভূষিত হচ্ছেন…

উপ-পরিচালক পদে পদোন্নতি পেলেন ৪৯ চিকিৎসক

উপ-পরিচালক পদে পদোন্নতি পেলেন ৪৯ চিকিৎসক

মেডিভয়েস রিপোর্ট: স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রনালয়ের বিভাগীয় পদোন্নতি পদোন্নতি কমিটির (ডিপিসি) সুপারিশক্রমে…

কুমিল্লার সেরা মেডিকেল অফিসার ডা. আবুল ফরহাজ খান

কুমিল্লার সেরা মেডিকেল অফিসার ডা. আবুল ফরহাজ খান

মো. মনির উদ্দিন: কুমিল্লা জেলার সেরা মেডিকেল অফিসার হিসেবে পুরস্কৃত হয়েছেন চান্দিনা…

রোগী দেখা রেখে ফিটনেস সার্টিফিকেট না দেয়ায় চিকিৎসক লাঞ্ছিত

রোগী দেখা রেখে ফিটনেস সার্টিফিকেট না দেয়ায় চিকিৎসক লাঞ্ছিত

মেডিভয়েস রিপোর্ট: নাটোরে রোগী দেখা রেখে ড্রাইভিং লাইসেন্সের জন্য ফিটনেস সার্টিফিকেট না…

আরো সংবাদ














জনপ্রিয় বিষয় সমূহ:

দুর্যোগ অধ্যাপক সায়েন্টিস্ট রিভিউ সাক্ষাৎকার মানসিক স্বাস্থ্য মেধাবী নিউরন বিএসএমএমইউ স্বাস্থ্যমন্ত্রী ঢামেক গবেষণা ফার্মাসিউটিক্যালস স্বাস্থ্য অধিদপ্তর