২৮ মে, ২০১৯ ১১:১৩ এএম

চিকিৎসক সেজে হাসপাতালে দালাল চক্র সক্রিয়!

চিকিৎসক সেজে হাসপাতালে দালাল চক্র সক্রিয়!

মেডিভয়েস রিপোর্ট: হাসপাতালে এবার চিকিৎসক সেজে দালাল চক্র সক্রিয় হয়েছে। তারা নিজেদের চিকিৎসক পরিচয় দিয়ে রোগীকে ভুল বুঝিয়ে হাসপাতাল থেকে বিভিন্ন ক্লিনিকে নিয়ে যাচ্ছে। 

স্যার সলিমুল্লাহ মেডিকেল কলেজ ও মিটফোর্ড হাসপাতালে রোববার সাদা গাউন পরিহিত অবস্থায় এক ভুয়া চিকিৎসককে আটকের পর এ নিয়ে ব্যাপক আলোচনা হয়েছে। ওই দালাল ওই হাসপাতালের ৩৬তম ব্যাচের ইন্টার্নি হিসেবে পরিচয় দিয়ে বিভিন্ন ক্লিনিকে রোগী ভাগিয়ে নেয়ার কাজ করছিল।

স্থানীয় সূত্র জানায়, হাসপাতালের এক নম্বর বিল্ডিংয়ের সামনে আনসার প্লাটুন কমান্ডার সেলিম শিকদার এক ব্যক্তিকে চিকিৎসক হিসেবে সন্দেহ লাগে। এক পর্যায়ে ওই প্রতারককে চ্যালেঞ্জ করলে তিনি পালিয়ে যেতে চেষ্টা করেন। পরে কর্তব্যরত আনসাররা তাকে পুলিশে সোপর্দ করেছে। 

পুলিশি জিজ্ঞাসাবাদে ওই প্রতারক ভিজিটিং কার্ড করে নিজেকে এমবিবিএস ডাক্তার বলে পরিচয় দিয়ে রোগীদের সঙ্গে দীর্ঘদিন প্রতারণা করার কথা স্বীকার করেছে।

এ সময় তার কাছ থেকে আইডি কার্ড, ভিজিটিং কার্ড, বিভিন্ন ধরনের সরকারি ওষুধ ও হাসপাতালের মেডিসিন বিভাগে কর্মরত ডাক্তার জাহিদের নামাঙ্কিত সিল উদ্ধার করা হয়। এ ঘটনায় ওই ভুয়া চিকিৎসকের বিরুদ্ধে কোতোয়ালি থানায় মামলা হয়েছে।

হাসপাতাল সূত্র জানায়, মিটফোর্ড হাসপাতালে দীর্ঘদিন ধরে যশোরের বাগারপাড়া থানার হালদা গ্রামের অলিয়ার রহমানের ছেলে ইলিয়াস হোসেন চিকিৎসক সেজে রোগীদের সঙ্গে প্রতারণা করে আসছিল। 

স্যার সলিমুল্লাহ মেডিকেল কলেজ ও মিটফোর্ড হাসপাতালের আনসার প্লাটুন কমান্ডার (পিসি) মো. সেলিম শিকদার বলেন, ভুয়া ডাক্তার ইলিয়াসের গতিবিধি সন্দেহজনক হওয়ায় আমরা তাকে চ্যালেঞ্জ করি। তিনি দৌঁড়ে পালানোর চেষ্টা করেন।

ওই সময় আনসার সদস্যরা তাকে আটক করে নিয়ে আসে। হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের নির্দেশে কোতোয়ালি থানায় তার বিরুদ্ধে মামলা করা হয়েছে।

  এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত